ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৪৪ অপরাহ্ন
আপনি কী আপনার ইন্টারনেট প্রাইভেসি নিয়ে চিন্তিত? তাহলে ৯ টি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ যা আপনার ব্যবহার করা উচিত | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


হ্যালো টেকটিউনস জনগণ, কেমন আছেন আপনারা সবাই? টেকটিউনসের নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিস নিয়ে ভালো না থেকে আর উপায় আছে? আর এই নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিসের ধারা বজায় রাখার নিমিত্তে, আজকে আমি আপনাদের সাথে একদম নতুন একটি টপিক নিয়ে হাজির হলাম। আর আপনারা এই টিউনের মাধ্যমে জানতে পারবেন অনেক নতুন নতুন সব তথ্য। আজকে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ৯ টি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ যা আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজে  প্রাইভেসি রক্ষার জন্য ব্যবহার করতে পারি।

বর্তমানে, আপনি যেকোনো কিছু লিখে প্লে স্টোরে সার্চ করলেই অসংখ্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ এর সন্ধান পেয়ে যাবেন তা নিশ্চিত। আগামী সপ্তাহে আবহাওয়া কেমন হবে আপনি কি তা জানতে চান? কোন সমস্যা নেই। অথবা আপনি আপনার ডিভাইসের ফাইল সিস্টেমটি এক্সপ্লোর করতে চাচ্ছেন? এটাও খুবই সহজ। নাকি কয়েক ঘণ্টা হাই-কোয়ালিটির গেম খেলতে চান? প্লে স্টোরে এরকম হাজারো হাই কোয়ালিটির গেমস রয়েছে।

তবে প্লে-স্টোরে অসংখ্য অ্যাপ আছে যার অধিকাংশ অ্যাপই আমাদের বিনা অনুমতিতে আমাদের ডাটা নিয়ে যায়। আর তাই প্রাইভেসি হল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের মূল সমস্যা। তাছাড়া আপনারা আমাকে বলেন তো, একটি অ্যাপ ইন্সটল করার আগে আপনারা সেই অ্যাপ এর প্রাইভেসি এবং সিকিউরিটি নিয়ে একটু রিসার্চ করে দেখেছেন কি? আমি নিশ্চিত যে আপনাদের মাঝে অনেকের-ই প্রাইভেসি এবং সিকিউরিটি নিয়ে ততটা মাথাব্যথা নাই।

কিন্তু আমাদের এই প্রাইভেসি এবং সিকিউরিটি নিয়ে গাঁ ছাড়া ভাবের কারণে প্লে স্টোরে হাজারো অ্যাপস রয়েছে যা আমাদের প্রাইভেসির জন্য খুবই হুমকি স্বরূপ। সুতরাং, প্লে স্টোর এর প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যাপ গুলো নিয়ে কথা বলার এখন ই যথার্থ সময়। তাহলে প্লে স্টোর ঘুরে দেখে আসি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি  কি কি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ রয়েছে।

এখানে আমি বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুযায়ী প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যাপ গুলো তুলে ধরেছি। যারা নিজেদের প্রাইভেসি এবং সিকিউরিটি নিয়ে চিন্তা করেন ও প্রাইভেসি এবং সিকিউরিটি প্রাকটিস করেন তাদের জন্য সত্যিই এটি দারুন কাজের একটি টিউন।

১. কীবোর্ড: AnySoftKeyboard

আপনি হয়তো খেয়াল করে দেখেছেন যে, অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ডিফল্ট কীবোর্ড, মাঝেমধ্যে ফোন কল দেবার সময় আপনার Wi-Fi কানেক্টশন ব্যবহার করে থাকে।  যেটি প্রাইভেসির জন্য কিছুটা সমস্যাই বটে।

AnySoftKeyboard হচ্ছে একটি ওপেন-সোর্স কীবোর্ড অ্যাপ আর এটি ব্যবহার করতে আপনাকে ইন্টারনেট অ্যাক্সেস পারমিশন দিতে হবে না। সাধারণত যেকোন ওপেন সোর্স কীবোর্ডকে হ্যাকারের কী-বোর্ড হিসেবে বিবেচনা করা হয়, কেননা সেই সব অ্যাপ ইন্টারনেট পারমিশন নিয়ে আপনার গোপনীয় সব তথ্য হাতিয়ে নিয়ে যেতেপারে। তবে সেই সব অ্যাপ থেকে AnySoftKeyboard একদমই আলাদা, অনেক বেশি ফিচার সমৃদ্ধ ও প্রাইভেসি ও সিকিউরিটি ফ্রেন্ডলি তো বটেই।

এই কীবোর্ড অ্যাপটিতে একাধিক ল্যাঙ্গুয়েজ সাপোর্ট করে, swipe-to-type ফিচার, প্রিডিক্টিভ টেক্সট ফিচার, ভয়েস ইনপুট ফিচার, অসংখ্য থিম এবং আরও অসংখ্য ফিচার রয়েছে।

ডাউনলোড: AnySoftKeyboard  (Free)

২. ব্রাউজার: DuckDuckGo

DuckDuckGo আমরা সবাই চিনি তাই নিশ্চয়ই নতুন করে এর সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। এটি বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় একটি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি সার্চ ইঞ্জিন। আর এই অ্যাপটির অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনটি হচ্ছে এমন একটি ব্রাউজার যা শুধুমাত্র DuckDuckGo সার্চ ইঞ্জিন এর মাধ্যমে ব্রাউজিং করে থাকে।

এই অ্যাপটির সবচেয়ে ভাল দিক হচ্ছে, এটি আপনার cookies ব্যবহার করে না ফলে আপনি ওয়েব সাইটে কি কি করছেন তাও ট্রাক করে না, তারপর এটি আপনার পার্সোনাল ইনফরমেশন কালেক্ট করে না, এছাড়াও আপনার করা সার্চ গুলো লগ আকারে সেভ করে না, আর আপনি যেই সব ওয়েব সাইটে ভিজিট করেছেন সেই সব ওয়েব সাইটে আপনার আসল IP অ্যাড্রেসটি অটোমেটিক্যালি হাইড করে রাখে।

তবে DuckDuckGo ব্যবহার করে আপনি যখন অস্পষ্ট কোন কিছু লিখে সার্চ দেন তখনই কেবল এই সার্চ ইঞ্জিন এর খারাপ দিকটি আপনার চোখে পরবে। কিন্তু এই ক্ষেত্রে গুগল খুবই ভাল পারফর্ম করে যা আপনারা আগে থেকেই জানেন। আর এই সমস্যার সমাধান হিসেবে আপনারা StartPage Private Search অ্যাপটি ব্যবহার করে গুগল থেকে সার্চ করতে পারবেন। আর এর ফলে আপনি Google এবং Bing সার্চ ইঞ্জিনে গোপনীয়তা রক্ষা করে সার্চ করতে পারবেন।

ডাউনলোড: DuckDuckGo (Free)

৩. ইনস্ট্যান্ট মেসেঞ্জার: Telegram

WhatsApp এবং অন্যান্য ইনস্ট্যান্ট মেসেঞ্জার এর বিকল্প অ্যাপ এর মধ্যে Telegram অন্যতম একটি ইনস্ট্যান্ট মেসেঞ্জার অ্যাপ। Telegram এর মত WhatsApp ও এনক্রিপ্ট করা চ্যাট ব্যবহার করে থাকে তবে আমরা জানি যে WhatsApp ফেসবুক কর্তৃপক্ষ দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। তাছাড়া আমরা এও জানি যে প্রাইভেসি নিয়ে জুকারবার্গের কোম্পানির বেশকিছু স্ক্যান্ড্যাল রয়েছে। যার ফলে অনেক বারই ফেসবুক থেকে আমাদের তথ্য হ্যাক হয়েছে।

অপরপক্ষে Telegram কোন সামাজিক যোগাযোগ কোম্পানির মাধ্যমের পরিচালিত হয় না। তাছাড়া এই অ্যাপটি মাত্র আড়াই বছরে 100 মিলিয়নেরও বেশি একটিভ ব্যবহারকারী ব্যবহার করছে এবং খুব দ্রুতই এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে।

এছাড়াও এই অ্যাপটিতে সিকিউরিটি হিসেবে 256-bit symmetric AES এনক্রিপশন, 2048-bit RSA এনক্রিপশন এবং Diffie-Hellman secure key exchange সিস্টেম ব্যবহার করে, যাতে করে আপনাদের মেসেজ এবং ডাটা গুলি সুরক্ষিত রাখতে পারে।

এছাড়াও WhatsApp থেকে এটা অনেক দ্রুত কাজ করে। এই অ্যাপটি আপনার নিকটবর্তী ডাটা সেন্টার এর নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে কয়েক ন্যানো সেকেন্ডের মধ্যে আপনার মেসেজটি রিসিভার এর মোবাইলে সেন্ড করতে পারে।

আর এই অ্যাপ এর ইউনিক ফিচার হচ্ছে সিঙ্ক টাইপিং। এই ফিচারের সাহায্যে আপনি আপনার ফোনে মেসেজ লেখা শুরু করবেন এবং সেই ম্যাসেজটি আপনি আপনার কম্পিউটারে শেষ করতে পারবেন।

ডাউনলোড: Telegram (Free)

৪. অ্যাপ স্টোর: F-Droid

আমরা যারা প্রাইভেসি সচেতন আছি তাদের জন্য গুগল প্লে স্টোর হচ্ছে একটি বিপদের নাম। কারণ আপনি কোন ডিভাইসে কি ইন্সটল করেছেন, আপনি ইন্সটল করার সময় আপনি কোথায় ছিলেন, কোন লিঙ্ক বা ওয়েবসাইট আপনাকে অ্যাপের ইন্সটলেশন পেইজে নিয়ে গেছে, আপনি কতবার আপনার অ্যাপ্লিকেশন আপডেট করেন এবং আরও এই সম্পর্কিত আরও অনেক কিছু গুগল জানে।

আর এ কারণেই আপনি যদি প্রাইভেসি ফেন্ডলি অ্যাপ স্টোর খুঁজে থাকেন তাহলে F-Droid অ্যাপ স্টোরটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। কারণ এই অ্যাপ স্টোর আপনাকে বা আপনার ডিভাইসটি কে ট্র্যাক করে না, অ্যাপ ডাউনলোড করতে আপনার অ্যাকাউন্টের এর প্রয়োজন নেই এবং যেইসব অ্যাপ আপনাকে ট্র্যাক করে সেইসব অ্যাপ ডিফল্ট রূপে স্টোর থেকে হাইড করা থাকে। আপনি যদি এই ফিচারটি ব্যবহার করতে চান তাহলে প্রথমে অ্যাপ এর সেটিং এ গিয়ে  Preferences > AntiFeatures > Tracking অপশনটি এনাবেল করুন।

সর্বোপরি, F-Droid স্টোরে যতগুলি অ্যাপ রয়েছে তা সবই ওপেন সোর্স অ্যাপ। ফলে আপনি যদি একজন ট্যালেন্টেড প্রোগ্রামার হন তবে আপনি নিজেই সমস্ত অ্যাপ এর সোর্স কোড গুলো চেক করে দেখতে পারেন ফলে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন যে তারা আপনার কোন পার্সোনাল ডাটা’ই ফাঁস করে না।

তবে এই অ্যাপ স্টোরের খারাপ দিকটি হ’ল, আপনি প্রতিদিন যেসব অ্যাপগুলি ব্যবহার করেন, সম্ভবত এই অ্যাপ স্টোরে সেই সব অ্যাপ খুঁজে পাবেন না।

ডাউনলোড: F-Droid (Free)

৫. ক্যালেন্ডার: Simple Calendar

এই ক্যালেন্ডার অ্যাপটি সিম্পল মোবাইল টুলস এর মাধ্যমে ডিজাইন করা হয়েছে,  প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যাপ রিলিজ করার জন্য এই প্রোজেক্টটি ডেডিকেট করা হয়েছে। আর অ্যান্ড্রয়েড স্টক ক্যালেন্ডার অ্যাপের জন্য এই সিম্পল ক্যালেন্ডার অ্যাপটি ই উপযুক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী।

আর এই অ্যাপটি সম্পূর্ণ এড ফ্রি এবং ঠিকঠাক ভাবে কাজ করার জন্য এই অ্যাপটি খুব কম পারমিশন ব্যবহার করে। ডিফল্ট ভাবে, আপনার ফটো এবং কন্টাক্টে অ্যাক্সেস এর পারমিশন এনাবল করা থাকে কিন্তু এই পারমিশন শুধুমাত্র এই জন্য নেওয়া হয় যে, অ্যাপটি যেন আরও কার্যকর ভাবে কাজ করতে পারে। তাছাড়া আপনি চাইলে এই অতিরিক্ত পারমিশনগুলি ডিজেবল করতে পারবেন আর এরপরেও অ্যাপটি তার মূল ফাংশন গুলো ঠিকঠাক ভাবে কাজ করবে।

ডাউনলোড: Simple Calendar (Free)

৬. ফিটনেস অ্যাপ: Pedometer

ফিটনেস ক্যাটাগরির অ্যাপগুলি প্রায়ই ইউজারের ডেটা প্যারেন্ট কোম্পানিতে সেন্ড করে থাকে। সাধারণত এই ধরনের অ্যাপে, GPS লোকেশন, আপনি কোথায় ট্রাভেল করেছিলেন এবং আপনি আপনার পার্সোনাল ইনফরমেশন যা অ্যাপে ইনপুট করেছেন  যেমন: উচ্চতা, ওজন এবং লিঙ্গ ইত্যাদি ডাটা সংরক্ষণ থাকে।

আপনি যদি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি ফিটনেস ট্র্যাকার খুঁজে থাকেন, তাহলে Pedometer অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। আর এই অ্যাপটি Technische Universität Darmstadt এর SECUSO privacy research group এর দ্বারা ডেভেলপ করা হয়েছে, তবে অ্যাপটি চালাতে শুধুমাত্র দুইটি পারমিশন এনাবল করতে হবে: একটি হল Run at startup এবং আরেকটি হল prevent phone from sleeping। আর অ্যাপটির সবচেয়ে ভাল দিক হচ্ছে এটি সম্পূর্ণ এড ফ্রি।

এই অ্যাপটির মাধ্যমে, দৈনিক আপনি কতটুকু পায়ে হাটা-হাটি করেছেন এবং কতটুকু ক্যালোরি আপনার শরীর থেকে বার্ন হল তা জানতে পারবেন। আর এই সমস্ত ডাটা সুন্দর এবং চার্টের মাধ্যমে দেখানো হয় যাতে আপনি সহজেই বুঝতে পারেন। এমনকি আপনি আপনার পছন্দের স্টাইল অনুযায়ী বিভিন্ন হাঁটার মোডে কাস্টমাইজ করতে পারবেন অনায়াসেই।

ডাউনলোড: Pedometer (Free)

৭. ওয়েদার: Weather

এই অ্যাপটির নাম রাখা হয়েছে Weather যা Technische Universität Darmstadt এর অন্য একটি অ্যাপ্লিকেশন।

এই অ্যাপটি OpenWeatherMap ডেটা ব্যবহার করে আবহাওয়ার তথ্য দিয়ে থাকে, অ্যাপ টি বর্তমান তাপমাত্রার পাশাপাশি তিন ঘণ্টা এবং পাঁচ দিনের পূর্বাভাস দেখিয়ে থাকে।

অ্যাপের মাধ্যমে আপনি আপনার লোকেশন গুলি সেভ করে রাখতে পারবেন, তবে আপনি লোকেশন গুলিকে “অস্থায়ী” ভাবে সেভ ও করতে পারবেন। “অস্থায়ী” ভাবে সেভ করার অর্থ হল, আপনি সেই লোকেশন ছেড়ে যাওয়ার সাথে সাথেই আবহাওয়ার ডেটা অটোমেটিক্যালি মুছে ফেলা হবে। আর অ্যাপের মধ্যেও কোন সার্চ দেওয়ার প্রমাণ থাকবে না।

ডাউনলোড: Pedometer (Free)

৮. ফাইল ম্যানেজার: OI File Manager

গুগল প্লে স্টোরের OI File Manager হল এমন একটি অ্যাপ যা একদম ফ্রি এবং ফুল ফিচার ও সহজেই ব্যবহার করা যায়। সবচেয়ে বড় কথা হল এই অ্যাপ হচ্ছে প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি। এছাড়াও এই অ্যাপটি সম্পূর্ণ বিজ্ঞাপণ মুক্ত এবং ইন্টারনেট অ্যাক্সেস এর কোন পারমিশন এই অ্যাপ এর দরকার হয় না।

আপনারা আগেই জানেন যে এই অ্যাপটি ও ওপেন সোর্স। আপনাদের কোন তথ্য ফাঁস হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য আপনি এই অ্যাপটি ইন্সটল করার আগে সোর্স কোড চেক করে দেখতে পারেন।

OI File Manager এর মাধ্যমে আপনি ডিরেক্টরি তৈরি, রি-নেম, কপি, মুভ এবং ডিলিট করতে পারবেন। এছাড়াও আপনি পেন-ড্রাইভ সহ সকল রিমুভ্যাবল স্টোরেজ ব্রাউজ করতে পারবেন সহজেই। সর্বশেষ আপডেটে এই অ্যাপটি Open With এবং Save menu আইটেম এর এক্সটেনশন যুক্ত করেছে।

ডাউনলোড: OI File Manager (Free)

৯. গেম: Memo

Memo হচ্ছে জনপ্রিয় ব্রেইন ট্রেইনিং গেমগুলির মধ্যে একটি।

গেমটি খেলা একদমই সোজা – আপনকে এক জোড়া কার্ড সিলেক্ট করতে হবে যা দেখতে একই রকম হবে। গেমটির মাধ্যমে আপনি আপনার ধৈর্য এবং স্মৃতির পরীক্ষা করতে পারবেন। এমনকি আপনি গেমের ডিফল্ট ইমেজ এর স্থানে আপনার নিজের ইমেজ ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া এই গেমটিতে তিনটি ডিফিকাল্টি লেভেল আছে, তা হচ্ছে: ৪ × ৪ বোর্ড, ৬ × ৬ বোর্ড এবং ৮ × ৮ বোর্ড।

সুতরাং, কি কারণে এই অ্যাপটি অন্যান্য অ্যাপ থেকে আলাদা? কারণ, এই গেমটি খেলার জন্য আপনারকে কোন পারমিশন দিতে হবে না ফলে আপনার ডাটা থাকবে নিরাপদ। এই গেমের ডেভেলপাররা গুগল প্লে স্টোরের একই ধরনের গেমগুলির সাথে এই গেমের কম্পেয়ার করেছিল। তারা এর ফাইন্ডিংস হিসেবে যা পেয়েছিল তা হল, প্লে স্টোরের টপ ১০ টি অ্যাপে পারমিশনের গড় ৩.৯ টিতেই পারমিশনের ছিল।

ডাউনলোড: Memo (Free)

আপনি কোন প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করবেন?

আমি এই টিউনে ৯ টি প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি অ্যাপ নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি, আপনারা এই অ্যাপ গুলি ডাউনলোড করতে পারবেন একদম ফ্রিতে এবং সব গুলো অ্যাপই এড ফ্রি। আর সবচেয়ে বড় কথা হল সবগুলো অ্যাপ প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি ফলে আপনার পার্সোনাল ইনফরমেশন থাকবে একদম নিরাপদ এবং আপনি থাকবেন একেবারে চিন্তামুক্ত।

টিউন জোসস করুন, আমার টিউন শেয়ার করুন, টেকটিউনসে আমাকে ফলো করুন, আপনাদের মতামত জানান

আমি এরকম নিত্যনতুন কাজের সফটওয়্যার নিয়ে টেকটিউনসে হাজির হবো নিয়মিত। তবে সে জন্য আপনার যা করতে হবে তা হলো আমার টেকটিউনস প্রোফাইলে আমাকে ফলো করার জন্য ‘Follow’ বাটনে ক্লিক করুন। আর তা না হলে আমার নতুন নতুন টিউন গুলো আপনার টিউন স্ক্রিনে পৌঁছাবে না।

আমার টিউন গুলো জোসস করুন, তাহলে আমি  টিউন করার আরও অনুপ্রেরণা পাবো এবং ফলে ভবিষ্যতে আরও মান সম্মত টিউন উপহার দিতে পারবো।

আমার টিউন গুলো শেয়ার বাটনে ক্লিক করে সকল সৌশল মিডিয়াতে শেয়ার করুন। নিজে প্রযুক্তি শিখুন ও অন্য প্রযুক্তি সম্বন্ধে জানান টেকটিউনসের মাধ্যমে।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *