ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:২৬ অপরাহ্ন
Intercom এ নতুন CEO আসার পর কোম্পানিটিকে সাহায্য করছে Mark Zuckerberg এবং Jack Dorsey | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


দীর্ঘ দিন Intuit এর নির্বাহী হিসাবে থাকা Karen Peacock, ২০১৭ সালে Intercom এ যোগ দেন এবং বর্তমানে কোম্পানিটির CEO হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কোম্পানিটিকে লাভের সাথে পরিচালনা করাই তার প্রধান লক্ষ্য।

Intercom এর সাবেক CEO, Andrew George McCabe প্রথম থেকে পরিষ্কার করছিলেন তিনি CEO থেকে চেয়ারম্যান পদে চলে যাবেন। তিনি একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে বলেন, “আমাদের কাছে দায়িত্ব পালনের নির্দিষ্ট কোন সময়সীমা নেই”।

Karen Peacock, ২০১৭ সালে Intercom এ চাকরী নিয়ে ছিলেন এবং তিন বছরে প্রতিষ্ঠানটি ৩০ হাজার কাস্টমার থেকে ১৫০ মিলিয়ন আয় করেছে। গত জুলাই মাসে তিনি  এই ১.৩ বিলিয়ন স্টার্ট-আপটির  CEO হিসেবে যোগ দেন।

করোনা মহামারীর বেশ কয়েকমাস আগে থেকে ছড়িয়ে পড়লে এই ধরনের পরিবর্তন মোটেও সহজ ছিল না। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটিতে Jack Dorsey এবং Mark Zuckerberg, ২৪০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করে এবং ২০১৮ সাল থেকে এই পর্যন্ত এটিই ছিল প্রথম ফ্রেস ফান্ডিং। তারপরেও খরচ কমানোর জন্য প্রতিষ্ঠানটি থেকে মে মাসে অনেক কর্মীকে ছাটাই করা হয়।

এই মুহূর্তে এই সকল বড় বড় সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রসঙ্গে Peacock বলেন, ” আমরা মনে করি এটাই উপযুক্ত সময়, আমি মনে করি না কয়েকমাস মহামারি জন্য বিষয় গুলো পরিবর্তন করা হবে। আমরা আমাদের ব্যবসায়-কে আটকিয়ে রাখতে চাই নি তাই সামনের দিকে এগিয়ে গিয়েছি “। এবং  বর্তমানে Andrew George McCabe, প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন।

নতুন CEO হিসাবে Peacock এর প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে এই করোনা সংকটের মধ্যেও পরবর্তী কয়েক বছর কোম্পানিটিকে লাভের দিকে পরিচালিত করা।

এর আগে তিনি Intuit এ ৮ বছর কাজ করেন। সম্প্রতি Quickbook এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব পালন করে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের ব্যবসায়টিকে ২.৬ বিলিয়নে উন্নীত করেছেন।

তিনি বর্তমানে Intercom এর সাথে গ্রাহকদের সাথে এর সম্পর্ক ভাল করার পাশাপাশি, পণ্য গুলো নতুন করে পরিবর্তনের দিকে মনোনিবেশ করেছেন যা বড় বড় কোম্পানি গুলোর জন্য খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

Karen Peacock বলেন, আমরা টেকসই এবং ভবিষ্যদ্বাণী-যোগ্য রাজস্ব বৃদ্ধির দিকে মনোনিবেশ করছি, । এবং কোম্পানিটির কাস্টমার এবং এর শুভাকাঙ্ক্ষীদের সাথে দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্ক আমাদের লক্ষ্য।

গত দের বছর ধরে Intercom বড় বড় কোম্পানি গুলোকে জয় করতে চেয়েছিল এবং বর্তমানে, Facebook, Amazon, এবং Lyft এর মত কোম্পানি গুলো তাদের গ্রাহক। Peacock জানান বড় বড় কোম্পানি গুলোর লক্ষ্যই হওয়া উচিত কিভাবে এটি আরও বাড়ানো যায়। আমরা গত কয়েক বছরে নতুন অনেক কর্মী নিযুক্ত করেছি এবং সব সময় ভাল একটি কর্ম পরিবেশ দেওয়ার চেষ্টা করেছি।

এই করোনা মহামারি চলা কালীন সময়েও Intercom এর উদ্যোগ গুলোও ছিল প্রশংসনীয়। তারা মার্চে ঘোষণা করে, কোভিড-১৯ এর সাথে লড়াই করা এবং এই প্রাদুর্ভাব সম্পর্কিত সকল প্রকল্প এবং অ-লাভজনক প্রতিষ্ঠান গুলোকে তারা বিনা মূল্যে তাদের সার্ভিস প্রদান করবে।

তবে Intercom নিজেই এই মহামারীর প্রভাব থেকে মুক্ত ছিল না, তারা মে মাসে তাদের ৩৯ জন কর্মীকে ছাটাই করেছে। এটি তাদের খরচ কমানোর জন্য ভ্রমণ বাজেট বাদ দেওয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রকল্প আটকিয়ে রেখেছে।

এই পরিস্থিতিতে সব চেয়ে বেশি চাপে পড়েছে এর ছোট কোম্পানি গুলো কারণ ব্যয় কমানোর জন্য তাদের ব্যবহার কমানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। এত কিছুর পরেও কোম্পানিটিতে ছোট বড় সংস্থা মিলিয়ে রেকর্ড সংখ্যক গ্রাহক বৃদ্ধি পেয়েছে। আর ব্যবসায় যোগাযোগে রিয়েল টাইম মেসেজিং সার্ভিস এর চাহিদা মহামারীর আগে থেকেই ছিল।

Peacock বলেন, আমাদের প্রোডাক্ট এখন যেভাবে দরকার হচ্ছে এর আগে কখনো হয় নি। সামনে কয়েক মাসের মধ্যে আমরা কাস্টমার সাপোর্ট এর নতুন সার্ভিস বা প্রোডাক্ট নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছি। কারণ আমরা খেয়াল করেছি কাস্টমার সাপোর্ট এর আগের সার্ভিস গুলো এখন আর কাজ করছে না। তিনি আরও বলেন, “আমি যদি কোন সমস্যায় পড়ি তাহলে অবশ্যই সাপোর্ট টিকেট তৈরি করে বসে থাকবো না! কখন তারা রিপ্লাই দেবে তার অপেক্ষা করব না” আর এজন্যই এখন দরকার রিয়েল টাইম কোন কিছু যা আমরা অতিদ্রুত নিয়ে আসবো।

কর্মীদের জন্য সুস্থ এবং বৈচিত্র্যময় কর্ম পরিবেশ তৈরি বিনিয়োগটিতে অগ্রাধিকার পাবে। সংস্থাটি জুনে নাগরিক অধিকার বিক্ষোভ চলাকালীন কোম্পানির অভ্যন্তরে এবং বাইরে উভয়ই পদ্ধতিগত বর্ণবাদের নিন্দা জানিয়ে প্রকাশ্য বিবৃতি দিয়েছে। Karen Peacock বলেন আমি CEO হবার আগে এই সকল বিষয়ে ভাল করে গবেষণা করে এসেছি।

তিনি আরও জানান আমরা গত দুইমাস ধরে অভ্যন্তরীণ প্যানেলে আলোচনা করছি এবং ব্ল্যাকদের Voice রাইজ করার জন্য Podcast পর্ব প্রকাশ করছি। কিভাবে আরও বেশি বৈধভাবে প্রার্থী বাছাই করা যায় সে বিষয়ে আলাপ আলোচনা হচ্ছে।

সব মিলিয়ে নতুন CEO হিসাবে Intercom কে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে Karen Peacock বদ্ধপরিকর। তিনি দায়িত্ব পাবার পর থেকে কোম্পানির বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ আলোচনা করতে অধিক সময় ব্যয় করছেন Google Meet এবং zoom ভিডিও কনফারেন্সিং গুলোতে।

সর্বশেষ Peacock জানান, তিনি যদি এর Intercom এ আগে কাজ না করতেন তাহলে এই সব কিছু করা তার পক্ষে সহজ ছিল না। গত তিন বছর সবার কাছে থেকে টিম-ওয়ার্ক করার ফলেই তার দায়িত্ব পালন অনেকটাই সহজ হয়েছে এবং পরবর্তীতে কোম্পানির স্বার্থে আরও কার্যকরী সিদ্ধান্ত নেবেন।


টেকটিউনস টেকবুম – ১৯ জুলাই ২০২০

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *