ঢাকা, শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
অ্যামাজনের জয় সুপ্রিম কোর্টে, ফিউচার গ্রুপের সম্পত্তি কিনতে পারবে না রিলায়েন্স
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

অ্যামাজনের জয় সুপ্রিম কোর্টে, ফিউচার গ্রুপের সম্পত্তি কিনতে পারবে না রিলায়েন্স

আড়াই লক্ষ কোটি টাকার বেশি দামে ফিউচার গ্রুপের খুচরো বিক্রির দোকানগুলি কিনে নেওয়ার জন্য চুক্তি করেছিল রিলায়েন্স। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট রায় দিল, ওই চুক্তি কার্যকর করা যাবে না। এর আগে সিঙ্গাপুরের আরবিট্রেশান কোর্টও ওই চুক্তির বিপক্ষে রায় দেয়। এদিন সুপ্রিম কোর্টও সেই রায় বহাল রেখেছে।

ফিউচার গ্রুপের অংশীদার অ্যামাজন দাবি করে, ফিউচার গ্রুপ যদি খুচরো দোকানগুলি রিলায়েন্সকে বেচে দেয়, তাহলে অংশীদারিত্বের শর্ত ক্ষুণ্ণ করা হবে। অন্যদিকে ফিউচার গ্রুপ দাবি করে, তারা বেআইনি কিছু করেনি। ২০২০ সালের অক্টোবরে সিঙ্গাপুরের এমার্জেন্সি আরবিট্রেটর কোর্ট আদেশ দেয়, ফিউচার রিটেল আর রিলায়েন্স রিটেল একসঙ্গে যুক্ত করা যাবে না। সুপ্রিম কোর্ট এদিন জানাল, সিঙ্গাপুরের ওই আদালতের রায় আইনসম্মত। সিঙ্গাপুরের কোর্ট অবশ্য এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানায়নি।

অ্যামাজনের মালিক হলেন বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের অন্যতম জেফ বেজোস। রিলায়েন্সের মালিক হলেন এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি মুকেশ আম্বানি। দু’জনের আইনি লড়াইয়ে আপাতত এগিয়ে রইলেন জেফ বেজোস। ভারতের বিপুল খুচরো বাজারের জন্য মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্সের সঙ্গে লড়াই চলছে দুই আমেরিকান সংস্থা অ্যামাজন ও ফ্লিপকার্টের। অ্যামাজন জানিয়েছে, তারা ভারতে বিনিয়োগ করবে ৬৫০ কোটি ডলার। অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় ৪৮ হাজার কোটি টাকার বেশি।

২০১৯ সালে ফিউচার গ্রুপের শেয়ার কেনে অ্যামাজন। তারা ফিউচার কুপনস লিমিটেডের ৪৯ শতাংশ অংশীদার হয়। ফিউচার রিটেলসের ৯.৮২ শতাংশ শেয়ারের মালিক ফিউচার কুপনস। ফিউচার হল ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম খুচরো ব্যবসায়ী। দেশ জুড়ে তার দোকানের সংখ্যা ১৭০০-র বেশি।

ভারতের অ্যান্টি ট্রাস্ট রেগুলেটর অভিযোগ করে, ২০১৯ সালে ফিউচার গ্রুপে বিনিয়োগ করার সময় ভুল তথ্য দিয়েছিল অ্যা মাজন। অতীতে রিলায়েন্সের সঙ্গে অ্যামাজনের মামলার সময় ভারতীয় জাতীয়তাবাদের প্রসঙ্গ ওঠে। ফিউচার গ্রুপের এক আইনজীবী আদালতে বলেন, “আমেরিকায় অ্যামাজন হল বিগ ব্রাদার। তারা ভারতে একটি ছোট কোম্পানিকে ধ্বংস করতে চায়।” অন্যদিকে একটি রিটেলার লবি গ্রুপ আবেদন জানিয়েছে, বিদেশি সংস্থা অ্যামাজনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশি সংস্থা ফিউচারকে সমর্থন করুন।

রিলায়েন্স ইতিমধ্যেই ভারতে সবচেয়ে বড় খুচরো বিক্রেতা সংস্থা। এদেশের বেশিরভাগ মানুষ এখনও দোকান থেকেই কেনাকাটা করতে ভালবাসেন। রিলায়েন্স যদি ফিউচার গ্রুপের কিছু সম্পত্তি কিনে নিতে পারে, তাহলে অ্যামাজনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অনেকদূর এগিয়ে থাকবে তারা। অ্যামাজন তা চায় না। ইদানীং ভারত ও চিনের কয়েকটি সংস্থা তাদের দেশের বাজারে অ্যামাজনকে কোণঠাসা করার জন্য জাতীয়তাবাদের কথা তুলেছে। অ্যামাজন কিন্তু এই দেশগুলির কোটি কোটি ক্রেতাকে অত সহজে হাতছাড়া করতে রাজি নয়। খবর দ্য ওয়ালের

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *