ঢাকা, রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০৯ অপরাহ্ন
মার্কিন নাগরিকরা শীঘ্র আফগানিস্তান ছেড়ে চলে আসুন, নির্দেশ বাইডেন প্রশাসনের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মার্কিন নাগরিকরা শীঘ্র আফগানিস্তান ছেড়ে চলে আসুন, নির্দেশ বাইডেন প্রশাসনের

 তালিবানের তৎপরতা ক্রমশ বাড়ছে আফগানিস্তানে। শনিবার মার্কিন প্রশাসন নির্দেশ দিল, সেদেশে এখনও আমেরিকার যে নাগরিকরা রয়ে গিয়েছেন, তাঁরা শীঘ্র চলে আসুন। কাবুলে মার্কিন দূতাবাস থেকেও বলা হয়েছে, তাদের ক্ষমতা অত্যন্ত সীমিত। কোনও মার্কিন নাগরিক বিপদে পড়লে তাঁকে সাহায্য করা সম্ভব নয়। দূতাবাসের বহু কর্মীকে ইতিমধ্যে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কোনও মার্কিন নাগরিকের কাছে যদি দেশে ফেরার জন্য প্লেনের টিকিট কেনার অর্থ না থাকে, দূতাবাস থেকে ধার দেওয়া হবে।

মার্কিন বিদেশ দফতর থেকে তাদের নাগরিকদের আফগানিস্তানে যেতে বারণ করা হয়েছে। আফগানিস্তানের ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে লেভেল ফোর ট্রাভেল অ্যাডভাইসারি। যখন কোনও দেশে ভ্রমণ অত্যন্ত বিপজ্জনক হয়ে ওঠে, তখন তার সম্পর্কে লেভেল ফোর ট্রাভেল অ্যাডভাইসারি জারি করা হয়। মার্কিন দূতাবাস থেকে বলা হয়েছে, কাবুলের বাইরে থেকে এখন খুব কম বিমান ছাড়ছে। ঘন ঘন ক্যানসেল হয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন ফ্লাইট। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বলেন, “তালিবানের নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় অনেকের ওপরে প্রতিশোধ নেওয়া হচ্ছে। আমরা আফগানিস্তানের পরিস্থিতির ওপরে নজর রাখছি।”


শুক্রবার আফগান সরকার জানায়, তাদের মিডিয়া ইনফর্মেশন দফতরের প্রধান দাওয়া খান মেনাপাল খুন হয়েছেন। তালিবান হামলা ঠেকাতে সম্প্রতি আফগানিস্তানের নানা জায়গায় বিমান হানা চালায় আমেরিকা। তাতে জঙ্গিদের অনেকে নিহত হয়। তারপরেই তালিবান প্রতিশোধ নেওয়ার কথা ঘোষণা করে।

আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের মুখপাত্র মিরওয়াইজ স্তানেকজাই বলেছেন, “দুর্ভাগ্যের বিষয়, জঙ্গিরা আরও একবার কাপুরুষোচিত কাজ করেছে। এক দেশপ্রেমিক তাদের হাতে শহিদ হয়েছেন।”

মে মাসে আফগানিস্তান থেকে সরে আসতে শুরু করে ন্যাটোবাহিনী। তখন থেকেই নতুন উদ্যমে হামলা শুরু করে তালিবান। অগাস্টের শুরুতে শোনা যায়, আফগানিস্তানের ৯০ শতাংশ এলাকা তাদের দখলে চলে গিয়েছে। এবার তারা হামলা করছে কাবুলে। শহরের গ্রিন জোনের কাছেই শোনা যাচ্ছে বিস্ফোরণের শব্দ। গোলাগুলিও চলছে ওই অঞ্চলে। গ্রিন জোনে আফগানিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ভবন ও বিদেশি দূতাবাসগুলি অবস্থিত।


সরকারি সূত্রে খবর, গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত আটটা নাগাদ গ্রিন জোনের কাচ্ছে প্রথমবার বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। সম্ভবত কার্যনির্বাহী প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর বাড়ির সামনে গাড়ি বোমা বিস্ফোরিত হয়েছিল। কার্যনির্বাহী প্রতিরক্ষামন্ত্রী বিসমিল্লা মহম্মদি জানান, বিস্ফোরণে তাঁর অথবা পরিবারের কারও ক্ষতি হয়নি। তবে বাড়ির কয়েকজন রক্ষী আহত হয়েছেন ।খবর দ্য ওয়ালের / এনবি এস /২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *