ঢাকা, মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:০৪ অপরাহ্ন
তালিবানের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অভ্যুত্থান, আফগানিস্তানের একটি জেলা হাতছাড়া জঙ্গিদের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

তালিবানের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অভ্যুত্থান, আফগানিস্তানের একটি জেলা হাতছাড়া জঙ্গিদের

 কাবুল দখল করার পরে তালিবান দাবি করেছিল, আফগানিস্তানের যুদ্ধে তারা বিজয়ী হয়েছে। কিন্তু তার এক সপ্তাহের মধ্যেই শোনা গেল, তাদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র বিদ্রোহ ঘটেছে দেশের অন্তত একটি অঞ্চলে। আফগানিস্তানের খামা প্রেসের খবর অনুযায়ী, উত্তর বাগলান প্রদেশের পোল ই হিসার জেলায় তালিবানের বিরুদ্ধে সশস্ত্র বিদ্রোহ হয়েছিল। ওই জেলাটি আপাতত জঙ্গিদের হাতছাড়া হয়েছে। স্থানীয় মানুষ দাবি করছেন, দেহ সালাহ এবং কোয়াসান নামে দু’টি জেলাতেও আর তালিবানের নিয়ন্ত্রণ নেই।

আফগান সরকারের প্রাক্তন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বিসমিল্লা মুহম্মদি টুইটারে লিখেছেন, “তালিবানকে প্রতিরোধ করা আমাদের কর্তব্য। প্রতিরোধ বাহিনী সক্রিয় রয়েছে। বাগলান প্রদেশের পোল ই হিসার, দেহ সালাহ এবং বানু জেলা তালিবানের হাত থেকে কেড়ে নেওয়া গিয়েছে।” স্থানীয় মানুষ জানিয়েছেন, সশস্ত্র প্রতিরোধে অন্তত ৪০ জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ১৫ জন। তালিবানের তরফে কেউ এখনও এই প্রতিরোধ নিয়ে মন্তব্য করেনি।


বৃহস্পতিবার থেকে কাবুলে কার্ফু জারি করেছে তালিবান। শহরবাসীকে বলা হয়েছে, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ রাত ন’টার পরে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না।

এর মধ্যে জানা যায়, তালিবানের অকুণ্ঠ প্রশংসা করেছে জঙ্গি সংগঠন আল কায়েদার একটি শাখা। ‘আল কায়েদা ইন আরবিয়ান পেনিনসুলা’ নামে ওই শাখা সংগঠন বাদে আরও কয়েকটি জঙ্গি সংগঠন তালিবানকে অভিনন্দন জানিয়েছে।

সিরিয়ার হায়াত তাহরির অল শাম (এইচটিএস) নামে এক জঙ্গি সংগঠন বলেছে, তালিবান আমাদের প্রেরণা। পশ্চিম চিন থেকে তুর্কিস্তান ইসলামিক পার্টি বিবৃতি দিয়ে তালিবানের জয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছে। তহরিক ই তালিবান পাকিস্তান নামে সংগঠনটিও বলেছে, তারা আফগানিস্তানের তালিবান নেতাদের মেনে চলবে। একই সঙ্গে তারা জানিয়ে দিয়েছে, আগামী দিনে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর ওপরে আক্রমণ চালিয়ে যাবে।

এইচটিএস বলেছে, তালিবান যেভাবে আফগানিস্তান দখল করল, তা বহু পুরানো ইতিহাসের কথা মনে করিয়ে দেয়। তাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেরিতে হলেও শেষপর্যন্ত ন্যায়ের জয় হয়। বিদেশি হানাদাররা বেশিদিন রাজত্ব করতে পারে না।

এইচটিএসের আশা সিরিয়াতেও একসময় বশির অল আসাদের সরকারের পতন ঘটবে। তালিবানের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে ওই দেশ দখল করবে তারা। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “আমরা তালিবান ভাইদের এবং সেই সঙ্গে আফগানিস্তানের সাধারণ মানুষকে অভিনন্দন জানাই। একদিন ঈশ্বর সিরিয়ার বিপ্লবকেও জয়ী করবেন। খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/একে 

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *