ঢাকা | শুক্রবার | ১০ জুলাই, ২০২০ | ২৬ আষাঢ়, ১৪২৭ | ১৮ জিলক্বদ, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
    • NBS » ২ শিরোনাম » আর্থিক সহায়তা আরো বাড়ানো হবে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় : প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)


    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    ভারতের পশ্চিমবাংলার চাহিদা ৮০০ টন পেঁয়াজ, কেন্দ্রের কাছে দাবি
    এনবিএস | Thursday, November 28th, 2019 | প্রকাশের সময়: 2:16 pm

    ভারতের পশ্চিমবাংলার চাহিদা ৮০০ টন পেঁয়াজ, কেন্দ্রের কাছে দাবিভারতের পশ্চিমবাংলার চাহিদা ৮০০ টন পেঁয়াজ, কেন্দ্রের কাছে দাবি

    বুধবার ভারতের পশ্চিমবাংলা রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় সংস্থা নাফেড-এর কাছে তাদের দাবি জানিয়েছে। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে ২০০ টন করে মোট ৮০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ চেয়েছে রাজ্য। পেঁয়াজের ঝাঁজ থেকে গেরস্তকে রেহাই দিতে বড় আকারে মাঠে নামতে চলেছে রাজ্য সরকার। গোটা দেশের জন্যই পেঁয়াজ আমদানি করছে কেন্দ্র। তার আগে প্রতিটি রাজ্যের কাছে তাদের চাহিদা জানতে চাওয়া হয়েছিল। সেইমতো বুধবার রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় সংস্থা নাফেড-এর কাছে তাদের দাবি জানিয়েছে। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে ২০০ টন করে মোট ৮০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ চেয়েছে রাজ্য।

    এই পেঁয়াজ পাওয়া গেলে সমস্যায় খানিকটা মিটবে বলে আশাবাদী সরকার। সেইসঙ্গে জানুয়ারির মাঝামাঝি আসতে শুরু করবে রবি চাষের পেঁয়াজ। ফলে, তার পর থেকে পেঁয়াজের জোগান অনেকটা স্বাভাবিক হবে বলে আশা।

    আলুর দাম যখন বেড়েছিল, তখন সুফল বাংলা এবং কৃষি বিপণন দপ্তরের মাধ্যমে রাজ্যবাসীকে অনেকটাই কম দামে আলু খাওয়ানোর ব্যবস্থা করেছিল রাজ্য। এ বার সুফল বাংলা তো বটেই, তার সঙ্গে রেশন দোকান এবং সমবায় সংস্থাগুলির মাধ্যমেও সস্তায় পেঁয়াজ বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন। কিন্তু পেঁয়াজের জোগান দেশে এতটাই কম যে, কেন্দ্রও বাধ্য হচ্ছে আমদানি করতে। মিশর, তুরস্ক, ইরান, আফগানিস্তানের মতো দেশগুলি থেকে ১.২ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত অনুমোদন করেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা।

    জানা গিয়েছে, প্রথম দফায় রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা এমএমটিসি ৬,০৯০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ মিশর থেকে আমদানি করছে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই তা মুম্বাইয়ে পৌঁছবে। সেখান থেকে রাজ্য তার অংশ পেলে, তা রাজ্যের নিজস্ব উদ্যোগে বিক্রি করা শুরু হবে। তবে দাবি মেনে কেন্দ্র শেষ পর্যন্ত কতটা পেঁয়াজ পাঠায়, তার উপরেই নির্ভর করছে রাজ্যের উদ্যোগ কতটা বড় আকারে নেওয়া যাবে, সেই বিষয়টি।

    আমদানি করা পেঁয়াজ পৌঁছলে তা নিয়ে ফাটকাবাজি ঠেকাতে, বিক্রির নিয়ন্ত্রণ নিজের হাতে রাখতে চাইছে রাজ্য। সে কারণে সুফল বাংলা, রেশন দোকান এবং সমবায় সংস্থার মাধ্যমে তা বিক্রির উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। জানা গিয়েছে, প্রথম দফায় মিশর থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ যখন কলকাতায় পৌঁছবে, তার দাম দাঁড়াবে ৬০-৬২ টাকা কেজি। রাজ্যের নিজস্ব উদ্যোগে যখন তা বাজার ও দোকানগুলিতে পৌঁছবে, তখন পরিবহণ, শ্রমিক খরচ মিলিয়ে দাম দাঁড়াবে ৭০-৭২ টাকা কেজি। অর্থাৎ এখনের তুলনায় কেজিতে ৩০-৪০ টাকা কম পড়বে দাম।

    গত কয়েক বছরে হুগলি, বাঁকুড়ার মতো কয়েকটি জেলায় পেঁয়াজ চাষ বেড়েছে। তবে এখনও রাজ্যের পেঁয়াজের জোগান অনেকটা নির্ভরশীল মহারাষ্ট্রের নাসিক এবং আকোলার উপরে। কোলে মার্কেট ভেন্ডার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কমল দে জানান, এখন কলকাতায় চাহিদার তুলনায় অন্তত ৪০ শতাংশ পেঁয়াজ কম আসছে। যা আসছে, তার জোগানও অনিয়মিত। চাহিদা এবং জোগানের এই ফারাকের জন্য প্রতিদিন দাম ওঠানামা করছে পাইকারি বাজারেও। সোমবার কোলে মার্কেটে পেঁয়াজের পাইকারি দাম ছিল ৮০-৯০ টাকা, মঙ্গলবার জোগান বাড়ায় তার দাম দাঁড়ায় ৬০-৭০ টাকা। ফলে, এখন কলকাতা ও শহরতলির বাজারে পেঁয়াজের খুচরো দাম ঘোরাফেরা করছে ১০০ থেকে ১৩০ টাকার মধ্যে। যদিও সুফল বাংলার মাধ্যমে এখন ভর্তুকি দিয়ে ৫৯ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছে রাজ্য।

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use