“সরকারী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৪” – ৭ পরীক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা ও কারাদণ্ড
Breaking News
Home » বাংলাদেশ » “সরকারী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৪” – ৭ পরীক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা ও কারাদণ্ড

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

“সরকারী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৪” – ৭ পরীক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা ও কারাদণ্ড
এনবিএস | শুক্রবার, মে ১১, ২০১৮ | প্রকাশের সময়: ১১:০৪ অপরাহ্ণ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ সারা দেশের ন্যায় ঠাকুরগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত হল “সরকারী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৪” ।

১১ মে রোজ শুক্রবার ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলাধীন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৭ টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৭,৪৬০ জন, উপস্থিতির সংখ্যা ছিল ১১,২১১ জন, অনুপস্থিতির সংখ্যা ছিল ৬,২৪৯ জন ও বহিষ্কারের সংখ্যা ছিল ১০ জন। পরীক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন এক্সিকিউতিভ ম্যাজিস্ট্রেটগণ যথাক্রমে জনাব আতিক এস,বি সাত্তার, জনাবা মাকসুদা আক্তার মাসু, জনাব ইফতেরখার ইউনুস ও জনাবা বহিশিখা আশা- ঠাকুরগাঁও।

পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে মোবাইল ফোন ও ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করায় ৭ জন পরীক্ষার্থীকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের একটি দল। আটককৃত পরীক্ষার্থীরা হলেন ১। লুচি খাতুন, পিতা- মোঃ লুতফর রহমান, সাং- সিংহাড়ী, উপজেলা- হরিপুর, ২। নিরদা রানী, স্বামী- সুফল রায়, সাং- মাধবপুর, ৩। মোছাঃ শাহানাজ বেগম, পিতা- মৃত রাশেদ আলি, সাং- পুরাতন ঠাকুরগাঁও, ৪। হাবিবা পারভিন, স্বামী- মাসুদ রানা, সাং- পাটাগড়া, নেকমরদ, রানীশংকৈল, ঠাকুরগাঁও, ৫। শিরিন সুলতানা হিরা, পিতা- ইব্রাহীম আলী, সাং- মহেশপুর, রানীশংকৈল, ঠাকুরগাঁও, ৬। পুর্নিমা রায়, স্বামী- রণজিৎ রায়, সাং- মলানি, ঠাকুরগাঁও, ৭। মোঃ বেলাল হোসেন, পিতা- মোঃ মজিবর রহমান সাং- বগুলাডাঙ্গী, ঠাকুরগাঁও। তাদেরকে পাবলিক পরীক্ষাসমূহ (অপরাধ) আইন, ১৯৮০ ও দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় উপস্থিত সাক্ষীদের উপস্থিতিতে স্বেচ্ছায় দোষ স্বীকার করায় তাদের মধ্যে ৩ (তিন) জন আসামীর প্রত্যেক-কে ১ (এক) মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয় এবং অপর ৪ (চার) জনকে জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য যে, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ আখতারুজ্জামান এর দিক নির্দেশনায় ঠাকুরগাঁও জেলায় মোবাইল কোর্ট (ভ্রাম্যমাণ আদালত) অভিযান পরিচালিত হয়ে আসছে। জন সাধারণের সুষ্ঠ সেবা প্রাপ্তিতে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানা যায়।

 

 

Posted by: Kamrul Hasan

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Translate »