ঢাকা, শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪২ অপরাহ্ন
মার্কিনিদের পিটিয়েছে তালেবান
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মার্কিনিদের পিটিয়েছে তালেবান

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন জানিয়েছেন, কাবুলের পতনের পর যেসব মার্কিন নাগরিক আফগানিস্তান ছাড়ার চেষ্টা করছিল তাদেরকে তালেবান গেরিলারা পিটিয়েছে। গতকাল (শুক্রবার) এক ব্রিফিং অনুষ্ঠানে অস্টিন একথা বলেন। গতকালের ব্রিফিং অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া কয়েকজন আইনপ্রণেতা এ তথ্য জানান।

মার্কিন নাগরিকদের তালেবানের মারধরের ঘটনায অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী অস্টিন। তবে কিভাবে মার্কিন নাগরিকদের নিরাপদে কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন সেনারা নিয়ে গেছে তিনি সে সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলেন নি। তালেবানের হাত থেকে মার্কিন এবং অন্য দেশের নাগরিকদের রক্ষা করার জন্য আমেরিকার সেনাদের সেসময় কাবুল বিমানবন্দরে বাইরে থাকার সম্ভাবনার কথা অস্টিন স্বীকার করেন নি, আবার প্রত্যাখ্যানও করেন নি।

আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সমস্ত মার্কিন সেনা ও নাগরিকদের দেশে ফেরত নেয়ার আশা ব্যক্ত করেন তিনি তবে এই সময়ের ভেতরে সবাইকে ফেরত নেয়া সম্ভব হবে কিনা তার নিশ্চয়তা দিতে পারেন নি অস্টিন।

গতকালের ব্রিফিং অনুষ্ঠানে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এবং সামরিক বাহিনীর জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি উপস্থিত ছিলেন।

আফগানিস্তান থেকে বিশৃঙ্খলাপূর্ণ অবস্থার ভেতর দিয়ে মার্কিন নাগরিকদের প্রত্যাহার করা হল কেন- সে বিষয়ে জবাব দাবি করছিলেন মার্কিন আইন প্রণেতারা। গতকালের ব্রিফিং অনুষ্ঠানে তাদের প্রশ্নের জবাব দেয়া হয়।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গতকাল সকালের দিকে বলেছিলেন, শান্তিপূর্ণভাবেই মার্কিন সেনা ও নাগরিকদের প্রত্যাহার করা হচ্ছে। কিন্তু বিকেলে অস্টিন লয়েড ভিন্ন কথা বললেন। এর মধ্যদিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীর মধ্যে সমন্বয়হীনতা বিষয়টি পরিষ্কারভাবে ধরা পড়ল।

এদিকে, আন্তর্জাতিক অঙ্গনের কোনো কোনো সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে যে, কাবুলের পতনের পর মার্কিন নাগরিকদের রাতভর পিটিয়েছে তালেবান। আমেরিকা প্রাবাসী আফগান নারী সাংবাদিক সাশা ইংবার তার টুইটার একাউন্টেও একই কথা বলেছেন। খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *