ঢাকা, শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩৩ অপরাহ্ন
FilmoraGo VS Kinemaster ভিডিও এডিটিং এর জন্য কোন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি সেরা | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


সুপ্রিয় টেকটিউনস এর পাঠকগণ, আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন? আশাকরি ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। টিউন এর টাইটেল দেখেই হয়তো বুঝে গেছেন আজকের টিউনটি কোন বিষয়ক। আজকে আমার এই টিউনে আমি আপনাদের কাইনমাস্টার এবং ফিলমরাগো দুটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ এর সুবিধা এবং অসুবিধা সকল দিকগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করব। সবাই ধৈর্য্য ধরে পুরো টিউনটি পরবেন। তারপর অবশ্যই আপনারা নিজেরাই সিলেক্ট করতে পারবেন কোন অ্যাপটি আপনাদের জন্য সেরা হবে।

তো আর কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক। তার আগে একটা কথা না বললেই নয় মানুষ মাত্রই ভুল। তাই আমারও ভুল হতে পারে। এই টিউনে যদি আমার কোন ভুল হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাকে ক্ষমা করে দেবেন এবং যদি এই টিউনটি আপনাদের কোন উপকারে আসে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। তো আর কথা বাড়িয়ে লাভ নেই চলুন শুরু করা যাক।

আমরা জানি কাইনমাস্টার এবং ফিলমরাগো ভিডিও এডিটিং এর জন্য সবচেয়ে সেরা দুটি অ্যাপ। কিন্তু আমরা কি জানি কোনটি সেরা? কিংবা আমরা কি এটা জানি যে নতুনদের জন্য কোনটি সেরা? জানিনা। আমি আজকে আপনাদের সেটাই দেখাবো যে আপনি কোন অ্যাপটি ব্যবহার করলে বেশি সুবিধা পাবেন। আমরা অনেকেই এখন ইউটিউবিং করি। ইউটিউবে ভিডিও আপলোড দেওয়ার সময় আমরা ভিডিওটিকে ভালোভাবে এডিটিং করি। কিন্তু আপনি কোন অ্যাপটি দিয়ে এডিটিং করেন? আমি দুটি অ্যাপ এর নেতিবাচক এবং ইতিবাচক সকল দেখিয়ে তুলে ধরার চেষ্টা করব।

Kinemaster

১. Kinemaster এর সুবিধা:

আমরা জানি কাইনমাস্টার অ্যাপ টিতে পুরোপুরি কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপের মতোই ভিডিও এডিটিং করা যায় এতে যেসব ফিউচারস গুলো রয়েছে সেগুলো হলো ::

  • video paste-ভিডিও পেস্ট।
  • video cut-ভিডিও কাট।
  • photo add-ফটো যোগ।
  • sound record- সাউন্ড রেকর্ড।
  • slow motion video- স্লো মোশান ভিডিও।
  • high speed video-হাই স্পিড ভিডিও।
  • text on video -টেক্সট অন ভিডিও।

২. Kinemaster এর অসুবিধা:

  • এর ফ্রি ভার্সনে জলছাপ থাকে।
  • যে ফোনগুলোতে র্যাম কম ঐ ফোনগুলোতে সাপোর্ট করেনা।
  • ফোন ল্যাক করে।
  • মাঝে মাঝে ফোন হ্যাং হয়ে যায়।
  • ব্যাটারির জন্য ক্ষতিকারক।
  • নতুনদের জন্য অসুবিধাজনক।

FilmoraGo

১. FilmoraGo এর সুবিধা :

  • নতুনদের জন্য খুব ভালো।
  • ইউটিউবিং করার জন্য এবং ইউটিউব এর ভিডিও এডিটিং এর জন্য সবচেয়ে ভালো।
  • ফাংশন খুব যথেষ্ট পরিমাণে আছে।
  • ভিডিও পেস্ট।
  • ভিডিও কাট।
  • স্লো মোশন ভিডিও।
  • হাই স্পিড ভিডিও।
  • টেক্সট অন ভিডিও।
  • ফোন হ্যাং হয় না।
  • যে ফোন গুলোতে র্যাম 1 জিবি ঐ ফোনগুলোতেও সাপোর্ট করে।

২. FilmoraGo এর অসুবিধা:

  • প্রতিটা ভিডিওতে জল ছাপ থাকে।
  • ভিডিও প্রসেসিং হতে দেরি হয়।
  • অনেক বড় ভিডিও এডিটিং করতে গেলে ভিডিওর অর্ধেকটা হারিয়ে যায়।

আমার মতামত

আপনি যদি নতুন ইউটিউব শুরু করেন কিংবা নতুন হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার জন্য বেস্ট হবে FilmoraGo। কারন এটাতে অপশানগুলো কম থাকলেও এটি আপনার ভিডিও এডিটিং এর জন্য যথেষ্ট। কিন্তু Kinemaster ব্যবহার করতে গেলে অনেক ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। তাছাড়া নতুনরা সেগুলো সহজে বুঝতে পারে না। তাই আপনি যদি প্রথম ইউটিউবে কিংবা ভিডিও এডিটিং শুরু করে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার জন্য ভালো হবে FilmoraGo। আপনি প্রথমে ফিলমরাগো অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। তারপর যদি ভালো না লাগে তাহলে কাইনমাস্টার অ্যাপ এ যাবেন। কিন্তু আমি সাজেস্ট করবো আপনার জন্য ফিলমরাগো অ্যাপটি হবে বেস্ট।

সুপ্রিয় পাঠকগণ এই ছিল আজকের টিউন। যদি এই টিউনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন এবং যদি এই টিউন সম্পর্কে আপনার কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাকে টিউমেন্ট এ জানাবেন আমি আপনাদের প্রতিটি টিউমেন্টের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *