ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ন
মর্মান্তিক! নিজের তৈরি হেলিকপ্টারের ব্লেডের ঘায়ে মৃত্যু স্কুল ড্রপ আউট যুবকের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মর্মান্তিক! নিজের তৈরি হেলিকপ্টারের ব্লেডের ঘায়ে মৃত্যু স্কুল ড্রপ আউট যুবকের

 

২৯ বছরের শেখ ইসমাইল ক্লাস এইটের পর আর স্কুলে যাননি। কিন্তু মহারাষ্ট্রের ইয়াভতমলের ফুলসাওয়াঙ্গির বাসিন্দা ড্রপ আউট  ইসমাইলের ধ্যানজ্ঞান ছিল এভিয়েশন অর্থাত্ উড়ান। নিজের একটি হেলিকপ্টার বানানোর স্বপ্ন দেখতেন। তাঁর  দুর্ভাগ্য, সেই স্বপ্ন দেখাই কাল হল।  নিজের হাতে তৈরি হেলিকপ্টারই কাড়ল তাঁর প্রাণ। অদ্ভূতদর্শন উড়ানের রোটর ব্লেডের আঘাতে মারা  গেলেন। সদ্য সেটি বানিয়েছিলেন, বুধবার সেটি পরীক্ষা করছিলেন। ঘাঁটাঘাঁটি করতে গিয়ে হঠাত্ বিপত্তি।

ওয়েল্ডিং, ফেব্রিকেশনের কাজ করতেন। তার ফাঁকে চলত এভিয়েশন নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা। গত ২ বছর ধরে নিজের ‘মুন্না হেলিকপ্টার’ তৈরির কাজ করছিলেন ইসমাইল। পুলিশ জানিয়েছে, পেট চালাতে ইসমাইল ওয়েল্ডিং, ফেব্রিকেশনের  কাজ করতেন, রাতে হেলিকপ্টার নিয়ে কাজকর্ম করতেন। বন্ধুবান্ধবদের বলেছিলেন, সাধারণতঃ হেলিকপ্টারের কোটি কোটি টাকা দাম হয়। শুধুমাত্র পয়সাওয়ালা ধনীরাই তা কিনতে পারে। তাঁর ইচ্ছে, মোটামুটি ৩০ লাখ টাকায় একটা হেলিকপ্টার বানাবেন, যাতে একটা মধ্যবিত্ত ব্যক্তিও একটা কিনতে পারে বা বন্যার মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় তা কাজে লাগানো যায়।

এক পুলিশ অফিসার বলেন, ওনার একটা সৃষ্টিশীল  মন ছিল। হাতেকলমে শেখা, কিছু বানানোর বাসনা ছিল। এমনকী তিনি স্থানীয় গ্রামবাসীদের  মধ্যে জনপ্রিয় স্টিল কাপবোর্ড বানাতেও শিখে  গিয়েছিলেন। পুলিশ জেনেছে, ইসমাইল হেলিকপ্টারে মারুতি ৮০০র ইঞ্জিন ব্যবহার করেছিলেন। রোটর, শ্যাফ্ট, ল্যান্ডিং স্কিডের মতো বাকি যন্ত্রাংশ স্থানীয় লোহালক্কড় ডিলারের কাছ থেকে সংগ্রহ করেন। তাঁর বন্ধুবান্ধবরা পুলিশকে বলেছেন, ইসমাইল মেশিনটা পরীক্ষা করতে চাইছিলেন যাতে ১৫ আগস্ট গ্রামবাসীদের সেটা দেখাতে পারেন।

স্থানীয় ব্যবসায়ী খুরশিদ আক্রাম বলেছেন, ইসমাইল প্রায়ই বলতেন, নিজের হেলিকপ্টারকে মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের অংশ হিসাবে তুলে ধরবেন, তার স্লোগানও ঠিক  করে ফেলেছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার ইসমাইল যন্ত্রটি নিয়ে ওয়ার্কশপের কাছে খোলা মাঠে যান। সঙ্গে ট্রায়ালের ভিডিও করার জন্য কয়েকজন বন্ধুও ছিলেন। ইঞ্জিন চালু করতেই লেজের রোটরতা খুলে মূল রোটরে ধাক্কা মারে। সেটি আঘাত করে ইসমাইলকে। তিনি যন্ত্রের ভিতরে ছিলেন। সঙ্গে সঙ্গে মারা যান। তাঁর বন্ধুরা, গ্রামবাসীরা মিলে তাঁকে কাছের সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত অবস্থায় নিয়ে আসা হয়েছে বলে জানান ডাক্তাররা  । খবর দ্য ওয়ালের / এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *