ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন
পাবনায় শুরু হলো কফি ও কাজু বাদাম চাষের প্রদর্শনী
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

পাবনায় শুরু হলো কফি ও কাজু বাদাম চাষের প্রদর্শনী

পুষ্ঠির চাহিদা নিরসন ছাড়াও বৈদেশিক ব্যয় কমিয়ে আনতে পাবনায় কফি ও কাজু বাদাম চাষের পরীক্ষা মুলক প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে সোমবার (১৬ আগষ্ট) দিনব্যাপী  এক কৃষক প্রশিক্ষনের আয়োজন করে পাবনা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতর। তিনদিন ব্যাপী এ প্রশিক্ষনে  উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নব্বইজন কৃষককে এ প্রশিক্ষনের আওতায় আনা হয়েছে। কাজু বাদাম ও কপি গবেষণা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় পাবনা জেলার চারটি উপজেলাকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে। পাবনা সদর উপজেলাতে তিনটি কপি ও আটটি কাজু বাদামের প্রদর্শনী পাওয়া গেছে।

পাবনা কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. আব্দুল কাদের প্রশিক্ষন অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন। সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ হাসান রশীদ হোসাইনী, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার শামীম আরা নীপা, কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা নুসরাত কবীর ও কুন্তলাঘোষ প্রথম দিনে প্রশিক্ষক হিসেবে কৃষকদের প্রশিক্ষন দেন।

কাজু বাদাম ও কপি গবেষণা উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক কৃষিবিদ শহিদুল ইসলাম জানান, পুষ্ঠিকর ও ঔষধি গুন সম্পন্ন এ ফসল দুটি মুলত: দক্ষিন আফ্রিকার দেশে আবাদ হয়ে থাকে। পেরু, ব্রাজিল মেক্সিকোসহ ওই অঞ্চলের বিভিন্ন দেশে এর আবাদ ব্যাপকভাবে হয়ে থাকে। বাংলাদেশ এ সব স্থান থেকে এ ফসল আমদানী করে দেশের চাহিদা মিটিয়ে থাকে। ফসলদ্বয় পাহাড়ী অঞ্চলে ভাল হয়। সম্প্রতি ভারত ও ভিয়েতনামে এ ফসল আবাদ হচ্ছে। সেখান থেকে ব্যাক্তি উদ্যোগে কৃষি সম্প্রসানর অধিদফতরের সহায়তায় বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের তিন জেলায় এ আবাদ শুরু হয়। এতে সাফল্য আসার পর প্রকল্প গ্রহনের মাধ্যমে দেশব্যাপী পরিক্ষা মুলকভাবে কাজু বাদাম ও কপির আবাদ সম্প্রসারনের প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এতে বৈদেশিক মুদ্রায় ব্যয় কমিয়ে আনা সম্ভব হবে।

তিনি আরো জানান, পুষ্ঠি ও ঔষধি গুন থাকায় দিন দিন বাংলাদেশে ফসল দুটির চাহিদদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাজারে প্রতিকেজি কাজু বাদাম আটশত টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কপিও বিভিন্ন ভাবে বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। আবাদটি সম্বপ্রসারিত হলে বেৈদশিক মুদ্রা ব্যয় সাশ্রয় ছাড়াও কৃষকেরা অনেক লাভবান হবে।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *