ঢাকা, বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৩২ অপরাহ্ন
শেয়ার বাজার চাঙ্গা, রেকর্ড করল সেনসেক্স, নিফটি
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

শেয়ার বাজার চাঙ্গা, রেকর্ড করল সেনসেক্স, নিফটি 
 বুধবার ৫৪,৪৬৫.৯১-এর ঘরে পৌঁছে রেকর্ড করল সেনসেক্স। দিনের শেষে দেখা যায়, ওই শেয়ার সূচক উঠেছে ৫৪৬ পয়েন্ট। শেষ পর্যন্ত তা ৫৪,৩৬৯.৭৭ পয়েন্টে স্থির হয়। একইসঙ্গে রেকর্ড করেছে নিফটিও। এদিন ১২৮.০৫ পয়েন্ট উঠে ওই সূচক ১৬,২৪৬.৮৫-এর ঘরে স্থির হয়। তার আগে এদিন একসময় নিফটি ১৬,২৯০.২০-এর ঘরে পৌঁছেছিল।

সেনসেক্সে নথিভুক্ত শেয়ারগুলির মধ্যে সবচেয়ে দাম বেড়েছে এইচডিএফসি-র শেয়ারের। এদিন তার দাম পাঁচ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া কোটাক ব্যাঙ্ক, আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক, এসবিআই এবং অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের শেয়ারেরও দাম বেড়েছে। অন্যদিকে যে শেয়ারগুলির দাম কমেছে, তাদের মধ্যে আছে টাইটান, নেসলে ইন্ডিয়া, আলট্রাটেক সিমেন্ট এবং সান ফার্মা।

মূলত আর্থিক সংস্থাগুলির ওপরে নির্ভর করেই উঠেছে শেয়ার সূচক। জুনে শেষ হওয়া ত্রৈমাসিকে এসবিআই প্রত্যাশার চেয়ে বেশি লাভ করে। ফলে অন্যান্য আর্থিক সংস্থাগুলির শেয়ারের দামও বাড়তে থাকে। চলতি আর্থিক বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে স্টেট ব্যাঙ্কের লাভ ৫৫ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। লাভের পরিমাণ হয় ৬৫০৪ কোটি টাকা। ব্যাঙ্কের অনাদায়ী ঋণের পরিমাণও কমে যায়।

সাংহাই, হংকং এবং সিওলের শেয়ার বাজারও এদিন তেজি ছিল। কিন্তু টোকিও-র শেয়ার সূচক এদিন নেমেছে।

কোভিড অতিমহামারীর মধ্যেই এবার ভারতের অর্থনীতির পুনরুজ্জীবনের ইঙ্গিত মিলেছে। জুলাইয়ের প্রথম ১৫ দিনে ভারতে বিদ্যুতের ব্যবহার বেড়েছে ১৭ শতাংশ। ওই সময় মোট ৫ হাজার ৯৩৬ কোটি ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হয়েছে। কয়েকটি রাজ্যে লকডাউন শিথিল করার ফলে বেড়েছে আর্থিক কার্যকলাপ। তাছাড়া এবার বর্ষা এসেছে দেরিতে। এই দু’টি কারণে বিদ্যুতের ব্যবহার বেড়েছে। গতবছর ১ থেকে ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে বিদ্যুৎ ব্যবহার হয়েছিল ৫ হাজার ৭৯ কোটি ইউনিট। ২০১৯ সালে জুলাইয়ের প্রথম ১৫ দিনে ৫ হাজার ২৮৯ কোটি ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হয়।

২০২০ সালের জুলাই মাসে মোট ১১ হাজার ২১৪ কোটি ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হয়। ২০১৯ সালের জুলাই মাসে, অর্থাৎ অতিমহামারীর আগে ১১ হাজার ৬৪৮ কোটি ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হয়েছিল। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, বিদ্যুতের পাশাপাশি অন্যান্য পণ্যের চাহিদাও বাড়ছে বাজারে। অর্থনীতি যে কোভিড-পূর্ব স্তরে পৌঁছচ্ছে, তার নির্ভুল লক্ষণ দেখা গিয়েছে। আগামী দিনে বাজারে চাহিদা আরও বাড়বে। গত এপ্রিলে লকডাউনের ফলে চাহিদা হ্রাস পেয়েছিল।

পর্যবেক্ষকদের মতে, আগামী দিনে কোভিডের সংক্রমণ যত কমবে, তত শিথিল হবে কড়াকড়ি। তার ফলে বিদ্যুতের চাহিদা আরও বাড়বে। খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/ একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: