ঢাকা | রবিবার | ৫ জুলাই, ২০২০ | ২১ আষাঢ়, ১৪২৭ | ১২ জিলক্বদ, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
    • NBS » ৩ শিরোনাম » সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত পুলিশে একক পেশা হিসেবে 


    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে সবজি রপ্তানি
    এনবিএস | Sunday, December 1st, 2019 | প্রকাশের সময়: 1:47 pm

    লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে সবজি রপ্তানিলক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে সবজি রপ্তানি

    কৃষিপণ্য বহুমুখীকরণে সরকার প্রণোদনা দিলেও কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছতে নানা বিড়ম্বনায় পড়তে হয় রপ্তানিকারকদের। নানা প্রতিবন্ধকতার পরও দেশের সবজি রপ্তানিতে গত বছরের (জুলাই-অক্টোবর) তুলনায় প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রায় ২৬২ শতাংশ। সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, বিমান ভাড়া সহনীয় করা গেলে সবজি ও ফলমূল রপ্তানি বহুগুণ বাড়বে।

    রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো প্রকাশিত সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৯ কোটি ৯৬ লাখ ডলারের সবজি রপ্তানি হয়। চলতি অর্থবছরে সবজি রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৩ কোটি মার্কিন ডলার। গত ৪ মাসেই নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ৪ কোটি ৯ লাখ ডলার ছাপিয়ে রপ্তানি হয়েছে ১০ কোটি ৫২ লাখ ডলার। এটি নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১৫৭ শতাংশ বেশি।

    কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, গত এক দশকে দেশে সবজি বিপ্লব ঘটেছে। আমরা এখন বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে অধিক জোর দিচ্ছি। বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। জাতিসংঘের কৃষি ও খাদ্য সংস্থার তথ্যমতে, সবজি উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে তৃতীয়। একসময় দেশের মধ্য ও উত্তরাঞ্চল এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যশোরেই কেবল সবজির চাষ হতো। কিন্তু এখন দেশের প্রায় সব এলাকায় সারাবছরই সবজির চাষ হচ্ছে। ১ কোটি ৬২ লাখ কৃষক পরিবার এখন দেশে ৬০ ধরনের ও ২০০টি জাতের সবজি উৎপাদিন করছেন।

    মন্ত্রী বলেন, সবজির আবাদি জমির পরিমাণ বেড়েছে। এ বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশ। পাশাপাশি একই সময়ে সবজির মোট উৎপাদন বৃদ্ধির বার্ষিক হারের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার হিসাবে, ২০ বছর আগে অর্থাৎ ১৯৯৪ সালে দেশে মাথাপিছু দৈনিক সবজি খাওয়া বা ভোগের পরিমাণ ছিল ৪২ গ্রাম। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) হিসাবে, ২০১৮ সালে দেশে মাথাপিছু সবজি ভোগের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭০ গ্রাম। সবজি রপ্তানিকারকরা জানান, শিম, বেগুন, বরবটি, পটোলসহ নানা ধরনের সবজির বেশ কদর আছে ইউরোপের বাজারে। চাহিদার কারণে দুই দশক ধরে সবজি রপ্তানি হচ্ছে ইউরোপের বিভিন্ন বাজারে। তবে ২০১৫ সালে পোকামাকড় ও কীটনাশকের উপস্থিতি পাওয়ায় এসব সবজিকে নন-কমপ্লায়েন্স ঘোষণা করে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন। এর পরই বন্ধ হয়ে যায় রপ্তানি। ৪ বছর বন্ধ থাকার পর গত সেপ্টেম্বর থেকে আবারও ইউরোপের বাজারে সবজি পাঠানো শুরু করেছেন দেশের সবজি রপ্তানিকারকরা।

    সবজি রপ্তানিকারকরা জানান, পানসহ কয়েকটি শাকসবজিতে কীটনাশক পাওয়া যাওয়ায় সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সবজি রপ্তানি বন্ধ রাখে। এসব সমস্যা রপ্তানিকারকরা সচেতনভাবে সমাধান করায় আবার রপ্তানি বাজার খুলে দেয়া হয়। এরই মধ্যে এর সুফলও আসতে শুরু করেছে। তথ্য-উপাত্ত বলছে, জুলাই থেকে অক্টোবরে সবজির আয় আশাজাগানিয়া পর্যায়ে রয়েছে। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৫৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ এবং একই সঙ্গে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায়ও ২৩১ দশমিক ৮১ শতাংশ বেশি আয় হয়েছে।

    এদিকে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে সরাসরি কার্গো ফ্লাইট নেই। তবু ৪ মাসে ১ হাজার ৩০০ টনের বেশি সবজি রপ্তানি হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যে। এর বিপরীতে কৃষি বিভাগ রাজস্ব পেয়েছে ৪ লাখ ২৩ হাজার টাকা। মূলত কচুর লতি, কচু, পটোল, ঝিঙে, শসা, কাঁকরোল, বরবটি, শিম, লাউসহ বাংলাদেশের গ্রীষ্মকালীন সবজির চাহিদাই বেশি সেখানে। চলতি অর্থবছরের জুলাই মাসে শাহ আমানত দিয়ে ২৫২ টন সবজি রপ্তানির বিপরীতে ৮৩ হাজার টাকা, আগস্টে ৩৩৪ টন সবজির বিপরীতে ১ লাখ ৮ হাজার ৩১০ টাকা, সেপ্টেম্বরে ৩১৬ টন সবজির বিপরীতে ১ লাখ ৮ হাজার ১৯ টাকা ও অক্টোবরে ৪০৭ টন সবজির বিপরীতে ১ লাখ ২৪ হাজার টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। 

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use