ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৮ অপরাহ্ন
তমাল আফগান মেয়ে হলেও তালিবানের প্রশংসা করতে পারতেন তো? কটাক্ষ তসলিমার
bangla24bd news

তমাল আফগান মেয়ে হলেও তালিবানের প্রশংসা করতে পারতেন তো? কটাক্ষ তসলিমার

আফগানিস্তান থেকে দেশে ফিরে তালিবানের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন নিমতার বাসিন্দা তমাল ভট্টাচার্য। বলেছেন, আগের তালিবান আর এখনকার তালিবানের মধ্যে বিস্তর ফারাক। তালিবান জঙ্গিদের সঙ্গে ক্রিকেটও নাকি খেলেছেন তিনি। এই ‘বাঙালিবাবুর’ বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন তসলিমা নাসরিন।

মঙ্গলবার রাতে ফেসবুক পোস্টে তসলিমা বলেছেন, তালিবান শরিয়া আইন অনুসারে দেশ চালানোর কথা বলে। ১৪০০ বছর পুরনো এই শরিয়া আইনে মেয়েদের কোনওকিছুতেই কোনও অধিকার নেই। তাঁরা কেবল বোরখার অন্ধকারে বন্দি। তমাল ভট্টাচার্য যদি আফগান নারী হতেন, তাহলে কি তিনি এভাবে তালিবানের প্রশংসা করতে পারতেন? প্রশ্ন করেছেন তসলিমা।


তসলিমা মনে করিয়ে দিয়েছেন, ভোটে জিতে তালিবান ক্ষমতায় আসেনি। তারা বন্দুকের নল দেখিয়ে কাবুল দখল করেছে। তিনি তমালকে উদ্দেশ্য করে প্রশ্ন করেছেন, তোমার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেছে বলে তালিবান ভালো? তারা অন্যের সঙ্গে কী ব্যবহার করছে তা দেখে তো তাদের সম্পর্কে রায় দিতে হবে! আফগান মেয়েরা যদি বলে আমার জায়গায় দাঁড়িয়ে তালিবানদের সম্পর্কে মন্তব্য করো, তাহলে? তমাল যদি বাঙালি বাবু না হয়ে কোনও স্বাধীনচেতা আফগান মেয়ে হতেন, যে মেয়ে বোরখা বা হিজাবের শৃঙ্খল পছন্দ করেন না, তমাল ভট্টাচার্যের মতোই আন্তর্জাতিক ইস্কুলে শিক্ষকতা করতে চান, স্বর্নিভর হতে চান, তাহলে?

তসলিমা আরও একবার শরিয়া আইনের ভয়াবহতা দেখিয়ে দিয়েছেন চোখে আঙুল দিয়ে। তিনি লিখেছেন, শরিয়া আইন কী ভাবে মেয়েদের পাথর ছুঁড়ে হত্যা করে, মেয়েদের বোরখার অন্ধকারে বন্দি করে, মেয়েদের ইস্কুল কলেজে যাওয়ার, উপার্জন করার, স্বনির্ভর হওয়ার অধিকার ছিনিয়ে নেয়, বাঙালিবাবুটি নিশ্চয়ই জানেন, তারপরও কী করে তিনি বলেন নব্বই দশকের তালিবান আর এখনকার তালিবানে বিস্তর তফাৎ! আফগান মেয়েদের জায়গায় থাকলে তালিবানকে কখনও ভাল বলতে পারতেন না তমাল, জানিয়েছেন তসলিমা। খবর দ্য ওয়ালের/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *