ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০০ অপরাহ্ন
গোটা আফগানিস্তান তছনছ, আমেরিকায় চরম বিলাসী জীবন আশরফ গনির ছেলে-মেয়ের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

গোটা আফগানিস্তান তছনছ, আমেরিকায় চরম বিলাসী জীবন আশরফ গনির ছেলে-মেয়ের

 তালিবান কাবুল দখল করে নেওয়ার পরে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আশরফ গনি। সূত্রের খবর, বিপুল অর্থ ও সম্পত্তি নিয়ে তাজাকিস্তানে চলে গেছিলেন তিনি। এখন রয়েছেন দুবাইয়ে। কিন্তু তাঁর পরিবার, সন্তানরা কোথায়? তাঁদের নিয়ে কৌতূহল রয়েছে অনেকেরই। জানা গেছে, আশরফ গনির ছেলেমেয়েরা আমেরিকায় থাকেন। রীতিমতো বিলাসবহুল জীবন তাঁদের।


আফগানিস্তানের এত অশান্তি এত সংঘাতে যখন টালমাটাল পরিস্থিতি, মানুষের প্রাণ যাচ্ছে, সাধারণ জীবন স্তব্ধ হয়ে গেছে, আতঙ্কের আঁচে পুড়ে যাচ্ছেন বহু মানুষ, উৎকণ্ঠার প্রহর পেরোচ্ছে একটা একটা করে, তখন এসব থেকে বহু দূরে, শান্তিতে, নিরাপদে, অগাধ আয়েসে জীবন যাপন করছেন সদ্যপ্রাক্তন পলাতক প্রেসিডেন্টের সন্তানরা।

সূত্রের খবর, আশরফ গনির মেয়ে মারিয়াম গনি নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে থাকেন। তিনি পেশাগত ভাবে একজন হিপস্টার তারকা। গত সপ্তাহেই নিউইয়র্ক পোস্টে মারিয়াম গনির ব্রুকলিনের বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্টের ছবি-সহ তাঁর বিলাসী জীবনযাপন নিয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছে। 

আশরফ গনির ছেলে তারেক গনি থাকেন ওয়াশিংটন ডিসিতে। তিনি সেন্ট লুইসের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির অর্থনীতির অধ্যাপক। তারেকের স্ত্রী এলিজাবেথ পিয়ারসন প্রভাবশালী মার্কিন উদারনৈতিক সিনেটর এলিজাবেথ ওয়ারেনের লেজিসলেটিভ পরিচালক। হোয়াইট হাউসের কাছেই বিলাসবহুল টাউন হাউসে তাঁদের বাড়ি। নিউইয়র্ক পোস্ট অনুযায়ী, বাড়িটির দাম ১২ লাখ ডলার।

গত সপ্তাহে কার্যত বিনাযুদ্ধে তালিবানের কাছে সমর্পণ করে কাবুল। তখনও মার্কিন সেনারা ছিল কাবুলে। সেই অবস্থাতেই আশরফ গনি দেশ থেকে পালান। সারা বিশ্বের কাছে সমালোচনার মুখেও পড়েন তিনি। এই চরম বিপর্যয়ে যখন নিজের দেশের নাগরিকদের রক্ষার দায়িত্ব নেওয়ার কথা ছিল তাঁর, তখন তিনি আফগানদের চরম বিপদের মুখে ফেলে পালিয়ে যান! অভিযোগ, প্রায় ১৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নিয়ে পালান তিনি।

তবে এসব সমালোচনা ও অভিযোগের জবাবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া একটি পোস্টে আশরাফ গনি দাবি করেছেন, রক্তপাত এড়াতেই দেশত্যাগ করেছেন তিনি। তাঁকে তালিবান মেরে ফেলত।

মনে করা হচ্ছে, এসব আশঙ্কা অমূলক। তালিবানকে প্রতিরোধ করতে আরও কঠিন লড়াইয়ের কথা ছিল তাঁর। অন্তত তালিবানের সঙ্গে বোঝাপড়া করার চেষ্টাও করা উচিত ছিল। এসব না করে তিনি নিজেকে নিরাপদে সরিয়ে নিলেন। মনে করা হচ্ছে, এর পরে দুবাই থেকে আমেরিকা চলে যাবেন তিনি, ছেলেমেয়েদের কাছে। খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *