ঢাকা, রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩২ অপরাহ্ন
কিভাবে আপনার ইউটিউব ভিডিওতে বেশি বেশি ভিউ আনবেন | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


সুপ্রিয় পাঠকগণ, আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন?আশাকরি ভাল আছেন। কারন টেকটিউনসের সাথে থাকলে সবাই ভাল থাকে। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। আজকে আমি আবারো চলে এসেছি আপনাদের জন্য নতুন আরো একটি কার্যকরী টপিক নিয়ে। আপনি হয়তো টিউন এর টাইটেল দেখে বুঝে গেছেন আজকের টিউনটি কি সম্পর্কিত।

আজকের টিউনে আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে আপনি আপনার ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ আনবেন। সেটা 100% কার্যকরী উপায় এবং আপনি কিছু দিনের মধ্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল কে মনিটাইজেশন করে ফেলতে পারবেন। আমরা জানি, ভিউ মানেই সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউ মিনেই ওয়াচ টাইম। অর্থাৎ ভিউ হলে সাবস্ক্রাইব এবং ওয়াচ টাইম এমনিতেই আপনার চ্যানেলে পূর্ণ হয়ে যাবে। আমরা জানি ইউটিউব চ্যানেলকে মনিটাইজেশন করতে 1000 সাবস্ক্রাইবার এবং 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম প্রয়োজন। কিন্তু সাধারণ মানুষের পক্ষে এটা পূর্ণ করা বেশ কঠিন। কিন্তু আপনার ইউটিউব ভিডিও গুলি সঠিক ভাবে আপলোড করেন, তাহলে অবশ্যই এক থেকে দুই মাসের মধ্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন হয়ে যাবে।

তো এখন কথা হল কিভাবে আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভিউ আনতে পারবেন!? আপনি বিভিন্ন জায়গায় আপনার চ্যানেলের লিংক শেয়ার করে থাকেন। এতে করে অনেক ভিউ পান। কিন্তু সেটা আপনার চ্যানেলের জন্য ক্ষতিকারক। এটা কি আপনি জানেন!? যখন লিংক থেকে কোন আপনার চ্যানেলে ভিউ আসবে তখন ইউটিউবের রোবট দেখবে আপনার চ্যানেলে এক্সটার্নাল ভিউ বেশি। তখন আপনার চ্যানেলকে তারা রেংকে করবে না এবং আপনার কোনো ভিডিওই তারা ভাইরাল করবে না। কিন্তু আপনার কোন ভিউ যদি সার্চ থেকে আসে তাহলে অবশ্যই ইউটিউব আপনার ভিডিওগুলো কে ভাইরাল করে দেবে। একটি ভিডিওতে সার্চ থেকে প্রায় 100 থেকে 200 ভিউয়ার্স আসলেই ইউটিউব এর রোবট 90% আপনার ভিডিও ভাইরাল করে দেয়। কিন্তু এই 100 থেকে 200 ভিউ আপনি কোথায় পাবেন?

এর জন্য আপনাকে জানা প্রয়োজন কিভাবে আপনি আপনার চ্যানেলে ভিউ আনবেন এবং আমার এই টিউনে আমি আপনাদের সেটাই দেখাবো। আমার এই টিউনটি একেবারে নতুনদের জন্য যারা নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলেছেন কিন্তু আনতে পারছেন না, শুধুমাত্র তাদের জন্য। তো আর বেশি কথা বাড়িয়ে লাভ নেই চলুন শুরু করা যাক। ভিউ আনার জন্য আমরা অনেকেই নিজে নিজেই আমাদের ভিডিওগুলি তে ভিউ করে ভিউয়ার্স বাড়াই কিংবা নিজে নিজে সার্চ করে আমার চ্যানেলে গিয়ে নিজে নিজে আমরা চ্যানেল ভিউ করি।

কিন্তু এটা আমাদের চ্যানেলের জন্য ক্ষতিকারক। যদি অন্য কোন মোবাইল থেকে অন্য কোন ভিউয়ার্স আপনার ভিডিও ভিউ করে তাহলে শুধু আপনার ভিডিওগুলো ভাইরাল হতে পারে। এজন্য আপনাকে যে বিষয়টি জানা প্রয়োজন সেটি হল SEO। আপনারা হয়তো সকলে এটা শুনে থাকবেন SEO কি। SEO হলো সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (Search Engine Optimization) যেটার মাধ্যমে আপনার ভিডিওগুলি মানুষ সার্চ করলে খুঁজে পাবে। কিভাবে আপনার ভিডিওগুলি SEO করবেন তা আমি এই টিউনে আলোচনা করব।

১. আপনার চ্যানেলকে ভালোভাবে সাজান

আপনার চ্যানেলকে ভালোভাবে সাজানোর জন্য প্রথমে আপনার চ্যানেলের ডেসক্রিপশন জুরুন। ডিসক্রিপশন এ প্রথম লাইনে আপনার চ্যানেলের নাম দেবেন। দ্বিতীয়তঃ আপনার চ্যানেলের সেটিং-এ গিয়ে কীওয়ার্ড লেখায় ক্লিক করে ওইখানে আপনার চ্যানেলের সম্পর্কিত কিছু কীওয়ার্ড দিন।

২. কেমন কনটেন্ট তৈরি করবেন

আপনার ভিডিও গুলি বানানোর আগে আপনাকে নিশ্চিত হয়ে যেতে হবে যে, কোন কন্টেন্ট নিয়ে আপনি ভিডিও বানাবেন। যে কনটেন্ট নিয়ে ইউটিউবে অনেক ভিডিও রয়েছে সেই কনটেন্ট নিয়ে ভিডিও বানানোর দরকার নেই। প্রথমত আপনি দেখবেন কোন জিনিসটা মানুষ সার্চ করে কিন্তু সঠিক ভাবে সেগুলোর ভিডিও ইউটিউবে নেই। আপনি সেই বিষয়গুলো নিয়ে ইউটিউব এ ভিডিও বানান।

৩. আকর্ষণীয় থাম্বনেল যুক্ত করুন

আপনার ভিডিওতে ভিউ আনার জন্য সর্বপ্রথম যে বিষয়টি আপনাকে করতে হবে সেটি হল আকর্ষণীয় থাম্বনেল। আপনার থাম্বনেল দেখে কিন্তু ভিউয়ার্স না আপনার ভিডিওতে ক্লিক করবে। তাতে করে আপনার ভিউও আসবে। এজন্য প্রথমত আপনাকে আপনার ভিডিওর থামনেল ভালো করতে হবে। এমন থাম্বনেল তৈরি করবেন যাতে করে ভিউওয়াস রা আপনার থাম্বনেল দেখে মুগ্ধ হয়ে যাই। সে যেন বাধ্য থাকে আপনার ভিডিও টিতে ক্লিক করার জন্য।

৪. আপনার ভিডিওতে ট্যাগ যুক্ত করুন

ভিডিওতে ভিউ আনার জন্য এবং সার্চে আপনার ভিডিওকে প্রথমে আনার জন্য যে বিষয়টি জরুরি সেটি হল ট্যাগ। আপনার ইউটিউব ভিডিওতে আপনি ট্যাগ হিসাবে যে যে ওয়ার্ডগুলো ব্যবহার করবেন তা লিখে ইউটিউব এ সার্চ করলে আপনার ভিডিওটি সে পাবে। এজন্য আপনাকে কার্যকরী কিছু ট্যাগ যুক্ত করতে হবে। আপনি কিভাবে আপনার ভিডিও গুলোতে সঠিকভাবে ট্যাগ ব্যবহার করবেন তা আমি আমার পরের টিউনে বলে দেব।

৫. ডিসক্রিপশন

আপনারা যখন ভিডিও আপলোড দেন তখন অনেকেই ডিসক্রিপশন এ কিছু লেখা না। ডিসক্রিপশন এ আপনি প্রথমে আপনার ভিডিওর টাইটেল টা দিবেন। তারপর আপনার ভিডিওটি কি সম্পর্কিত সেগুলো কিছু বিশ্লেষণ করে লিখবেন। আপনার ডিসক্রিপশন যত বড় হবে সার্চ ইঞ্জিনে ততো আপনার ভিডিওটি র্যাঙ্কে উঠবে।

৬. নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন

আপনার ইউটিউব চ্যানেল কে র্যাঙ্ক করানোর জন্য যে বিষয়টি সব থেকে জরুরি সেটি হলো নিয়মিত ভিডিও আপলোড করা। নিয়মিত ভিডিও আপলোড না করলে আপনার চ্যানেল কোনদিন ও সবার সামনে আসবে না। এর জন্য আপনাকে প্রতি সপ্তাহে দুই থেকে তিনটি করে ভিডিও অবশ্যই আপলোড করতে হবে।

আপনি উপরিউক্ত সকল বিষয় গুলো ভালো করে আপনার চ্যানেলে করতে পারলে আমি 100% নিশ্চয়তার সাথে বলতে পারি -10 থেকে 20 দিনের মধ্যে আপনার চ্যানেল র্যাঙ্ক করবে। কিন্তু ভাইরাল হওয়ার জন্য আপনাকে অন্য টেকনিক ফলো করতে হবে। ভাইরাল হওয়ার জন্য আপনাকে যে বিষয়গুলো করতে হবে তা আমি অবশ্যই আমার পরের কোন টিউনে আপনাদের বলে দেবো। কিন্তু প্রথমে আপনাদের জরুরি আপনার ভিডিওগুলি রেঙ্গে ওঠানো। এজন্য আমি উপরে যে স্টেপগুলো বলে দিলাম সে স্টেপ গুলো ফলো করে আপনার চ্যানেলকে এবং ভিডিওগুলি SEO করতে থাকেন। অবশ্য একদিন ভালো সফলতা পাবেন। তো সুপ্রিয় পাঠক গন, আজকে এটুকুই রইল। আজকের টিউনটি আপনাদের কোন উপকারে এসে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং টেকটিউনসের সাথে থাকুন।

আসসালামু আলাইকুম।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *