ঢাকা | বৃহস্পতিবার | ১৬ জুলাই, ২০২০ | ১ শ্রাবণ, ১৪২৭ | ২৪ জিলক্বদ, ১৪৪১ | English Version | Our App BN | বাংলা কনভার্টার

  • Main Page প্রচ্ছদ
  • করোনাভাইরাস
  • বিদেশ
  • বাংলাদেশ
  • স্বদেশ
  • ভারত
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • খেলা
  • বিনোদন
  • ভিডিও ♦
  • ♦ আরও ♦
  • ♦ গুরুত্বপূর্ণ লিংক ♦
    • NBS » ৪ শিরোনাম » কেউ ইতালিতে যাননি করেনার ভুয়া সনদ নিয়ে : পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি


    ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

    শিশু প্রহার, কী বলে ইসলাম
    এনবিএস | Sunday, June 28th, 2020 | প্রকাশের সময়: 2:32 pm

    শিশু প্রহার, কী বলে ইসলামশিশু প্রহার, কী বলে ইসলাম

    অনলাইন ডেস্ক- 

    স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা অর্থাৎ প্রায় সব শিক্ষাব্যবস্থায় বেত্রাঘাত কমে গেছে। শিশুদের আনন্দদায়ক পরিবেশে শিক্ষা দেওয়ার জন্য আবিষ্কার করা হচ্ছে নানা কলাকৌশল। মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থায় কোথাও কোথাও বেতের ব্যবহার একেবারেই নেই। কোথাও বেত আছে প্রহার নেই। গড়ে বেত আছে প্রহার নেই নীতি অবলম্বন বেশি হচ্ছে। মৃদুপ্রহার পদ্ধতিও চালু আছে। কঠোর আঘাত বা নির্যাতনের মতো ঘটনা বিচ্ছিন্ন বললেও অস্তিত্ব আছে। ইসলামের দৃষ্টিতে শিশু প্রহার বা শিশু নির্যাতন চরমভাবে ঘৃণিত। শিশু প্রহার বা শিশু নির্যাতন শিক্ষকের জন্য যেমন অপরাধ তেমনি বাবা-মার জন্যও।

    শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেমন শিশুদের আঘাত করা যাবে না, তেমনি বাসা-বাড়িতেও বাবা-মা শিশু সন্তানের গায়ে হাত তুলতে পারবে না। কারণ শরীয়তের দৃষ্টিতে শিশুরা গায়রে মুকাল্লাদ । গায়রে মুকাল্লাদ মানে হলো ইসলামের সব রকম আইন-কানুন বা জবাবদিহিতা থেকে মুক্ত। তাছাড়া শিশুরা শরীরিক ও মানসিকভাবে খুবই দুর্বল। কোনােভাবেই তাদের সঙ্গে কঠোর আচরণ কিংবা শারীরিক-মানসিক নির্যাতন নয়, শিশুদের সঙ্গে কোমল আচরণই কাম্য।

    পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মহানবী সা.। মহান এই শিক্ষকের ভাষ্য হলো- হজরত আয়েশা সিদ্দিকা রা. থেকে বর্ণিত, রাসুল সা. বলেন, আল্লাহ তায়ালা আমাকে হঠকারী ও কঠোরতাকারীরূপে প্রেরণ করেননি; বরং সহজ-কোমল আচরণকারী শিক্ষকরূপে প্রেরণ করেছেন। (মুসলিম শরিফ) ইমাম গাজালি রহ. এ হাদিসের ব্যাখায় বলেন, শিক্ষার্থীর ভুল-ত্রুটিগুলো যথাসম্ভব কোমলতা ও উদারতার সঙ্গে সংশোধন করতে হবে এবং দয়া ও করুণার পথ অবলম্বন করতে হবে। ধমক ও ভর্ৎসনা নয় ।

    হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আববাস রা. থেকে বর্ণিত, রাসুল সা. বলেন, তোমরা শিক্ষাদান কর, সহজ ও কোমল আচরণ কর: কঠোর আচরণ করো না। যখন তুমি রাগান্বিত হবে তখন চুপ থাক। এ কথা তিনবার বললেন। আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা. থেকে বর্ণিত, নবীজিকে জিজ্ঞেস করলেন, কোন জিনিস আমাকে আল্লাহর গজব থেকে রক্ষা করবে? তিনি বললেন, তুমি রাগ করো না। (মুসনাদে আহমদ)

    এ বিষয়ে হাকিমুল উম্মত হযরত মাওলানা আশরাফ আলী থানভি রাহ. বলেন, কখনও রাগান্বিত অবস্থায় শিশুকে প্রহার করবে না। বাবা-মা বা উস্তাদ সবার জন্যই এ কথা। এ সময় চুপ থাকবে। যখন রাগ দূর হয়ে যাবে তখন ভেবেচিন্তে শাস্তি দেবে। এতে শাস্তির মাত্রা ঠিক থাকবে। সীমালঙ্ঘন হবে না ।

    মায়ারেফুল কুরআনের লেখক মুফতি মুহাম্মাদ শফি রাহ, বলেছেন, শিশুদের প্রহার করা খুবই ভয়াবহ। অন্যান্য গুনাহ তওবার মাধ্যমে মাফ হতে পারে। কিন্তু শিশুদের ওপর জুলুম করা হলে এর ক্ষমা পাওয়া খুবই জটিল। কেননা এটা হচ্ছে বান্দার হক। আর বান্দার হক শুধু তওবার দ্বারা মাফ হয় না। যে পর্যন্ত না যার হক নষ্ট করা হয়েছে সে মাফ করে। এদিকে যে শিশুর ওপর জুলুম করা হয়েছে সে হচ্ছে অপ্রাপ্ত বয়স্ক। অপ্রাপ্ত বয়স্কের ক্ষমা শরীয়তের দৃষ্টিতে গ্রহণযোগ্য নয়। এজন্য এ অপরাধের মাফ পাওয়া খুবই জটিল। আর তাই শিশুদের প্রহার করা এবং তাদের সঙ্গে মন্দ ব্যবহার করার বিষয়ে সাবধান হওয়া উচিত।

    Follow and like us:
    0
    20

    আপনার মন্তব্য লিখুন...

    nbs24new3 © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    নিউজ ব্রডকাস্টিং সার্ভিস - এনবিএস
    ২০১৫ - ২০২০

    সিইও : আব্দুল্লাহ আল মাসুম
    সম্পাদক ও প্রকাশক : সুলতানা রাবিয়া
    চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান : মোঃ রাকিবুর রহমান
    -------------------------------------------
    শাল, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন : +৮৮ ০২ , +৮৮ ০১৭১৮ ৫৮০ ৬৮৯
    Email : news@nbs24.org, thenews.nbs@gmail.com

    ইউএসএ অফিস: ৪১-১১, ২৮তম এভিনিউ, স্যুট # ১৫ (৪র্থ তলা), এস্টোরিয়া, নিউইর্য়ক-১১১০৩, 
    ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা। ফোন : ৯১৭-৩৯৬-৫৭০৫।

    প্রসেনজিৎ দাস, প্রধান সম্পাদক, ভারত।
    যোগাযোগ: সেন্ট্রাল রোড, টাউন প্রতাপগড়, আগরতলা, ত্রিপুরা, ভারত। ফোন +৯১৯৪০২১০৯১৪০।

    Home l About NBS l Contact the NBS l DMCA l Terms of use l Advertising Rate l Sitemap l Live TV l All Radio

    দেশি-বিদেশি দৈনিক পত্রিকা, সংবাদ সংস্থা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে সংগৃহিত এবং অনুবাদকৃত সংবাদসমূহ পাঠকদের জন্য সাব-এডিটরগণ সম্পাদনা করে
    সূত্রে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়ে প্রকাশ করে থাকেন। এ জাতীয় সংবাদগুলোর জন্য এনবিএস কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব গ্রহণ করবেন না।
    আমাদের নিজস্ব লেখা বা ছবি 'সূত্র এনবিএস' উল্লেখ করে প্রকাশ করতে পারবেন। - Privacy Policy l Terms of Use