ঢাকা, বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০৬ অপরাহ্ন
কলকাতা হাইকোর্টে অতিরিক্ত পাঁচ জন বিচারপতি নিয়োগে অনুমোদন কেন্দ্রের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


কলকাতা হাইকোর্টে অতিরিক্ত পাঁচ জন বিচারপতি নিয়োগে অনুমোদন কেন্দ্রের

 একের পর এক মামলা ঝুলে আছে। পিছিয়ে যাচ্ছে শুনানিও। কারণ যথেষ্ট সংখ্যক বিচারপতিই নেই কলকাতা হাইকোর্টে। গত বছর থেকেই এ নিয়ে কেন্দ্রকে সুপারিশ করা হচ্ছে, তাতেও লাভ হয়নি। এতদিনে বিচারপতি নিয়োগে কলেজিয়ামের সুপারিশ অনুমোদন করা হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ের জন্য পাঁচ জন অতিরিক্ত বিচারপতি নিয়োগে শিলমোহর দিয়েছে কেন্দ্র।

বৃহস্পতিবারই পাঁচ জন অতিরিক্ত বিচারপতিকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য নিয়োগ করা হয়েছে। তাঁরা হলেন, বিচারপতি কেশন দমা ভুটিয়া (কর্মসময় ৪ মে ২০২২ থেকে ২৩ জুন, ২০২৩), বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্ত (কর্মসময় হবে ৪ মে ২০২২ থেকে ২৩ জুন, ২০২৩ পর্যন্ত), বিচারপতি আনন্দ কুমার মুখোপাধ্যায় কর্মসময় ৪ মে ২০২২ থেকে ২৩ জুন, ২০২৩), বিচারপতি সুগত মজুমদার (২ বছর) ও বিচারপতি বিভাস পট্টনায়ক (২ বছর)।


হাইকোর্টে বিচারপতি থাকার কথা ৭২ জন, যার মধ্যে ৫৪ জন স্থায়ী ও ১৮ জন অতিরিক্ত বিচারপতি। কিন্তু চলতি বছরে দেখা যায়, হাইকোর্টে বিচারপতির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩১ জনে। তাঁদের মধ্যে ২৯ জন স্থায়ী এবং ২ জন অতিরিক্ত বিচারপতি। ৪১টি পদ খালি পড়ে রয়েছে। অর্থাৎ দেখতে গেলে ৫০ শতাংশেরও বেশি পদ খালি।

শেষবার বিচারপতি নিয়োগ হয়েছিল গত বছর ৩১ ডিসেম্বর। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ করা হয় রাজেশ বিন্দলকে। কলকাতা হাইকোর্টে প্রধান বিচারপতির পদ পাওয়ার আগে জম্মু ও কাশ্মীর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ছিলেন তিনি। এর আগে মে মাসে আরও একজন অতিরিক্ত বিচারপতি নিযুক্ত হন, যাঁর নাম অনিরুদ্ধ রায়। তার পর থেকে বিচারপতি নিয়োগের সুপারিশ করা হলেও নতুন নিয়োগে অনুমোদন মেলেনি।

সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতি নিয়োগের প্রক্রিয়াটা দেখার দায়িত্ব যেমন কলেজিয়ামের, হাইকোর্টে ক্ষেত্রে তেমনটা নয়। সেখানে প্রধান বিচারপতির মতামতই শেষ কথা। তবে সুপ্রিম কোর্টকে বিষয়টা জানিয়েই বিচারপতি নিয়োগের জন্য কেন্দ্রের কাছে সুপারিশ করে হাইকোর্ট। শেষবার সাত জন বিচারপতি নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হয়েছিল, তার মধ্যে পাঁচজনকে নিয়োগ করা হচ্ছে।   ​খবর দ্য ওয়ালের/এনবিএস/২০২১/এক

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *