ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন
মমতা ‘লেডি তালিবান’, সায়ন্তনের এই মন্তব্য নিয়ে কী বললেন বিজেপি নেত্রী লকেট?
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মমতা ‘লেডি তালিবান’, সায়ন্তনের এই মন্তব্য নিয়ে কী বললেন বিজেপি নেত্রী লকেট?

আলটপকা কথায় তাঁর স্ট্রাইক রেট বেশ উপর দিকেই। তাতে নবতম সংযোজন ঘটালেন রাজ্য বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। এবার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নাম না করে ‘লেডি তালিবান’ বললেন এই গেরুয়া নেতা।

রবিবার বিধাননগরে গিয়েছিলেন সায়ন্তন। বিজেপির রাখিবন্ধনে অংশগ্রহণ করে তিনি বলেন, “তালিবান দেখতে কাবুলে যেতে হবে না। কালীঘাটে চলে যান। লেডি তালিবান দেখতে পেয়ে যাবেন। টিকিটও লাগবে না।” এখানেই থামেননি এই বিজেপি নেতা। তাঁর কথায়, “বাংলায় তালিবানি শাসন চলছে। বিরোধীদের কথা বলা, কর্মসূচি করার কোনও অধিকার নেই। বিরোধিতা করলেই গ্রেফতার করা হচ্ছে।”


সায়ন্তনের এই বক্তব্য নিয়ে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়েছে। তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, এদের জিভে কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এদের রুচিবোধ বাংলার মানুষ জানেন। ভোটে জবাব পেয়েছে। তবু এদের লজ্জা নেই। সায়ন্তনের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, “তালিবান নারী বিরোধী। একজন মহিলাকে কখনওই লেডি তালিবান বলা যায় না।” তবে লকেট এও বলেছেন, তালিবান রাজত্বে যেমন গণতন্ত্র নেই, তেমন বাংলাতেও সেসব লাটে উঠেছে।

দলীয় সূত্রের খবর, লকেটের সঙ্গে অনেকেই একমত। তাঁরা চাইছেন, পার্টি আনুষ্ঠানিকভাবে সায়ন্তনকে সেন্সর করুক। তাঁর বক্তব্য দল অনুমোদন করে না, প্রকাশ্যে তা জানাক। তবে, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ক ‘দিন ধরে বলছেন, বাংলায় তালিবানি শাসন কায়েম হয়েছে। তাই তিনি সায়ন্তনের পক্ষে দাঁড়িয়ে যেতে পারেন।

সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী, প্রবীণ কংগ্রেস নেতা আবদুল মান্নানও সায়ন্তনের এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, রাজনৈতিক বিরোধিতা থাকতেই পারে। তবে আক্রমণে শালীনতা থাকা জরুরি। আসলে বিজেপির মাথায় পুরুষতান্ত্রিক চিন্তা জাঁকিয়ে বসে রয়েছে। সেই জন্যই এসব বলেছেন ওদের নেতা। খবর দ্য ওয়ালের/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *