ঢাকা | বুধবার | ২০ জুন, ২০১৮ | ৬ আষাঢ়, ১৪২৫ | ৫ শাওয়াল, ১৪৩৯ | দুপুর ১:০২ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • চাকরির সংবাদ
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
  • Space For Advertisement (Spot # 2) - Advertising Rate Chart



    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    নেটবিশ্বে পর্ন জগতকে কাপালেন পাকিস্তানি নাদিয়া আলি! (ভিডিওটি দেখুন)
    এনবিএস | Tuesday, March 13th, 2018 | প্রকাশের সময়: 10:40 am

    নেটবিশ্বে পর্ন জগতকে কাপালেন পাকিস্তানি নাদিয়া আলি! (ভিডিওটি দেখুন)নেটবিশ্বে পর্ন জগতকে কাপালেন পাকিস্তানি নাদিয়া আলি! (ভিডিওটি দেখুন)

    ভিডিওটি একদম নিচে দেখুন…

    ছেলেরা যখন শারীরিকভাবে উত্তেজিত হয়ে পরে তখন হাবেভাবে বোঝা যায়। কিন্তু মেয়েরা উত্তেজিত পড়লে বুঝতে দেয় না। তার কারণ মেয়েরা নিজেদের উত্তেজনা কন্ট্রোল করতে পারে। সঙ্গিনীর মনের কথা বুঝতে পারেনা বলে এই নিয়ে চলে অনেক মন কষাকষিও। 

    এমনকি অনেক সময় দেখা যায় যৌন মিলনের পরে মহিলা সঙ্গি কতখানি স্যাটিসফায়েড তাও বুঝতে পারে না। যার ফলে যৌন মিলন যতই মধুর হোক না কেন সম্পর্কে কোথাও একটা ফাঁক থেকেই যায়। আপনি জানেন কি এতসব ঝামেলা থেকে বাঁচতে মাত্র কয়েকটি উপায়ে আপনি বুঝে নিতে পারবেন আপনার মহিলা সঙ্গী কতখানি উত্তেজিত এবং কতখানি স্যাটিসফায়েড আপনার থেকে। আপনাদের জন্যে কিছু টিপস তুলে ধরা হলো:

    মহিলাদের উত্তেজনার লক্ষণ:

    ১. মহিলারা উত্তেজিত হয়ে পড়লে তার চোখ দু’টি অর্ধেকবোজা ও রক্তবর্ণ ধারণ করবে।

    ২. জোরে জোরে নিশ্বাস পড়তে থাকবে।

    ৩. চেহারার মধ্যে উত্তেজনার ভাব স্পষ্ট ফুটে ওঠে।

    ৪. হাত পা ঠাণ্ডা হ’য়ে যাবে।

    ৫. চোখ বুজে থাকতে চায়বে ।

    ৬. লজ্জা কমে যাবে, পুরুষ তার অঙ্গস্পর্শ করলে সে তাতে বাধা দেয় না।

    ৭. এমনকি পুরুষ তার গোপন স্থানে হাত দিলে বা চাপ দিলে সে তা উপভোগ করে। কোনও রকম ভয়, সঙ্কোচ কাটিয়ে সারাটা দেহই সে পুরুষকে অর্পণ করে।

    মহিলারা যৌন তৃপ্তি লাভ করলে তার মধ্যে যে লক্ষণগুলি প্রকাশ পায় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো –

    ১.তাদের দেহ নুইয়ে পড়ে।

    ২.সারাটা দেহে কোমল হয়ে আসে। গলার স্বর বদলে যায়।

    ৩.দ্রুত হৃৎস্পন্দন হ’তে থাকে। আবেশে চোখ বুজে থাকে। যোনি থেকে রসস্রাব নির্গত হয়। মহিলার সারা দেহে শিহরণ হতে থাকে।

    ৪. ধীরে ধীরে গোঁ গোঁ টাইপ শব্দ করে। পুরুষ সঙ্গীকে জোর করে বুকে চেপেও ধরে রাখতে পারে।

    এবার যৌনপল্লিতে জৈবিক চাহিদা মেটানোর জন্য মিলবে পুতুল, মানুষ নয়। এমনই এক যৌনপল্লী গড়ে উঠেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। এ যৌনপল্লিতে যেতে চাইলে ক্রেতাকে প্রথমে অনলাইনে বুকিং দিতে হবে। তবে বুকিং নিশ্চিতের পরই মিলবে স্থানের নাম। বুকিয়েং আগে স্থানের নাম গোপন রাখা হবে।

    সেখানে পৌঁছালে ইচ্ছেমতো পুতুল বেছে নিতে বলা হবে। তারপর চাহিদা মতো পাওয়া যাবে যৌন পুতুল।

    জানা যায়, পুতুল ভাড়া নিতে হলে প্রতি ঘণ্টার জন্য গুনতে হবে ৯ হাজার টাকা (৮৯ ইউরো)। তবে কেউ দুই ঘণ্টার জন্য সময় কাটাতে চাইলে একটু মূল্যছাড় মিলবে। সেক্ষেত্রে ভাড়া আসবে সাড়ে ১৫ হাজার টাকা (১৪৯ ইউরো)। পকেট থেকে আরও দুই হাজার (১৯ ইউরো) খসালেই পাওয়া যাবে ভার্চুয়াল রিয়েলিটির সুবিধা। যা পুতুলের সঙ্গে কাটানো সময় একেবারে বাস্তবের মতো করে তুলবে।

    বিষয়টি ওই যৌনপল্লীর ওয়েবসাইটে বেশ ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘আপনি কোনো সম্পর্কের মধ্যে থাকেন, কিংবা একা, আমাদের সেবা খুবই সহজে পাওয়া যাবে। আপনি শুধু আপনার পছন্দের পুতুলটি বেছে নিন, আর বেছে নিন আপনার জন্য উপযুক্ত সময়, তারপরই সরাসরি প্যারিসে আমাদের যৌন পুতুলগুলো উপভোগ করুন।’

    তবে বিচিত্র এই যৌনপল্লী কিন্তু প্যারিসেই প্রথম নয়। এর আগে স্পেন ও যুক্তরাজ্যেও গড়ে উঠেছে পুতুলের যৌনপল্লী। আর তারা খরিদ্দারের সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছেন।

    মুখ ঢেকে রাখেন হিজাবে। এই নাদিয়া আলি মাত্র এক বছরেই দস্তুরমতো হেলায় শাসন করছেন পর্ন দুনিয়া।

    পর্ন বিশ্বে সম্প্রতি সাড়া ফেলেছে ‘ওয়েলকাম টু উওমেন অফ দ্য মিডল ইস্ট’। ছবির ট্যাগলাইনে বলা হয়েছে, ‘এদের দেখে অত্যাচারিত মনে হলেওসুযোগ পেলে নিজেদের বন্য অনবদমিত স্বাভাবিক যৌনতার বিস্ফোরণ ঘটাতে সিদ্ধহস্ত। হয়তো এমন দৃশ্য হয়তো দেখা যেত বিন লাদেনের হারেমে,এবার নিজের চোখেই দেখুন।’

    ছবিতে মধ্যপ্রাচ্যের এক গৃহবধূকে দিনের পর দিন স্বামীর যৌন অত্যাচার সহ্য করার বিস্তারিত দৃশ্য তুলে ধরা হয়েছে। আসলে গল্পের মোড়কে নিখাদপর্নোগ্রাফি। গৃহবধূর চরিত্রে অভিনয় করেছেন পাকিস্তান বংশোদ্ভূত আমেরিকা নিবাসি পর্নস্টার নাদিয়া আলি। মাত্র এক বছরেই পর্ন ছবির বাজারেসাড়া ফেলে দিয়েছেন ছাব্বিশের তরুণী। খ্যাতি ও জনপ্রিয়তার সঙ্গে সঙ্গেই অবশ্য দেখা দিয়েছে মৌলবাদীদের প্রাণনাশের হুমকি।

    প্রাপ্তবয়স্কদের ছবিতে শরীর উন্মোচন করলেও বিষযটি পেশা হিসেবেই দেখতে চান নাদিয়া। সেই সঙ্গে, নগ্নতার মাধ্যমে ছোট থেকে দেখে আসাপুরুষশাসিত পাক সমাজের ভন্ডামির বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফিকেই হাতিয়ার হিসেবে তুলে ধরতে চান তিনি। ছবির খোলামেলা দৃশ্যে সচেতন ভাবেই নিজেরলমুখ ঢেকে রাখেন হিজাবে। তাঁর যুক্তি, ‘ছোট থেকেই শুনে এসেছি, অমুক মেয়েটি বেশ্যা।

    আরো জানুন – ছেলেরা যখন শারীরিকভাবে উত্তেজিত হয়ে পরে তখন হাবেভাবে বোঝা যায়। কিন্তু মেয়েরা উত্তেজিত পড়লে বুঝতে দেয় না। তার কারণ মেয়েরা নিজেদের উত্তেজনা কন্ট্রোল করতে পারে। সঙ্গিনীর মনের কথা বুঝতে পারেনা বলে এই নিয়ে চলে অনেক মন কষাকষিও। এমনকি অনেক সময় দেখা যায় যৌন মিলনের পরে মহিলা সঙ্গি কতখানি স্যাটিসফায়েড তাও বুঝতে পারে না। যার ফলে যৌন মিলন যতই মধুর হোক না কেন সম্পর্কে কোথাও একটা ফাঁক থেকেই যায়। আপনি জানেন কি এতসব ঝামেলা থেকে বাঁচতে মাত্র কয়েকটি উপায়ে আপনি বুঝে নিতে পারবেন আপনার মহিলা সঙ্গী কতখানি উত্তেজিত এবং কতখানি স্যাটিসফায়েড আপনার থেকে। আপনাদের জন্যে কিছু টিপস তুলে ধরা হলো:

    মহিলাদের উত্তেজনার লক্ষণ:

    ১. মহিলারা উত্তেজিত হয়ে পড়লে তার চোখ দু’টি অর্ধেকবোজা ও রক্তবর্ণ ধারণ করবে।

    ২. জোরে জোরে নিশ্বাস পড়তে থাকবে।

    ৩. চেহারার মধ্যে উত্তেজনার ভাব স্পষ্ট ফুটে ওঠে।

    ৪. হাত পা ঠাণ্ডা হ’য়ে যাবে।

    ৫. চোখ বুজে থাকতে চায়বে ।

    ৬. লজ্জা কমে যাবে, পুরুষ তার অঙ্গস্পর্শ করলে সে তাতে বাধা দেয় না।

    ৭. এমনকি পুরুষ তার গোপন স্থানে হাত দিলে বা চাপ দিলে সে তা উপভোগ করে। কোনও রকম ভয়, সঙ্কোচ কাটিয়ে সারাটা দেহই সে পুরুষকে অর্পণ করে।

    মহিলারা যৌন তৃপ্তি লাভ করলে তার মধ্যে যে লক্ষণগুলি প্রকাশ পায় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো –

    ১.তাদের দেহ নুইয়ে পড়ে।

    ২.সারাটা দেহে কোমল হয়ে আসে। গলার স্বর বদলে যায়।

    ৩.দ্রুত হৃৎস্পন্দন হ’তে থাকে। আবেশে চোখ বুজে থাকে। যোনি থেকে রসস্রাব নির্গত হয়। মহিলার সারা দেহে শিহরণ হতে থাকে।

    ৪. ধীরে ধীরে গোঁ গোঁ টাইপ শব্দ করে। পুরুষ সঙ্গীকে জোর করে বুকে চেপেও ধরে রাখতে পারে।

    এবার যৌনপল্লিতে জৈবিক চাহিদা মেটানোর জন্য মিলবে পুতুল, মানুষ নয়। এমনই এক যৌনপল্লী গড়ে উঠেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। এ যৌনপল্লিতে যেতে চাইলে ক্রেতাকে প্রথমে অনলাইনে বুকিং দিতে হবে। তবে বুকিং নিশ্চিতের পরই মিলবে স্থানের নাম। বুকিয়েং আগে স্থানের নাম গোপন রাখা হবে।

    সেখানে পৌঁছালে ইচ্ছেমতো পুতুল বেছে নিতে বলা হবে। তারপর চাহিদা মতো পাওয়া যাবে যৌন পুতুল।

    জানা যায়, পুতুল ভাড়া নিতে হলে প্রতি ঘণ্টার জন্য গুনতে হবে ৯ হাজার টাকা (৮৯ ইউরো)। তবে কেউ দুই ঘণ্টার জন্য সময় কাটাতে চাইলে একটু মূল্যছাড় মিলবে। সেক্ষেত্রে ভাড়া আসবে সাড়ে ১৫ হাজার টাকা (১৪৯ ইউরো)। পকেট থেকে আরও দুই হাজার (১৯ ইউরো) খসালেই পাওয়া যাবে ভার্চুয়াল রিয়েলিটির সুবিধা। যা পুতুলের সঙ্গে কাটানো সময় একেবারে বাস্তবের মতো করে তুলবে।

    বিষয়টি ওই যৌনপল্লীর ওয়েবসাইটে বেশ ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘আপনি কোনো সম্পর্কের মধ্যে থাকেন, কিংবা একা, আমাদের সেবা খুবই সহজে পাওয়া যাবে। আপনি শুধু আপনার পছন্দের পুতুলটি বেছে নিন, আর বেছে নিন আপনার জন্য উপযুক্ত সময়, তারপরই সরাসরি প্যারিসে আমাদের যৌন পুতুলগুলো উপভোগ করুন।’

    তবে বিচিত্র এই যৌনপল্লী কিন্তু প্যারিসেই প্রথম নয়। এর আগে স্পেন ও যুক্তরাজ্যেও গড়ে উঠেছে পুতুলের যৌনপল্লী। আর তারা খরিদ্দারের সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছেন।

    ভিডিওটি একদম নিচে দেখুন
    দৈনন্দিন জীবনে স্নান-খাওয়ার মতই গুরুত্বপূর্ণ ‘সেক্স লাইফ’। সুস্থ ও সুন্দর সেক্স লাইফ জীবনীশক্তি যোগাতে পারে। তবে অনেকের মনেই এমন প্রশ্ন রয়েছে যে ঠিক কতটা ‘সেক্স’ প্রয়োজন? সম্প্রতি এক গবেষণায় সেই সংক্রান্ত তথ্য উঠে এসেছে।

    ‘প্লে বয়’ ম্যাগাজিনের করা একটি সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, ১৮ থেকে ২৯ বছর বয়সীরা গড়ে সপ্তাহে দু’বার সঙ্গম করেন। অর্থাৎ বছরে ১১২ বার। আর ৪০ থেকে ৪৯ বছর বয়সীরা বছরে ৬৯ বার।

    তবে বিয়ের পর সেক্সের পরিমাণ কমে যাওয়া খুব সাধারণ একটা ঘটনা। অনেকের ক্ষেত্রেই এমনটা হয়ে থাকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটা এ কারণে নয় যে পরস্পরের প্রতি আগ্রহ কমে যায়। তবে, বিয়ের পর সেক্সের পরিমাণ কমে যাওয়ার কারণ হল, পারিবারিক দায়িত্ব সামলাতে গিয়ে এই অবস্থা হয়ে থাকে। পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি সেক্স লাইফে প্রভাব ফেলে। অর্থাৎ ঘর পরিষ্কার করা কিংবা সংসার সামলানোর পর আর সেক্সের জন্য সময় থাকে না।

    গবেষণা বলছে, সপ্তাহে একবার সেক্স খুশি থাকার জন্য যথেষ্ট। তবে কতটা খুশি হওয়া যায় সেটা স্পষ্ট নয়। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, এভাবে হিসেব করে সেক্স করা কখনই উচিৎ নয়। এমনটা ভাবার কোনও কারণ নেই যে সপ্তাহে তিনবার সেক্স করলে খুব ক্ষতি হয়ে যাবে। আবার একথা যদি বলা হয় যে, জীবনে খুশী হওয়ার জন্য সপ্তাহে অন্তত একবার সেক্স করতেই হবে, সেটাও সত্যি নয়। কোনও হিসেব না করে কখনও একবার, কখনও তিনবার। এটা সুস্থ এবং সুখী দাম্পত্যের ইঙ্গিত দেয়।

    ২০০৯ সালের এক গবেষণায় দেখা গিয়েছিল, ১৫ শতাংশ মহিলা ছ’মাসে সেক্স করেননি। আর মাত্র ৩৪ শতাংশ দম্পতি সপ্তাহে দু থেকে তিনবার সেক্স করে থাকেন।

    মোদ্দা কথা হল, যতবার ইচ্ছে ততবারই সেক্স করুন। আপনি এবং আপনার পার্টনার যতবার সঙ্গমে তৃপ্তি পাবেন, ততবারই প্রয়োজন। হঠাৎ কেন আপনার পার্টনার সেক্সের পরিমাণ কমিয়ে দিয়েছে, বা হঠাৎ করে বাড়িয়ে দিয়েছে, সেটা মাথায় না রাখলেও চলবে।

    ভিডিওটি দেখতে এই লেখার উপরে ক্লিক করুন !!!

       


    আপনার মন্তব্য লিখুন...
    Delicious Save this on Delicious

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০১৮

    উপদেষ্টা সম্পাদক : এডভোকেট হারুন-অর-রশিদ
    প্রধান সম্পাদক : মোঃ তারিকুল হক, সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া,
    প্রধান প্রতিবেদক : এম.এ. হোসেন, বিশেষ প্রতিবেদক : ম.খ. ইসলাম
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    ৩৯, আব্দুল হাদি লেন, বংশাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ ৭৩৪৩৬২৩, +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : nbs.news@hotmail.com, news@nbs24.org

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। সেল: ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Paper

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Webmail