‘রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর জৌলুস হারাচ্ছে’
Breaking News
Home » ৩ শিরোনাম » ‘রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর জৌলুস হারাচ্ছে’

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

‘রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর জৌলুস হারাচ্ছে’
এনবিএস | সোমবার, এপ্রিল ১৬, ২০১৮ | প্রকাশের সময়: ১১:২০ পূর্বাহ্ণ

‘রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর জৌলুস হারাচ্ছে’‘রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর জৌলুস হারাচ্ছে’

১৯৭১ সালের ১৭ই এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে শপথগ্রহণ করে বাংলাদেশের প্রথম অস্হায়ী সরকার। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। এর আগে ১০ই এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রপতি এবং তাজউদ্দিন আহমদকে প্রধানমন্ত্রী করে সরকার গঠনের ঘোষণা দেয়া হয়। প্রতিবছরের মতো দিনটিকে ঘিরে থাকছে নানা আয়োজন। ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসকে কেন্দ্র করে চলছে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ।  রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহাসিক স্থানটি জৌলুস হারাচ্ছে বলে মনে করেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। বিষয়টি স্বীকার করে লোকবলের অভাবকে দায়ী করছেন জেলা প্রশাসক।

বৈদ্যনাথতলার নামকরণ হয় মুজিবনগর। ঐতিহাসিক এ স্থানকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে পর্যটন স্পট। যেখানে চিত্রকর্মের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের দৃশ্যপট। তবে পর্যটন বান্ধব না হওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন আগত দর্শনার্থীরা।

দর্শনার্থীদের কয়েকজন জানান, এখানে কোন রেস্টরুম, একটু বিশ্রামের জায়গা কোনটাই নেই। এটি যেন আবার নতুন করে সাজানো হয়।

স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকারকে গার্ড অব অনার দেয়া ১২ জন আনসার সদস্যের মধ্যে এখনো বেঁচে আছেন ৪ জন। ভাস্কর্য নির্মাণসহ নানা দাবি তাদের।

আনসার সদস্যদের একজন বলেন, ৮ জনের ভাস্কর্য হয়েছে আরো ৪ জনের ভাস্কর্য কেন হয় নাই তা জানা নাই। আমরা বৃদ্ধ হয়েছি, কিন্তু আমাদের মাসের ৩ হাজার টাকা দিয়ে ঔষধের খরচই হয় না।

রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে নির্মাণাধীন মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কমপ্লেক্স জৌলুস হারাচ্ছে বলে দাবি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির। বিষয়টি স্বীকার করে লোকবলের অভাবকে দায়ী করছেন জেলা প্রশাসক।

মেহেরপুর জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ বলেন, টোটাল যে প্রকল্প তা বানানো হয়নি, যেটুকু কমপ্লিট হয়েছে সেটুকু যদি মেইন্টেন করা হয় তাহলে প্রতি বছর ১৭ এপ্রিল আসলে যে তোড়জোড় শুরু হয় তা থাকবে না।

মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আয়ুব হোসেন বলেন, এখানে যেন সারাদেশ থেকে মানুষেরা বেড়াতে আসতে পারে সে ব্যবস্থা করতে চাই আমরা। কিন্তু লোকবলের অভাবে আমরা তা করতে পারছি না।

দিনটিকে কেন্দ্র করে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মেহেরপুরের মুজিবনগরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, গার্ড অব অনার, স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তক অর্পণ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। সূত্র: সময় টিভি

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Translate »