ঢাকা, শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন
সংঘের ‘অখন্ড ভারত’! মেঘালয়ের বিজেপি নেতা দিচ্ছেন রাজ্যে-রাজ্যে সংঘর্ষে উৎসাহ
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

সংঘের আদর্শকে সামনে রেখেই দল চালিয়ে এসেছে বিজেপি৷ অনেকে তো বিজেপিকে সংঘের রাজনৈতিক সংগঠন বলেও দাবি করে৷ তবে এই সংঘের আদর্শ আগামী দিনে আদৌও কি বিজেপি নেতৃত্বরা মেনে চলব? প্রশ্ন উঠছে! হিন্দুত্ববাদী ও অখন্ডভারতের স্বপ্ন ফেরি করে এসেছে সংঘ৷

সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নের কথা শোনা গিয়েছে বিজেপির মুখেও৷ কিন্তু সম্প্রতি উত্তর-পূর্বে কয়েকটি রাজ্যে এমন অবস্থা যা অখন্ড ভারতের ভাবনা তো দূর 'ষোড়শ মহাজনপদের' মতো লড়াই শুরু করেছে। আর সেই বিতর্ককেই নতুন করে উস্কে দিলেন মেঘালয়ের পশুমন্ত্রী সানবর শুল্লাই৷
কী নিয়ে বিবাদ?
অসমের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে বিবাদ লেগেই থাকে মিজোরাম, মেঘালয়ের মতো প্রতিবেশ রাজ্যগুলি। সম্প্রতি মিজোরাম পুলিশের সঙ্গে অসম পুলিশের রীতিমতো গুলির লড়াই হয়। দু'পক্ষই দাবি করেছে তার রাজ্যের মানুষদের বাঁচাতেই এই পদক্ষেপ নিতে হয়েছে৷
কী বলছেন মন্ত্রী শুল্লাই?
সংবাদ মাধ্যমকে শুল্লাই বলেন, 'যদি শত্রুরা আপনার বাড়িতে আসে, আপনাকে এবং আপনার স্ত্রী ও সন্তানদের আক্রমণ করে, তাহলে আপনাকেও আত্মরক্ষায় আক্রমণ করতে হবে। আমাদের রাজ্যের সীমান্তেও একই কাজ করা উচিত। যদি আপনার শত্রু আপনার বাড়িতে চুরি বা ডাকাতি করতে আসে তবে আপনাকে নিজেকে রক্ষা করতে হবে, তা আইনি উপায়ে হোক কিংবা অবৈধ ভাবে।'

মিজোরামের পুলিশের প্রশংসা শুল্লাইয়ের গলায়!
এরপর মিজোরাম পুলিশের প্রশংসা কের শুল্লাই বলেন, মিজোরামের পুলিশ সব সময় আগে থাকে৷ মেঘালয়ের পুলিশের মতো ব্যাকফুটে থাকে না৷ মেঘালয় পুলিশের উচিৎ রাজ্যবাসীর পিছনে না থেকে সমানে থাকা। এবং অসম পুলিশের সঙ্গে কথা বলা৷ এই ব্যাপারে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের উচিৎ পুলিশের সঙ্গে কথা বলা৷

বিজেপিও মেঘালয়ে সীমান্ত সমস্যা মেটাতে পারেনি, স্বীকার করেন শুল্লাই,
সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শুল্লাই বলেন, অনেক রাজনৈতিক দল তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে তারা ক্ষমতায় এলে এই সমস্যার (প্রতিবেশি রাজ্যের সঙ্গে সমস্যার) সমাধান করবে। কিন্তু ৫০ বছরের বেশি সময় হয়ে গেলেও কোন দলই তা সমাধান করতে পারেনি। সুতরাং, আমাদের এখানে সমস্যার একটি ময়নাতদন্ত করতে হবে।'
 
গোমাংস নিয়েও বলেন শুল্লাই!
তবে এখানেই শেষ নয়, অসম বিজেপি যেখানে গোহত্যার উপর বিভিন্ন ব্যান আরোপ করেছে৷ পাশাপাশি অনেক বিজেপি শাসিত রাজ্যই গোহত্যা ও মাংস খাওয়া বন্ধের রাস্তায় হাঁটছে সেখানে শুল্লাই সবাইকে মাছ, মুরগি মাসর থেকে গো মাংস খাওয়ার ব্যাপারে উৎসাহ দিয়েছেন৷ এবং দাবি করেছেন বিজেপি কখনও গো মাং ব্যান করবে না।
খবর ওয়ান ইন্ডিয়ার
এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *