ঢাকা, মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:২৩ পূর্বাহ্ন
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৪০,১২০ জন, মারা গিয়েছেন ৫৮৫ জন
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৪০,১২০ জন, মারা গিয়েছেন ৫৮৫ জন


গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ফের বাড়ল। আক্রান্ত হয়েছেন ৪০,১২০ জন। দেশে মোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩,২১,১৭,৮২৬ জন। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন ৫৮৫ জন। অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা ৩,৮৫, ২৮৭ জন। বেড়েছে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন ৫৮৫ জন।

ফের বাড়ছে সংক্রমণ
দেশে ফের করোনা সংক্রমণের গ্রাফ উর্ধ্বমুখী। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪০,১২০ জন। করোনা সংক্রমণে মারা িগয়েছেন ৫৮৫ জন। দেশে করোনা সংক্রমণে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ৪,৫০,২৫৪ জন। দেশের দৈনিক করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিদিনই বাড়ছে। করোনার থার্ড ওয়েভ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে গোটা দেশ। বাড়ছে করোনায় আর ভ্যালুর সংখ্যা বাড়ছে। তাতেআরও উদ্বেগ বেড়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের। শিশুদের মধ্যেও করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে।


মুম্বইয়ে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে প্রথম মৃত্যু খবর পাওয়া গিয়েছে। ৬৩ বছরের এক বৃদ্ধা করোনা করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে মারা গিয়েছেন। গত ২১ জুলাই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমমিত হয়েছিলেন তিনি। ২৭ জুলাই মারা যান। অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছিল তাঁকে। মৃতার পরিবারের ২ জনের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ মিলেছে। এদিকে মহারাষ্ট্রে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ বেড়ে হয়েছে ৬৫। অনেক শিশুর শরীরেও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ মিলেছে। মহারাষ্ট্রে এর আগেও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে। ৮০ বছরের এক বৃদ্ধা মারা িগয়েছিলেন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে। শিশুদের মধ্যে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ নিয়ে বিশেষ উদ্বেগে রাজ্য। মহারাষ্ট্রে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ দেখে করোনার থার্ড ওয়েভের শঙ্কা প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রক। কারণ গবেষকরা জানিয়েছিলেন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকেই করোনার থার্ড ওয়েভ আসবে এবং সেপ্টেম্বর মাস থেকেই থার্ড ওয়েভ শুরু হয়ে যাবে দেশে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শিশুদের মধ্যে বাড়ছে। কর্নাটকে একাধিক শিশুর শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের হদিশ পাওয়া গিয়েেছ। কর্নাটকে কমপক্ষে ২৪২ জন শিশু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে খবর। কেরল সীমান্তের জেলা গুলিতে বিশেষ করে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে কর্নাটকে। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ কর্নাটকের একাধিক জেলা পরিদর্শন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। শিশুদের করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে বিশেষ প্রকল্প চালু করার কথা ভেবেেছ রাজ্য রাজ্য সরকার। বাৎসল্য স্কিম নামে একটি স্কিমের করার কথা ভাবছে রাজ্য সরকার। একই সঙ্গে জেলা হাসপাতালগুলিকে শিশু বিভাগের বেড সংখ্যা এবং আইসিইউ-র সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। করোনার থার্ড ওয়েভে শিশুরা সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হবেন বলে জানা গিয়েছে। কর্নাটকের স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান বলছে কেবল মাত্র বেঙ্গালুরুতেই ৯ বছরের নীচে ১০৯ জন শিশু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ৯ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১৩৬ জন।

করোনার থার্ড ওয়েভের আশঙ্কা
করোনার থার্ড ওয়েভ সেপ্টেম্বরে আসবে বলে আগে থেকেই সতর্ক করেছিলেন গবেষকরা। ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকা সহ একাধিক দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। সেই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভারতেও করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। তার মধ্যেই একাধিক রাজ্য করোনা বিধি শিথিল করেছে। বাংলায় ১৫ দিন করোনা বিধি বাড়ানো হলেও নাইট কার্ফু শিথিল করা হয়েছে। ​খবর ওয়ান  ইন্ডিয়ার /এনবিএস/২০২১/এক

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *