ঢাকা, শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন
সানিয়াকে সরিয়ে তেলঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর সিন্ধু! বিজেপি বিধায়কের দাবি
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

সানিয়াকে সরিয়ে তেলঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর সিন্ধু! বিজেপি বিধায়কের দাবি

রাজনীতি রাজনীতির জায়গায়, খেলা খেলার দুনিয়ায়। টোকিও অলিম্পিকে ভারতীয় ক্রীড়াবিদরা পদক জিতেছেন দেশের সন্তান হিসাবে, কোনও রাজনৈতিক দল বা মতাদর্শের প্রতিনিধি হয়ে নয়। কোনও ধর্মীয় পরিচিতিও সেখানে ইস্যু নয়। কিন্তু তারপরও রাজনীতির দুনিয়ার কেউ কেউ সেটা ভুলে গিয়ে অহেতুক দেশের পদকজয়ী খেলোয়াড়দের বিতর্কে টেনে আনছেন। এই যেমন তেলঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক  টি রাজা সিং, যিনি মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের কাছে দাবি জানিয়েছেন, টোকিওতে ব্রোঞ্জ খেতাব জয়ী পি ভি  সিন্ধুকে তেলঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর  করা হোক টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার পরিবর্তে। ভাইরাল হওয়া একটে ছোট ভিডিওতে রাজাকে বলতে শোনা গিয়েছে, সিন্ধুই প্রথম মহিলা যিনি দুটি অলিম্পিক পদক জিতেছেন। টোকিওতে ব্রোঞ্জ জিতে তিনি ভারত, তথা তেলঙ্গানার মুখ উজ্জ্বল করেছেন। ঘোসামহলের বিধায়কের এমন বিতর্কিত মন্তব্য নতুন কিছু নয়। ২০১৯ সালে পুলওয়ামা সন্ত্রাসবাদী হামলার সময়ও তিনি সানিয়াকে ‘পাকিস্তানের  পুত্রবধূ’ তকমা দিয়ে তেলঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর পদ থেকে সরানোর দাবি জানিয়েছিলেন। ২০১৪য় সানিয়াকে তেলঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করা হয়।

এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, ২৫ জুলাই সানিয়া মেয়েদের ডাবলসের প্রথম রাউন্ডেই ইউক্রেন জুটির কাছে হেরে টোকিও অলিম্পিকে দৌড় শেষ হয়ে যায় সানিয়া-অঙ্কিতা রায়নার।

এদিকে সিন্ধুকে বৃহস্পতিবার ধুমধাম  করে সংবর্ধনা দিয়েছে অন্ধপ্রদেশ সরকার। বিজয়ওয়াড়ায় পৌঁছে বিপুল সংবর্ধনায় আপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি। রবিবার চিনের হে বিং জিয়াওকে হারিয়ে বিশ্ববিখ্যাত সিন্ধু  দেশের পদক তালিকায় আরও একটি ব্রোঞ্জ যোগ করেন। সিন্ধু তেলঙ্গানাবাসীর ভালবাসার জোয়ারে ভেসে বলেন, বিরাট করে স্বাগত জানানোয় আপনাদের ধন্যবাদ। আমি খুবই খুশি। বাবা-মাকে কী বলে শ্রদ্ধা জানাব জানি না। তাঁরাই আমার বিরাট সাপোর্ট। নিজেরা ছিলেন ভলিবল প্লেয়ার। ওঁদের অভিভাবক হিসাবে পেয়ে খুবই খুশি।

কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর সিন্ধুকে সংবর্ধনা জানিয়ে ভারতের শ্রেষ্ঠ অলিম্পিয়ানদের অন্যতম আখ্যা দেন। বলেন, ও ভারতের আইকন, অনুপ্রেরণা, দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন আছে, এমন প্রতিটি ভারতীয় কল্পনায় ওকেই দেখে। ওর অবিশ্বাস্য সাফল্য উদীয়মান অ্যাথলেটদের একটি প্রজন্মকে প্রাণিত করবে।

এক সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ, গত অলিম্পিককে কেন্দ্র করে সিন্ধুর জন্য সরকারের খরচ  হয়েছে প্রায় ৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে আছে হায়দরাবাদে তাঁর ট্রেনিং ও ৫২টি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে যাওয়া আসার খরচ। খবর দ্য ওয়ালের

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: