ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন
আজকের তারিখটা লিখে রাখুন, ত্রিপুরায় তৃণমূলের সরকার হবে: অভিষেকের সাংবাদিক বৈঠক
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার একমাত্র পাঁচটারা হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলন করছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সাংবাদিক সম্মেলনের লাইভ হাইলাইটস—

ত্রিপুরায় আসার পর ‘অতিথি দেব ভব’-র নামে যে কাণ্ড ঘটানো হয়েছে তা আপনারা দেখেছেন।
যে বিজেপি নিজেদের হিন্দু ধর্মের ধারক ও বাহক বলে তারাই আজ আমাকে মায়ের মন্দিরে যেতে বাধা দিয়েছে। কিন্তু মায়ের দর্শন তো আটকানো যাবে না।
সিপিএম পারেনি। বিজেপি তো নিপাট শিশু।
আর আমরা সিপিএম নই যে ধমকালে চমকালে ভয় পেয়ে যাব। আমাদের যত তাতাবে তত আমাদের সংগঠনের শ্রীবৃদ্ধি হবে।
যে ভাবে মানুষ আশীর্বাদ করেছেন আজ, তা অভূতপূর্ব।
যারা গণতন্ত্রের বড় বড় কথা বলে তাদের রাজত্বে গণতন্ত্রের কী হাল দেখা যাচ্ছে। আমি সাংসদ। আমার উপর এই হামলা যদি হয় তাহলে সাধারণ মানুষের কী অবস্থা বোঝা যাচ্ছে।
আজকে তো সবে শুরু। লড়াই অনেক দিন চলবে। আজকের তারিখটা লিখে রাখুন। দেড় বছর পর ত্রিপুরায় তৃণমূলের সরকার হবে। পারলে বিপ্লববাবুরা আটকে নেবেন।
বাংলার উন্নয়ন মডেল হবে ত্রিপুরায়। বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুয়ারে সরকার নিয়ে গিয়েছেন। আর ত্রিপুরায় বিজেপি সরকার দুয়ারে গুণ্ডাবাহিনী।
সিপিএমের ২৫ বছর আর বিজেপির সাড়ে তিন বছর—২৮ বছর ত্রিপুরা পিছিয়ে গিয়েছে।
আমি বিপ্লববাবুকে দোষ দিই না। ওঁকে বলির পাঁঠা করা হয়েছে। উনি দিল্লির তল্পিবাহক। দিল্লি থেকে যে বোতাম টিপবে সেই চ্যানেলই চলবে।
বাংলা আর ত্রিপুরার মানুষ ধমকানি চমকানিতে ভয় পান না।
যারা সিপিএমকে সরিয়ে অনেক আশা নিয়ে বিজেপিকে এনেছিল, তাঁরা বুঝতে পারছেন, বিজেপিকে ভোট দেওয়া আর খাল কেটে কুমির আনা এক।
আমি এখানে সরকার ভাঙতে আসিনি। দিল্লির নেতারা বাংলায় পা রেখেছিল দল ভাঙাতে। আমরা পা রেখেছি ত্রিপুরার হৃত গৌরব ফিরিয়ে দিতে।
যদি তৃণমূলের কোনও অস্তিত্ব না থাকে তাহলে আমার উপরে হামলার কারণ কী? ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বিবেক বোধ থাকলে ইস্তফা দেওয়া উচিত।
১৫ দিনের মধ্যে ফের আসব। রাজ্য কমিটির পদাধিকারীদের নাম ঘোষণা করব। এই বছর ডিসেম্বরের মধ্যে ত্রিপুরার ৩৩২৪টি বুথে সংগঠন গড়ব।
বিপ্লববাবুকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলছি, পারলে আটকে নেবেন।
খবর দ্য ওয়ালের 
এনবিএস ২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *