ঢাকা, মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন
AWS কি? AWS এর সেবা আমরা কেন গ্রহন করবো? | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


হ্যালো টেকটিউনস কমিউনিটির সদস্যরা, কেমন আছেন আপনারা সবাই? আশাকরি সৃষ্টিকর্তার রহমতে আপনারা সবাই ভালোই আছেন। বরাবরে মত আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি নতুন কোনো একটি নিয়ে। আশাকরি আমার এই টিউনটি আপনাদের সামান্যতম জ্ঞান বৃদ্ধির কারণ হবে। যদি আপনারা অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস সম্পর্কে জানতে চান তাহলে মনোযোগ সহকারে পড়ে ফেলুন আজকের এই টিউন। নিঃসন্দেহে আপনার সময়ের অপচয় হবে না এই টিউনটি পড়ে।

ক্লাউড কম্পিউটিং এ নানা ধরনের আন্তর্জাতিক পরিষেবা নেতৃত্ব দিচ্ছে। এসব আন্তর্জাতিক পরিষেবা কারিদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ এক নেতৃত্বকারী অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস। অ্যামাজন ক্লাউডে নানা ধরনের পরিষেবা প্রদান করে থাকে যা ক্লাউড এর জন্য নিত্যান্তই প্রয়োজনীয়।

সময়কাল ২০০২ এর জুলাই মাসে AWS জন সম্মুখে প্রকাশ পায়। এটি জনগণের ব্যবহারে জন্য উন্মুক্ত করা হয় ২০০৪ সালে এবং এর তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন ক্রিস পিঙ্কহাম ও বেঞ্জামিন ব্ল্যাক। পরবর্তী সময়কালে পিঙ্কহাম ও ক্রিস্টোফার ব্রাউন এর EC2 পরিষেবা গঠন করা হয় দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন শহরে।

আসুন আমরা জেনে নিই কেন আমরা AWS এর সেবা গ্রহন করবো? আমাদের কাছে তো অনেক গুলো ক্লাউড প্রভাইডার আছে। যেমন- Microsoft Azure, Amazon Web Services, RackSpace, Salesforce, VMware। যদিও এসব ক্লাউড প্রোভাইডারদের মধ্যে সবগুলোই গুরুত্বপূর্ণ তারপরেও AWS এর সেবাই কেন আমরা গ্রহন করবো? আজকের এই টিউন এর মাধ্যমে আমরা এ বিষয় সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা নেয়ার চেষ্টা করবো। ইনশাআল্লাহ।

আমরা AWS এর সেবা এই জন্যই নিব কারণ এটা সবচেয়ে পুরাতন ও বিশ্বাসযোগ্য ক্লাউড প্রভাইডার। বাজারে সবগুলো ক্লাউড প্রভাইডারের মধ্যে AWS ক্লাউড প্রভাইডার 33% জায়গা দখল করে রেখেছে। AWS ক্লাউড প্রভাইডার হিসেবে এর দক্ষতা বেশি। আসুন আমরা জেনে নিই পাঁচটি কারণ যে কারণে আমরা AWS এর সেবা নিব। প্রথম কারণ সিকিউরিটি এ সম্পর্কে জেনে নিই।

১. Security:

যখন আমরা কোন অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করি বা উন্নত করি তখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আসে সিকিউরিটি। সিকিউরিটি একটি প্রধান গুরুত্বপূর্ণ বিষয় প্রতিটি অ্যাপ্লিকেশনে। কারণ আপনার অ্যাপ্লিকেশনটি যদি সিকিওর না হয় তাহলে এটা হ্যাক হতে পারে। ইন্টারনেট জগতে বেশকিছু ডোমেইন আছে যেগুলোর জন্য সিকিউরিটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যদি আমরা কথা বলি ব্যাংকিং ডোমেইন অথবা যদি আমরা কথা বলি মেডিকেল ডোমেইন অথবা যদি আমরা কথা বলি ফাইন্যান্স ডোমেইন এসব ক্ষেত্রে সিকিউরিটি সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি আপনার অ্যাপ্লিকেশনটি সিকিউর না হয় তাহলে আপনার অ্যাপ্লিকেশনটি বিশ্বাসযোগ্য নয়। যোগ্য না হলে আপনি আপনার অর্থের সংরক্ষণ বা হেফাজত করবেন কিভাবে। আপনার তথ্য নিরাপদে থাকবে কিভাবে। এসব ক্ষেত্রে AWS থেকে আপনি পাবেন সর্বোচ্চ নিরাপত্তা বা হাই সিকিউরিটি, নিঃসন্দেহে বিশ্বাসযোগ্য এবং সকল কমপ্লেইন এর পরিপূর্ণ সমাধান। কারণ AWS খুব বেশি দক্ষতা ইতোমধ্যে অর্জন করে নিয়েছে। AWS এ অনেক সেবাই আপনি পাবেন যা আপনার অ্যাপ্লিকেশনকে সিকিউর করবে। তো এই কারণেই আমরা AWS কে ভাড়া নিতে পারি বা ব্যবহার করতে পারি সেবা নিতে। কারণ এটা সবচেয়ে বেশি সিকিউর সার্ভিস।

২.API:

API এর পুর্ণরুপ হচ্ছে Application Programming Interface। এটি হচ্ছে কয়েকটি গুচ্ছ কাজের সমষ্টি যা কোনো কম্পিউটার, লাইব্রেরি বা অ্যাপ্লিকেশন বলা যেতে পারে যা অন্য অ্যাপ্লিকেশনকে সেবা বা তথ্য বিনিময়ের জন্য প্রস্তুত থাকে। সফটওয়্যার তৈরিকারী বা ডেভলপকারী কোম্পানী গুলো সাধারণত API তৈরি করে থাকে। প্রত্যেকটি বিষয় আজ এপিআই এর উপর নির্ভরশীল। কারণ আমরা প্রতিটি অ্যাপ্লিকেশনের জন্য একটি এপিআই তৈরি করতে চাই যাতে করে ঐ অ্যাপ্লিকেশনটির জন্য প্রয়োজনীয় মাইক্রো সুবিধা গুলো পেতে পারি। এপিআই প্রত্যেকটি অ্যাপ্লিকেশনকে মাইক্রো সার্ভিস এ কনভার্ট করে এবং ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাগে ভাগ করে। এর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ AWS। কারণ AWS এর অনেক সেবায় চালু হয়েছে যা এপিআই লিংক প্রোভাইড করে বা ডেটাবেজ রয়েছে যা এপিআই লিংক প্রোভাইড করে। আপনি যদি আপনার অ্যাপ্লিকেশন থেকে খুব তাড়াতাড়ি ডেভলপ করতে চান তাহলে আপনার প্রয়োজন হবে API। সুতরাং API এর জন্য AWS এ বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস বা সেবা রয়েছে যেগুলোর কিছু কিছু মাইক্রো সার্ভির এবং কিছু ডিপলয় করার জন্য। আপনার অ্যাপ্লিকেশনের ব্যাকআপের জন্য অনেক কৌশলই রয়েছে AWS এর বিভিন্ন সেবাগুলোতে।

৩. Recovery:

ইন্টারনেট জগতে অনেক অনেক ক্ষেত্রে আমাদের বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ডাউন হয়ে যায় বা ডাটাবেজ উধাও হয়ে যায় বা কখনো কখনো সঠিক ভাবে তা কাজ করে না। ফলে আমাদের বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণের প্রয়োজন বলে। এক্ষেত্রে AWS এর অনেকগুলো সেবা রয়েছে। এক্ষেত্রে এসব বিষয় AWS পরিচালনা করে থাকে। AWS এর কাছে অনেক Versatile platform রয়েছে যেগুলো আপনার অ্যাপ্লিকেশন বা ডেটাকে ব্যাকআপ করে রাখে, আপনার অ্যাপ্লিকেশন কে ম্যানেজ করে রাখে, আপনার অ্যাপ্লিকেশনের কপি বানিয়ে রাখে। যাতে করে আপনি দৈনন্দিন কার্যক্রমে বিপদে না পড়ে। AWS আপনার অ্যাপ্লিকেশনের একটি ব্লুপ্রিন্ট মডেল নিয়ে চলে যাতে করে তা যদি অন্য কোন সার্ভারে না চলে তাহলে অন্য কোন সার্ভারে তা চলতে পারে। অর্থাৎ আপনার ডাটা বা অ্যাপ্লিকেশন রিকভার করার জন্য অনেক ধরনের টুলস আপনি পাবেন AWS এ।

৪.Pricing:

আপনি যদি AWS থেকে সেবা নিতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে এর জন্য কিছু পে করতে হবে। Pricing এর ব্যাপারে AWS অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। AWS এর সবচেয়ে বড় সুযোগ হচ্ছে এক বছরের জন্য Free tier পাওয়া যায়। অর্থাৎ এক বছর আপনাকে আমাজন ওয়েব সার্ভিসের যতো সুযোগ সুবিধা আছে তার সবকিছু গ্রহন করতে কোন অর্থ প্রদান করতে হবে না। দ্বিতীয় প্রধান সুবিধাটি হচ্ছে আপনি এখান থেকে যতটুকু সেবা গ্রহণ করবেন ততটুকুই অর্থ আপনাকে প্রদান করতে হবে। এর একচুল বেশিও না কমও না। অর্থাৎ এখানে Pay as you go অপশনটি খোলা রয়েছে যাতে করে আপনি যতোটুকু সেবা গ্রহণ করেন ততটুকু অর্থ প্রদান করতে পারেন। অর্থাৎ আপনি যদি এখান থেকে আধঘন্টা সেবা গ্রহণ করেন তাহলে এই আধঘন্টার জন্য যত টাকা বিল হয়েছে ততো টাকায় পে করতে হবে। AWS তৃতীয় বৃহৎ সুবিধাটি হচ্ছে আপনি যত বেশি ইউজ করবেন ততো আপনাকে কম অর্থ প্রদান করতে হবে। অর্থাৎ আপনাকে যদি এক মিনিটের জন্য এক ডলার করে পে করতে হয় তাহলে হাজার মিনিট পরে এক মিনিটের জন্য হয়তো আপনাকে.৭৫ ডলার পে করতে হবে।

৫.Scalability:

আমাজন ওয়েব সার্ভিসে Scalability একটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্ট। ধরেন যে আপনার অ্যাপ্লিকেশনটির উপর কখনো লোড বেশি পড়ে কখনো লোড কম পরে। এই রকম সমস্যা আপনি কীভাবে দূর করবেন স্ক্যাল্যাবিলিটি এর মাধ্যমে?

এ রকম সমস্যার জন্য আপনার চাই অটো Scaling Module যা আপনার অ্যাপ্লিকেশনের উপর বেশি লোড পড়লে সার্ভার বৃদ্ধি করবে আর যদি কখনো লোড কম পড়ে তাহলে সার্ভার কমিয়ে ফেলবে। যদি আপনার এক্সট্রা মেমোরির ও প্রয়োজন পড়ে তাহলে এটা অটোমেটিক মেমোরি বৃদ্ধি করবে বা অ্যাড করবে এবং প্রয়োজন শেষ হলে তা রিমুভ করবে। এ ধরনের Module কে Scalable Module কারণ এটাকে আপনি যেকোন দৈর্ঘ্য পর্যন্ত প্রসারিত করতে পারেন অথবা সংকুচিত করতে পারেন। আর এখানে এসব বিষয়ে অটোমেটিক নিয়ন্ত্রণ করা আরও একটি বড় ধরনের বিষয়। আর এ সকল সেবা প্রদানে আমাজন ওয়েব সার্ভিস অনেক বড় একটি প্ল্যাটফর্ম।

তো এই ভাবেই আমাজন ওয়েব সার্ভিস আমাদেরকে বেস্ট সলিউশন প্রোভাইড করে যাতে করে আমরা অ্যাপ্লিকেশন টিকে ডিপলয় করতে পারি। সবকিছুর সংক্ষেপণ করে একটা কথাই বলা যায় যে আমাজন ওয়েব সার্ভিস এর কাছে ঐ সকল সেবা রয়েছে যা একটি অ্যাপ্লিকেশনের মালিকের থাকা চাই বা যে অ্যাপ্লিকেশন ডেভলপ করে তার কাছে থাকা চাই। সুতরাং আমরা উপরোক্ত কারণগুলোর কারণে আমাজন ওয়েব সার্ভিসের সেবা গ্রহণ করব যদি তা নিতান্তই আমাদের প্রয়োজন পড়ে।

তো বন্ধুরা এই ছিল আজকের টিউন। আশাকরি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। ভাল লাগলে একটি জোসস দিয়ে আমাকে ধন্য করবেন। টিউন সম্পর্কে কোন মন্তব্য থাকলে টিউমেন্ট করে অবশ্যই আমাকে জানাবেন। আমার টিউনটি সবার প্রথমে দেখতে চাইলে আমাকে টিউমেন্ট করে জানাবেন। দেখা হয়েছে পরবর্তী কোন এক টিউনে। সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। আজকের মত বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ হাফেজ।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *