ঢাকা | বুধবার | ৮ জুলাই, ২০২০ | ২৪ আষাঢ়, ১৪২৭ | ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
    • NBS » ৪ শিরোনাম » ১৯৬২ সালের পুনরাবৃত্তি নয়তো চিনের সেনা সরানো, সতর্ক আছে কি ভারতীয় বাহিনী?


    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    হারিয়ে যাচ্ছে সুন্দরবনের ডলফিন
    এনবিএস | Monday, August 12th, 2019 | প্রকাশের সময়: 10:39 am

    হারিয়ে যাচ্ছে সুন্দরবনের ডলফিনহারিয়ে যাচ্ছে সুন্দরবনের ডলফিন

    আমাদের সুন্দরবন রয়েল বেঙ্গল টাইগার, মিঠা পানির শুশুক এবং ইরাবতি ডলফিনসহ বিভিন্ন বিপন্ন প্রাণীর আবাসস্থল। অতিরিক্ত মাছ শিকার, ক্রমবর্ধমান সামুদ্রিক ট্র্যাফিক, শিকার ও অপরিকল্পিত পর্যটনসহ বিভিন্ন কারণে ডলফিন ও শুশুকের সংখ্যা বিলুপ্তি ও হুমকির মুখে পড়েছে।

    ২০১৪ সালে সুন্দরবনে নদীতে দুর্ঘটনায় তেল ছড়িয়ে পড়ে সৃষ্ট পরিবেশ দূষণের প্রভাব পড়ে ডলফিনের ওপর। আইডেন্টিফাইং ডলফিন হটস্পট ইন সাউথ ইস্টার্ন বাংলাদেশ শীর্ষক প্রতিবেদন অনুযায়ী, উপকূলীয় অঞ্চলে ২০০১ সালে এক সমীক্ষায় সুন্দরবনের তুলনামূলক কম লবণাক্ত এলাকায় ২২৫টি শুশুক শনাক্ত করেছিলেন ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটি (ডব্লিউসিএস) বাংলাদেশের গবেষকরা। কিন্তু গত বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত সমীক্ষায় দেখা যায়, এ সংখ্যা কমে ১৫৯ এ দাঁড়িয়েছে।

    এদিকে, ২০০৬ সালের সমীক্ষায় সুন্দরবন এলাকায় ইরাবতি ডলফিন শনাক্ত হয়েছিল ৪৫১টি। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত করা সমীক্ষায় এ সংখ্যা ১৯৮টি। যা রীতিমতো উদ্বেগজনক। রেকর্ড অনুযায়ী, ২০০৭ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সুন্দরবন ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ৮০টি শুশুক, ২৪টি ইরাবাতি ডলফিন এবং চারটি পাখনাহীন পরপয়েসের মৃত্যু হয়েছে। ডব্লিউসিএসের মতে, ডলফিন সাধারণত জেলেদের কারেন্ট জাল, বেহুন্দি জাল, ইলিশ ধরা জাল ও বড়শিতে আটকা পড়ে মারা গেছে। কিছু মারা গেছে নৌযানের আঘাতে। কিছু হত্যার শিকারও হয়েছে।

    বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ খুলনা অঞ্চলের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. মদিনুল আহসান জানান, গত ৬ বছরে জেলেদের জালে আটকে ১৪টি ডলফিন ও শুশুক মারা গেছে। ৩১ জুলাই বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার বোরো দুর্গাপুরে মোংলা নদী থেকে ৮ ফুট লম্বা প্রায় ১২০ কেজি ওজনের শুশুকের লাশ উদ্ধার করা হয়।

    বন বিভাগের খুলনা বিভাগীয় মৎস্য বিশেষজ্ঞ মফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, মাছ ধরার জালে আটকে শুশুকটি মারা যায়। স্তন্যপায়ী প্রাণীদের শ্বাস নিতে বাতাসের সংস্পর্শে আসার দরকার হয়। জালে আটকা পড়লে তাদের দম বন্ধ হয়ে যায়।

    ডব্লিউসিএস বাংলাদেশের অ্যাডুকেশন অ্যান্ড লাইভলিহুড প্রোগ্রামের কো-অর্ডিনেটর নাদিম পারভেজ বলেন, সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে সুন্দরবনকে ডলফিনের নিরাপদ আবাসে পরিণত করা সম্ভব। ডব্লিউসিএস স্থানীয় জেলেদের নিয়ে সিটিজেন সাইন্স ফিশারম্যান সেফটি নেটওয়ার্ক তৈরি করে তাদের জালে আটকা পড়া ডলফিন, কচ্ছপসহ অন্যান্য বিপদাপন্ন ও আইনে সুরক্ষিত প্রাণিদের ছেড়ে দেয়ার মাধ্যমে তাদের সুরক্ষা দিচ্ছে। বন্যপ্রাণী (প্রকৃতি ও সংরক্ষণ) আইন ২০১২ অনুযায়ী, বাংলাদেশে প্রাপ্ত সব প্রজাতির ডলফিনই সুরক্ষিত। এগুলো শিকার, হত্যা, কোনো অংশ খাওয়া বা বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

    তিনি আরও বলেন, ডলফিনের সংখ্যা হ্রাস পাওয়া মানে মাছের পরিমাণও কমে যাওয়া। ডলফিনের বিলুপ্তি মানুষের জীবন ও জীবিকার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। সুতরাং এদের সুরক্ষায় সর্বস্তরের জনগণকে সচেষ্ট হতে হবে।

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use