ঢাকা | শনিবার | ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৯ ফাল্গুন, ১৪২৬ | ২৭ জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
  • Review News


  • ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    দেশে ভূমিধস, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছে
    এনবিএস | Saturday, January 18th, 2020 | প্রকাশের সময়: 10:25 am

    দেশে ভূমিধস, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছেদেশে ভূমিধস, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছে

    এ সময়ের মধ্যে ওইসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ বছরে ৩ থেকে ১৫ বার আঘাত হানাতে পারে। এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করা হয় দেশের আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণ ও যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের গবেষণা প্রতিবেদনে।


    সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, দেশের উপকূলীয় অঞ্চলে মৌসুমি জলবায়ুর ব্যাপক প্রভাবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বেড়ে যায়। পরিসংখ্যান ব্যুরো উপকূলীয় অঞ্চলের দরিদ্র মানুষদের জীবনযাত্রা ঝুঁকিপ্রবণ হয়ে ওঠার পেছনে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিক্ষয়, লবণাক্ততা, জলাবদ্ধতা ও অতিবৃষ্টি মতো কয়েকটি কারণ চিহ্নিত করেছে।

    জানা যায়, ১৮৯১ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত ১’শ বছরে ছোটবড় প্রায় ৭’শটি ঘূর্ণিঝড় দেশের উপকূলে আঘাত হেনেছে। আর ১৭৯৩ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত উপকূলীয় অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষতি করেছে এমন ঘূর্ণিঝড়ের সংখ্যা ৪৫টি। এসব ঘটনা থেকেই ঘূর্ণিঝড়ের মাত্রা বৃদ্ধির প্রমাণ পাওয়া যায়।


    এদিকে, ইউএনডিপির ‘প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকি কমানো উন্নয়নের জন্য চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এশিয়ার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। ১৯৮০ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ২০ বছরে বিশে^ ঘূর্ণিঝড়ে মারা গেছে আড়াই লাখ মানুষ, যার ৬০ শতাংশই বাংলাদেশের। এ প্রসঙ্গে আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, গ্লোবাল উষ্ণায়নের কারণে দিন দিন বায়ুমণ্ডলের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে। 
    তাই ঋতুর স্বাভাবিকতা থাকছে না। তারই প্রভাবে দেশে সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়, শিলাবৃষ্টি, অতিরিক্ত তাপপ্রবাহ পরিলক্ষিত হচ্ছে। তার মতে, শীতকালে আগে টানা কুয়াশা পড়লেও তা পরিবর্তিত হয়ে এখন কমে গেছে। পরিবর্তন এসেছে তাপপ্রবাহে। এসব কারণেই এ বছরেও দেশে ভূমিধস, তীব্র ঘূর্ণিঝড় ও অস্বাভাবিক জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।


    অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের দ্য ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটির কৃষি, পরিবেশ এবং উন্নয়ন অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জয়েস জে চেন তার গবেষণা প্রতিবেদনে জানান, ভবিষ্যতে ভয়ঙ্কর ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের নিয়মিত শিকার হবে বাংলাদেশ। তিনি জলবায়ু পরিবর্তন এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের মধ্যের জটিল সম্পর্কের ওপর গবেষণা করছেন। বাংলাদেশ বিষয়ে তার মতামত নিয়ে বিবিসির এক প্রতিবেদনেও এমন তথ্য তুলে ধরা হয়।

    জে চেনের মতে, জলোচ্ছ্বাস বাংলাদেশে প্রতি দশকে একবার আঘাত হানছে। কিন্তু ২১০০ সালের মধ্যে তা প্রতি বছর ৩ থেকে ১৫ বার আঘাত হানার আশঙ্কা রয়েছে। বাংলাদেশে দুই ধরনের অভিবাসন দেখা যায়। কেউ ভালো সুযোগের আশায় শহরমুখী হন আবার কেউ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাড়ি ছাড়েন। নিচু এলাকা হিসেবে বাংলাদেশ সবসময়ই সমুদ্রপৃষ্ঠের পরিবর্তনজনিত কারণে ঝুঁকিতে রয়েছে। 


     

    Space For Advertisement

    (Spot # 14)

    Advertising Rate Chart

    আপনার মন্তব্য লিখুন...
    Delicious Save this on Delicious

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    প্রধান সম্পাদক : মোঃ তারিকুল হক
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    ৩৯, আব্দুল হাদি লেন, বংশাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    আসাক আলী, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    ভারত অফিস : সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use