ঢাকা | মঙ্গলবার | ২৬ মে, ২০২০ | ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ | ২ শাওয়াল, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦


  • ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃত একটি লাশ দাফনের হৃদয়স্পর্শী ছবি
    এনবিএস | Saturday, April 4th, 2020 | প্রকাশের সময়: 4:02 pm

    কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃত একটি লাশ দাফনের হৃদয়স্পর্শী ছবিকোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃত একটি লাশ দাফনের হৃদয়স্পর্শী ছবি

    অনলাইন ডেস্ক:

    ছবিতে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক মৃত ব্যক্তির লাশ দাফনের দৃশ্য দেখা যাচ্ছে । খুব সতর্কতার সঙ্গে নামানো হলো, যেন কারো শরীরে স্পর্শ না লাগে। তারপর জানাজা। কমপক্ষে এক মিটার করে দূরত্বে দাঁড়িয়ে ১৫ জনের মতো মানুষ। তারা জানাজা পড়ালেন মৃত ইসমাইল মোহাম্মদ আবুদুল ওয়াহাবের। তারপর লাশ নেয়া হলো কবরের কাছে। কেউ হাত দিয়ে কফিন ধরলেন না। কফিনের কাছে গেলেন ৫ জন।

    তার মধ্যে তিনজন সাদা পিপিই পরা। অন্যরা অন্য রঙের। দু’জন কফিনের সামনে কফিনের কাঠের নিচ দিয়ে রশি প্রবেশ করিয়ে দিলেন। অন্য দু’জন পিছন দিকে একই পদ্ধতিতে রশি লাগিয়ে দিলেন। চারজন রশির সাহায্যে কফিনটি আলগা করে তুললেন। রশির সাহায্যেই তা কবরে নামিয়ে দিলেন।

    এরপর শেষ করলেন দাফন অনুষ্ঠান। এতে লাশকে মোটেও হাতের স্পর্শ দিতে হয় নি। এ যেন রাজধানী ঢাকার খিলগাঁও তালতলা কবরস্তানে দাফন করা মোহাম্মদপুরের সেই মৃত মায়ের দাফনের মতোই।

    ইসমাইলের এই দাফন বাড়িতে বসে এ দৃশ্য অনলাইনে লাইভ দেখছিলেন ইসমাইলের মা ও অন্য ৬ ভাইবোন। তারা ইসমাইলের দাফন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পর্যন্ত না পারায় হাউমাউ করে কাঁদছেন। তাদেরও করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিয়েছে। তাই কোয়ারেন্টিনে ঘরের ভিতর। এমন হৃদয়স্পর্শী ঘটনা বৃটেনের ব্রিক্সটনের।

    বৃটেনে এ যাবত যত মানুষ মারা গিয়েছেন তার মধ্যে ইসমাইলই সবচেয়ে কম বয়সী। তার বয়স মাত্র ১৩ বছর। সে সোমবার একটি হাসপাতালে মারা গেছে। তাকে দাফন করা হয়েছে শুক্রবার বিকেলে। এ সময় সেখানে যেসব শোকার্ত মানুষ উপস্থিত ছিলেন তাদেরকে পরস্পর থেকে দুই মিটার দূরত্বে থাকতে বাধ্য করা হয়। তারা যাতে নিরাপদ থাকেন এ জন্য দেয়া হয় নিরাপত্তামুলক পোশাক, গ্লোভস এবং মাস্ক। তারা যে পদ্ধতিতে ইসমাইলকে কবরে নামিয়ে দাফন শেষ করেছেন তা শুধু অনলাইন তার মা ও ৬ ভাইবোন প্রত্যক্ষ করেছে। দক্ষিণ লন্ডনের ব্রিক্সটনে সোমবার দিনের প্রথম ভাগে কিংস কলেজ হাসপাতালে একা একাই মরে পড়ে থাকে ইসমাইল।

    এরপর তাকে চিসলেহার্স্টে এটারনাল গার্ডেনস মুসলিম বারিয়াল গ্রাউন্ডে দাফন করা হয়। এতে শোকার্ত স্বজনের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তার দুই চাচা ও কাজিনরা। তাদেরকে দেয়া হয়েছিল পিপিই পোশাক। সবাইকে জানাজার সময় কমপক্ষে দুই মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে বাধ্য করা হয়। জানাজা পড়ান কবরস্তানের একজন হুজুর। তারপর রশির সাহায্যে যখন ইসমাইলকে অন্ধকার মাটির প্রকোষ্ঠে নামিয়ে দেয়া হতে থাকে, তারা সেখানে দাঁড়িয়ে বুক ভরা ব্যথা নিয়ে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে শুধু তা প্রত্যক্ষ করেন।

    বৃটেনে ভয়াবহ করোনা ভাইরাস এভাবেই একের পর এক মানুষের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে। এসব মৃত মানুষকে স্বজনরা পর্যন্ত স্পর্শ করতে পারছেন না। প্রিয়জনের দাফন এতটা আতঙ্কিত পরিবেশে হবে এমনটা কেউ কল্পনাও করতে পারেন নিন। বলা হয়েছে, ৬০ বছরের বেশি বয়স এমন বৃটিশ নাগরিকদের মধ্যে শতকরা ৬০ ভাগেরও বেশি মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

    তবে তরুণ, শিশু বা কিশোর বয়সীদের মধ্যেও এমন বিয়োগবিধূর মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। সর্বশেষ বেশ কয়েকজন তরুণ, যুবা মারা গেছেন করোনা ভাইরাসে। এর মধ্যে রয়েছেন দু’জন নার্স। সম্প্রতি এমন বেশ কয়েকজন যুবক-যুবতী মারা গেছেন করোনা ভাইরাসে। তার মধ্যে রয়েছে ১৯ বছর বয়সী শেফ লুকা ডি নিকোলা, ৩৩ বছল বয়সী ফার্মাসিস্ট পুজা শর্মা, ২৮ বছর বয়সী পেইন্টার ও ডেকোরেটর এডাম হারকিনস সুলিভান প্রমুখ।

    ইসমাইলের পিতা পাঁচ বচর আগে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মারা গেছেন। ইসমাইলের মা সাদিয়া তার ৭ সন্তানকে নিয়ে বসবাস করছিলেন। কিন্তু শেষ বারের জন্য নিজ হাতে সন্তানের লাশটাও স্পর্শ করতে পারলেন না। একদিকে সন্তান হারানোর বেদনা, তার সঙ্গে সেই সন্তানের লাশ স্পর্শ করতে না পারা- এই দুই কষ্টে তিনি পাথর হয়ে গেছেন। তাকে বাধ্য করা হয়েছে অনলাইনে দাফন অনুষ্ঠান দেখতে।

    সে দৃশ্য বার বার দেখছিলেন আর চেতনা হারিয়ে ফেলছিলেন সাদিয়া। কি করে সহ্য করবেন এত বড় আঘাত! কোন মা পারেন তার সন্তানের মৃত্যু মেনে নিতে! কোন মা পারেন তার সন্তানকে শেষ বিদায়ের আগে স্পর্শ ছাড়া ছেড়ে দিতে! কোন মা পারেন এমন কঠিনকে মেনে নিতে!!

    ইসলামী রীতিতে মৃতদেহকে প্রথমে মসজিদে নেয়া হয় জানাজার জন্য। কিন্তু বর্তমানে সব মসজিদ বন্ধ। তাই ইসমাইলকে কোনো মসজিদে নেয়া হলো না। তাকে মর্গ থেকে সরাসরি নিয়ে যাওয়া হলো ওই কবরস্তানে। সেখানেই ১৫ জনের মতো মানুষ তার জানাজা পড়ালেন। তারপর লাশ নামিয়ে দিলেন কবরে। কি করে এই কষ্ট সইবেন মা সাদিয়া!!!

    ইসমাইলের আগে থেকে কোনো স্বাস্থ্যগত সমস্যা ছিল না। শোকগ্রস্ত পরিবার তাকে অতিশয় ভদ্র ও দয়ালু মনের বালক বলে আখ্যায়িত করেছে। ইসমাইলের ছিল হৃদয়কাড়া হাসি। গত শুক্রবার তার শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ ধরা পড়ে। এর মাত্র তিন দিন পরেই ফুসফুস ও হার্ট কাজ না করায় সে মারা যায়। বৃটেনে জানামতে, সেই প্রথম শিশু, এই ভাইরাসের কাছে প্রাণ হারালো। ইসমাইলের পারিবারিক বন্ধু মার্ক স্টিফেনসন বলেছেন, ইসমাইলের ছোটভাই ও বড় বোনের মধ্যে করোনা ভাইরাসের হাল্কা লক্ষণ দেখা দিয়েছে। তাদের শরীরের তাপমাত্রা বেড়েছে। মুখের স্বাদ নষ্ট হয়ে গেছে। মার্ক স্টিফেনসন এই শোকার্ত পরিবারটির জন্য সাহায্যের একটি তহবিল গঠন করেছেন। এর নাম দিয়েছেন- গো ফান্ড মি। ডেইলি মেইল, সিএন নিউজ

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use