ঢাকা, মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন
বেনজির! পাকিস্তানে ধর্মদ্রোহিতায় অভিযুক্ত ৮ বছরের হিন্দু কিশোর‍, মন্দিরে হামলা
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

বেনজির! পাকিস্তানে ধর্মদ্রোহিতায় অভিযুক্ত ৮ বছরের হিন্দু কিশোর‍, মন্দিরে হামলা

 পাকিস্তানে ধর্মদ্রোহিতায় অভিযুক্ত ৮ বছরের ছেলে! গত মাসে এক মাদ্রাসায় ধর্মীয় পুস্তকের লাইব্রেরির কার্পেটে ইচ্ছে করে প্রস্রাব করে দেয় সে, এমন অভিযোগে তাকে ঘিরে টানাহ্যাঁচড়া হচ্ছে পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে। ছেলেটি হিন্দু হওয়ায় স্থানীয় লোকজনের রোষ পড়েছে তার ওপর। রক্ষণশীল জেলা বলে পরিচিত রহিম ইয়ার খানের বাসিন্দা ছেলেটিকে পুলিশ আগাম হেফাজতে নিয়েছে জনতার রোষ থেকে বাঁচাতে। তার পরিবারের লোকজন, স্থানীয় অনেক হিন্দুই প্রাণভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন।

পাকিস্তানে এত অল্পবয়সি কারও   ধর্মদ্রোহিতা আইনে অভিযুক্ত হওয়ার নজির নেই। আইনটি এতই কঠোর যে দোষী ঘোষিত হলে তার মৃত্যুদণ্ড হতে পারে।


গত সপ্তাহে ছেলেটি জামিন পেতেই কট্টরপন্থীরা তাণ্ডব শুরু করে।  স্থানীয় একটি হিন্দু মন্দির তছনছ করে তারা। ঘটনার এতটাই তীব্র প্রতিক্রিয়া হয় যে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত মন্তব্য করে, মন্দিরের বদলে কোনও মসজিদে হামলা হলে কী হত! এলাকায়  সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনায় এখনও  পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


কোনও এক অজ্ঞাত স্থানে গা ঢাকা দিয়ে থাকা ছেলেটির পরিবারের জনৈক সদস্য সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ও তো কাকে ধর্মদ্রোহিতা বলে, বোঝেই না। মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে  ওর বিরুদ্ধে। কী অপরাধ ওর, কেনই বা এক সপ্তাহ জেলে রাখা হয়েছে, তার বিন্দুবিসর্গ জানে না ও। তিনি আরও বলেছেন, আমরা দোকানপাট, কাজকর্ম সব ফেলে চলে এসেছি। পাল্টা হামলার আশঙ্কায় গোটা সম্প্রদায় চরম ভীত। অপরাধীদের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা,  সংখ্যালঘুদেক সুরক্ষায় প্রশাসন সদর্থক পদক্ষেপ করবে, তেমন কোনও ইঙ্গিত নেই।

একটি নাবালকের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অবমাননার মামলা দায়ের হওয়ায় হতবাক আইন প্রণেতারাও। জনপ্রতিনিধি তথা পাকিস্তান হিন্দু কাউন্সিলের প্রধান রমেশ কুমারকে উদ্ধৃত করে দি গার্ডিয়ান বলেছে, মন্দিরে হামলা, ৮ বছরের  নাবালকের বিরুদ্ধে ধর্মদ্রোহিতার অভিযোগ আনায় আমি সত্যিই খুব আঘাত পেয়েছি। একশোর বেশি বাড়িঘর আতঙ্ক, ভয়ে ফাঁকা করে পালিয়েছেন হিন্দুরা। খবর দ্য ওয়ালের / এনবিএস / ২০২১/ একে 

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *