ঢাকা | বুধবার | ৮ জুলাই, ২০২০ | ২৪ আষাঢ়, ১৪২৭ | ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
    • NBS » ৪ শিরোনাম » ৬ জনের মধ্যে ১ জন ব্রিটিশ করোনার টিকা নিতে চায় না : সমীক্ষা


    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    গল্প: ডেঞ্জেরাস মামাতো বোন (পর্ব ৯) – Romantic Bangla story – বাংলা প্রেমের গল্প
    এনবিএস | Thursday, June 25th, 2020 | প্রকাশের সময়: 8:06 pm

    গল্প: ডেঞ্জেরাস মামাতো বোন (পর্ব ৯) – Romantic Bangla story – বাংলা প্রেমের গল্পগল্প: ডেঞ্জেরাস মামাতো বোন (পর্ব ৯) – Romantic Bangla story – বাংলা প্রেমের গল্প

     

    আগের পর্ব গুলো পরতে ক্লিক করুন –    

    পর্ব ১ এবং ২   –   পর্ব ৩ এবং ৪    –     পর্ব ৫    –     পর্ব ৬    –    পর্ব ৭  –    পর্ব ৮

     


    পর্ব ৯ 

     

    লেখক: এসএ শাহিন আলম

     

    হটাৎ বিছানার উপর থাকা আমার ফোনটা বেঁজে উঠলো। আমি দূর থেকে আবছা ভাবে দেখলাম, মেঝ মামার মেয়ে রিপা ফোন দিয়েছে।
    আমি ফোন রিসিভ করতে যাবো তার আগেই রিমি ফোন রিসিভ করে কানে ধরলো,
    .
    — হ্যালো, শাহিন ভাইয়া.? (রিপা)
    .
    — না… (রিমি)
    .
    — তাহলে কে.? রিমি আপু.? (রিপা)
    .
    — হুমম। (রিমি)
    .
    — ওহ্। কেমন আছো, আপু.? (রিপা)
    .
    — ভালো। কি জন্য ফোন দিয়েছিস.? (রিমি)
    .
    — এমনি। শাহিন ভাইয়া কোথায়.? (রিপা)
    .
    — কেন, কি দরকার.? (রিমি)
    .
    — এমনি কথা বলতাম। (রিপা)
    .
    — তোর শাহিন ভাই ব্যস্ত আছে। (রিমি)
    .
    — তবুও দাও, আমি কথা বলবো। (রিপা)
    .
    — কি কথা বলবি, হ্যা.? এত রাতে তোদের কিসের কথা রে.? (রেগে)
    .
    — এমনি টুকটাক কথা। শাহিন ভাইয়ের খোজ-খবর নিতাম। জিজ্ঞেস করতাম, ভালো আছে কি-না। (রিপা)
    .
    — তোর শাহিন ভাই অনেক ভালো আছে, সুস্থও আছে। এখন ফোন রাখ। (রিমি)
    .
    — তুমি এভাবে কথা বলছো কেন.? ফোনটা তো তোমার না। যার ফোন তার সাথে কথা বলবো। তোমার এত মাথাব্যাথা কিসের.? (রিপা)
    .
    — বাহ্.! ভালই তো মুখে কথা ফুটেছে। (রিমি)
    .
    — হুমম। শাহিন ভাইকে ফোন দাও, কথা বলবো। (রিপা)
    .
    — দিবো না ফোন, কি করবি তুই.? (রিমি)
    .
    — দিতে বলছি দাও, আমাকে রাগিও না বলে দিলাম। (গম্ভীর গলায়)
    .
    — তোর রাগকে আমি ভয় পাই নাকি.? ফোন রাখ… (রিমি)
    .
    কথাটা বলেই রিমি ফোন রেখে দিলো। তারপর ভয়ংকর রাগী লুক নিয়ে আমার দিকে তাকালো। আমি বেশ ঘাবড়ে গেলাম। আমতা আমতা
    করে বললাম,
    .
    — এভাবে তাকিয়ে আছিস কেন.? (আমি)
    .
    রিমি কোন কথা না বলে তেড়ে আমার কাছে আসলো। আমার লম্বা চুল টেনে ধরে গম্ভীর গলায় বলল,
    .
    — রিপা, এত রাতে তোকে ফোন দিয়েছিল কেন.? (রিমি)
    .
    — সেটা আমি কিভাবে বলবো। (আমি)
    .
    — তাহলে কে বলবে, শুনি.? তোকে ফোন দেয় আর তুই জানিস না.? (রিমি)
    .
    — না। আসলে রিপা আজ বেশ কয়েক দিন ধরে আমার পিছে পরে আছে। যখন তখন ফোন দেয়। ফোন দিয়ে মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে। সেদিন দেখা করার জন্য কলেজেও এসেছিল। জানি না, হটাৎ রিপা আমার সাথে এত ভাব জমানোর চেষ্টা করছে কেন.? (আমি)
    .
    রিমি আমাকে ছেড়ে দিয়ে একটা দীর্ঘশ্বাস ছাড়লো। নিষ্প্রাণ গলায় বলল,
    .
    — ওহ্.! এবার বুঝেছি। তা তুই রিপার সাথে কথা বলিস কেন.? কথা না বললে তো আর রিপা তোকে ফোন দিবে না। (রিমি)
    .
    — কথা বললে কি হবে.? রিপা তো আমার বোন হয়। (আমি)
    .
    — বোন নাকি অন্য কিছু.? (কপাল কুঁচকে)
    .
    — পাগল নাকি.? বোন ছাড়া আর কি হবে.? (আমি)
    .
    — অনেক কিছুই হওয়ার সম্ভবনা আছে। তোকে আমার মোটেও সুবিধার মনে হয় না। (রিমি)
    .
    — হুররউ, বাজে কথা রাখ। (আমি)
    .
    — আমি বাজে কথা বলি.? কুত্তা, আর যদি কোন দিন রিপার সাথে কথা বলিস না তাহলে আমার চেয়ে খারাপ আর কেউ হবে না, হু। রিপা যতই ফোন দিক, তুই ফোন রিসিভও করবি না, কথাও বলবি না। (রেগে আগুন হয়ে)
    .
    — তাহলে তো তোর সাথেও কথা বলা বন্ধ করা
    দরকার। (আমি)
    .
    — কেন.? (অবাক হয়ে)
    .
    — কেন আবার, তুইও আমার মামাতো বোন আবার রিপাও আমার মামাতো বোন.! তাহলে তোর সাথে কথা বলা যাবে আর রিপার সাথে
    কথা বলা যাবে না কেন.? (আমি)
    .
    — না, যাবে না। (রিমি)
    .
    — এটা আবার কেমন কথা.? (আমি)
    .
    — ওমন-ই কথা… (রিমি)
    .
    — ধুররর, আমি রিপার সাথে কথা বলবো। (আমি)
    .
    — তাহলে আমিও লাত্থি দিবো.! (রিমি)
    .
    — আচ্ছা, রিপার সাথে কথা বললে তোর এত সমস্যা কিসের বলতো.? (আমি)
    .
    — সমস্যা আছে। অনেক সমস্যা আছে। (রিমি)
    .
    — সেটা তোর ব্যাপার। আমি রিপার সাথে কথা বলবোই.! তোর কিছু করার থাকলে করে নিস। (রেগে)
    .
    — দেখ শাহিন, আমার রাগ উঠাস না। তাহলে কিন্তু খুব খারাপ হবে। আমি উল্টাপাল্টা কিছু একটা করে ফেলবো.! আর একটা কথা বল তো, রিপার সাথে কথা বলার এত শখ কিসের.? তোদের মধ্যে অন্য কিছু চলছে না তো.? (রিমি)
    .
    — অন্য কিছু মানে.? (অবাক হয়ে)
    .
    — ওই তো, প্রেম-ভালবাসা এসব.! (রিমি)
    .
    — ছিঃ.! কি বলিস এসব.? রিপা আমার বোন.! (আমি)
    .
    — নিজের তো আর না, মামাতো বোন। (রিমি)
    .
    — তো কি হয়েছে.? বোন তো.! নিজের হোক কিংবা মামাতো। (আমি)
    .
    — ভালো, তবে ওই বোন পর্যন্তই যেন থাকে। এর বেশি কিছু যেন না হয়। (রিমি)
    .
    কথাটা বলেই রিমি মুখ বাকিয়ে চলে গেল। আমি একটা দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে শুয়ে পরলাম। হটাৎ আবার আমার ফোনটা বেঁজে উঠলো। দেখি রিপা ফোন করেছে। ইচ্ছা না থাকা সত্তেও ফোন রিসিভ করলাম।
    .
    — হ্যালো, রিপা.! (আমি)
    .
    — হুমম। কেমন আছো, ভাইয়া.? (রিপা)
    .
    — ভালো… তুমি.? (আমি)
    .
    — আমিও ভালো আছি। (রিপা)
    .
    — ওহ্। তা কি জন্য ফোন দিয়েছো.? (আমি)
    .
    — এমনি। কেন, কোন সমস্যা.? (রিপা)
    .
    — তেমন কিছু না। এখন ঘুমাবো তাই। (আমি)
    .
    — ওহ্। ঠিক আছে, আমি পরে ফোন দিব। আর ভাইয়া কাল বিকালে কি ফ্রি আছো.? (রিপা)
    .
    — উমমম, হ্যা আছি। কেন.? (আমি)
    .
    — এমনি। কাল বিকালে আমি দেখা করতে আসবো। (রিপা)
    .
    — আচ্ছা, আসিও। এখন রাখলাম। (আমি)
    .
    তারপর আমি ফোন রেখে দিয়ে ঘুমানোর চেষ্টা করলাম কিন্তু কিছুতেই চোখে ঘুম ধরা দিচ্ছে না। আমি এপাশ-ওপাশ করতে করতে যেই-সেই ভাবতে লাগলাম। তবে আমার ভাবনাতে সর্বপ্রথম রিমির নাম'টাই এলো।
    .
    রিমি মেয়েটা আমার সাথে কেন এমন করে আমি বুঝি না। আমার সব কাজে সে বাঁধা দেয়। সবার থেকে আগলে রাখে। আবার কিছু জিজ্ঞেস করলে বলে, তোর মত গাধা ওসব বুঝবে না।
    .
    রিমি আমাকে নিয়ে যতটা চিন্তা করে আমার মনে হয় না, মা-বাবাও এতটা করে না। আচ্ছা, রিমি আমার জন্য এত কিছু কেন করে.? কেন সে আমাকে নিয়ে এত ভাবে.? এসব কি শুধু আমি ওর ভাই বলেই করে নাকি অন্য কিছু.?
    .
    ধুররউ.! কি ভাবছি এসব। অন্য কিছু হতে যাবে কেন.? আমি এসব ভাবাভাবি বাদ দিয়ে ঘুমানোর চেষ্টা করলাম।
    .
    .
    .
    অন্যদিকে, রিমি শুয়ে শুয়ে ভাবছে, শাহিন কি সত্যি-ই শিলাকে ভালবাসে.? সত্যি-ই কি কাল শিলাকে প্রপোজ করবে.? রিমির খুব চিন্তা হতে লাগলো। কিছুতেই চোখে ঘুম ধরা দিচ্ছে না। রিমি শিলাকে ফোন দিলো কিন্তু ফোন বন্ধ। রিমির চিন্তা আরো বেড়ে গেল। সে সারারাত ঘুমাতে
    পারলো না।
    .
    .
    সকাল বেলা ঘুম ভাঙলো পানির ছিটায়.! চোখ খুলে দেখি, রিমি পানির বালতি হাতে দাঁড়িয়ে আছে। আমি ধমক দিয়ে বললাম,
    .
    — পানি দিলি কেন, রে.? (আমি)
    .
    — এত বেলা করে ঘুমাচ্ছিস কেন.? (রিমি)
    .
    — তাই বলে পানি দিতে হবে.? (রেগে)
    .
    — হুমম। (রিমি)
    .
    — ধুররউ.! যা তো, ঘুমাতে দে। (বিরক্ত হয়ে)
    .
    — ঘুমাবি মানে.? কলেজে যাবি
    না.? (ভ্রু-কুঁচকে)
    .
    — না… (আমি)
    .
    — কেন.? (রিমি)
    .
    — আজকে খেলা আছে… (আমি)
    .
    — লাত্থি দিবো, কুত্তা। কলেজে না গিয়ে উনি খেলতে যাবে রে.! তাড়াতাড়ি উঠে ফ্রেশ হয়ে রেডি হ। কলেজে যেতে হবে। ইম্পরটেন্ট ক্লাস আছে.! (রিমি)
    .
    — বললাম তো, যাবো না। (আমি)
    .
    — এই তোর মাইর খাওয়ার ইচ্ছা আছে নাকি.? আব্বুকে ডাক দিবো.? (খুব রেগে)
    .
    — এই না, না আমি ফ্রেশ হচ্ছি। (লাফ দিয়ে উঠে)
    .
    — ওকে, তাড়াতাড়ি ফ্রেশ হয়ে খেতে আয়। আমি টেবিলে খাবার দিচ্ছি। (সামান্য হেসে)
    .
    রিমি চলে গেল আর আমি ফ্রেশ হতে গেলাম। ফ্রেশ হয়ে কলেজ যাওয়ার জন্য রেডি হলাম। তারপর সকালের খাওয়া শেষ করে আমি আর রিমি কলেজের উদ্দেশ্যে রওনা দিলাম।
    .
    কলেজে পৌছে আমি রিমির চোখ ফাকি দিয়ে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে গেলাম। এদিকে, রিমি গেল শিলার সাথে দেখা করতে। কিছুক্ষণ খোজা-খুজির পর শিলার দেখা পেল রিমি। রিমি দূর থেকে শিলাকে ডাক দিল,
    .
    — শিলা, একটু এদিকে আসো তো। (রিমি)
    .
    রিমির ডাক শুনে শিলা তার কাছে এগিয়ে আসলো। ভ্রু-কুঁচকে বলল,
    .
    — কি হয়েছে.? (শিলা)
    .
    — তোমার সাথে কিছু কথা ছিল। (রিমি)
    .
    — বলো। (শিলা)
    .
    রিমি একটু দম নিয়ে বলল,
    .
    — শুনলাম, শাহিনের সাথে তুমি প্রেম করছো.! কথাটা কি সত্যি.? (রিমি)
    .
    — হুমম সত্যি.! আমরা অনেকদিন থেকে প্রেম করছি.! (শিলা)
    .
    শিলার কথা শুনে রিমি হাজার ভোল্টের শক্ খেল। রিমি ঠিক কি বলবে ভেবে পাচ্ছে না। রাগে তার শরীর থরথর করে কাপতে লাগলো.!রিমি, শিলাকে মারার জন্য ব্যাগ থেকে একটা চাকু বের করলো.!

     

    চলবে….. ???????

     

    পরের পর্ব গুলো পরতে nbs24.org সাথেই থাকুন 

     

    পর্ব ১০ পরতে এখানে ক্লিক করুন –  পর্ব ১০

     

     

     

     

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use