ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৭ অপরাহ্ন
যে সেটিংস টি চালু থাকলে ফেসবুকে আপনাকে কেউ দেখতে পাবে না | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


আসসালামু আলাইকুম। বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই? আশা করছি আপনারা সকলেই আল্লাহর রহমতে অনেক বেশি ভালো আছেন। বর্তমানে আমরা সকলেই কম বেশি ফেসবুক ব্যবহার করি। তাই আজকের আমার টিউনটি হবে ফেসবুকের ছোট্ট একটি ট্রিক্স নিয়ে।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছে যে, যারা দিনের বেশিরভাগ সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করে। ইন্টারনেট ব্যবহার না করলেও দেখা যায় যে, দিনের সারাক্ষণ মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন চালু করে রাখে। আর এক্ষেত্রে এখানেই বাধে বিপত্তি। যখন মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন চালু রাখা হয় এবং সেই অবস্থায় ফেসবুকে লগইন থাকে, তবে এক্ষেত্রে অন্যান্য ফেসবুক বন্ধুদের কাছে আপনাকে অ্যাক্টিভ দেখায়। এভাবে করে দিনের বেশিরভাগ সময় মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ চালু রাখার ফলে অনেকে ভাবতে শুরু করে, আপনি বোধহয় সারাদিন ফেসবুক ব্যবহার করেন কিংবা ইন্টারনেটের সময় কাটিয়ে থাকেন।

আপনার আত্মীয়-স্বজন কিংবা বন্ধুবান্ধব যদি ফেসবুকে আপনাকে অ্যাক্টিভ না দেখতো, তবে তারা ধরেই নিত যে আপনি হয়তোবা বর্তমানে ইন্টারনেট চালাচ্ছেন না, কিংবা ফেসবুকে অ্যাক্টিভ ই নন। ইন্টারনেটে এভাবে নজরদারির একমাত্র মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক বলা চলে। আপনার মোবাইলের যদি ইন্টারনেট সংযোগ চালু থাকে, তবে আপনার আত্মীয়-স্বজন বা বন্ধুবান্ধব তাদের প্রোফাইল থেকে আপনাকে অ্যাক্টিভ দেখার কারণে তারা ধরে নেয় যে, আপনি বর্তমানে ফেসবুকে বা ইন্টারনেট অ্যাক্টিভ রয়েছেন। তবে এটা কিন্তু তাদের ক্ষেত্রে ভুল ধারণা ও হতে পারে। কেননা আপনি এ সময় শুধুমাত্র আপনার মোবাইলের ইন্টারনেট সংযোগ চালু করে রেখেছেন, এক্ষেত্রে আপনি ইন্টারনেট চালাচ্ছেন না।

তবে এক্ষেত্রে আপনার আত্মীয়-স্বজন বা বন্ধুবান্ধব ধরে নিতে পারে আপনি বর্তমানে ইন্টারনেটে রয়েছেন। ‌ কিন্তু কোনভাবে যদি ফেসবুকের অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করে রাখা যেত, তবে আপনাকে হয়তোবা কোনো ঝামেলার সম্মুখীন ই হতে হতো না। এক্ষেত্রে অপ্রয়োজনে আপনার বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে কথা বলতে হতো না এবং আপনার আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকেও বকা শুনতে হতো না বেশি বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য। বন্ধুরা, আজকের এই টিউনে আমি আপনাদেরকে সেই বিষয়টি সম্পর্কেই শেখাতে চলেছি। আজকের এই টিউন এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন, কিভাবে আপনি ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাস বন্ধ করে রাখবেন।

ফেসবুকের Active status যেভাবে বন্ধ করে রাখবেন

ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাস বন্ধ করার জন্য আপনাকে তিন জায়গা থেকে এটি বন্ধ করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি যদি Facebook official অ্যাপ এবং Facebook lite দুইটি অ্যাপ ব্যবহার করেন, তবে আপনাকে দুইটি অ্যাপ থেকেই অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করতে হবে। এছাড়া ফেসবুকে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে মেসেঞ্জার থেকেও আপনাকে একটিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করতে হবে। এই টিউনে আমি আপনাদেরকে তিনটি অ্যাপ থেকেই Active status বন্ধ করার প্রক্রিয়াটি দেখাবো। চলুন তবে, কথা না বাড়িয়ে এবার মুল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক।

Facebook official অ্যাপে Active status বন্ধ করবেন যেভাবে

আপনি যদি শুধুমাত্র আপনার মোবাইলে ফেসবুক অফিশিয়াল অ্যাপ টি ব্যবহার করে থাকেন, তবে এই অ্যাপটি থেকে Active status বন্ধ করে রাখলেই চলবে। এক্ষেত্রে আপনাকে ফেসবুক লাইট অ্যাপ থেকে আর বন্ধ করতে হবে না। চলুন তবে এবার দেখে নেয়া যাক।

১. এজন্য প্রথমে আপনাকে চলে যেতে হবে ফেইসবুক অফিশিয়াল অ্যাপ্লিকেশন টিতে এবং এখান থেকে আপনাকে সেটিং এ চলে যেতে হবে। ফেসবুক সেটিং এ প্রবেশ করার জন্য অ্যাপ এর উপরের মেন্যু বারে ক্লিক করবেন; যেমনটি আপনি নিচের প্রথম চিত্রে দেখতে পাচ্ছেন। এরপর আপনাকে চলে যেতে হবে Setting & Privacy অপশন থেকে Setting-এ।

২. এরপর সেটিং থেকে একটু নিচে চলে আসলে পেয়ে যাবেন Active status নামের একটি সেটিং; এবার আপনি এই সেটিং টিতে চলে যাবেন।

৩. এবার এখানে আপনি দেখতে পাবেন “Show when you’re active” জায়গাটিতে এটি চালু করে দেওয়া রয়েছে; যেমনটি আপনি নিচের পদ্ধতি চিত্র দেখতে পাচ্ছেন। এবার আপনি Active status বন্ধ করার জন্য এখান থেকে ক্লিক করবেন। এখানে ক্লিক করার পর পরবর্তী পেজে নিচের দ্বিতীয় চিত্রের মত “Trun off” বাটন পাবেন। ‌এবার আপনি এখানটাতে ক্লিক করবেন। আর তাহলেই আপনার কাজ শেষ।

এখন থেকে আপনাকে ফেসবুকে আর কেউ অ্যাক্টিভ দেখতে পাবেনা। যারা ফেসবুকের মেসেঞ্জার ব্যবহার না করে ফেসবুক অ্যাপ টি থেকে মেসেজ করে থাকে, তারা সেখানে গেলে তাদের বন্ধু তালিকার অ্যাক্টিভ বন্ধুদের কে দেখতে পারে। এমনভাব আপনার কোন বন্ধু যদি ফেসবুক মেসেঞ্জার অ্যাপ ব্যবহার না করে ফেসবুক অ্যাপ থেকে মেসেঞ্জিং করে থাকে, তবে তারা ফেসবুকের থেকে আপনাকে আর অ্যাক্টিভ হিসেবে দেখতে পাবে না। এক্ষেত্রে আপনাকে অ্যাক্টিভ হিসেবে না দেখার কারণে তারা আপনাকে কোন অহেতুক মেসেজও করবে না। এবার চলুন দেখে নেওয়া যাক যে, Facebook lite আপনি তে কিভাবে আপনি ফেসবুকের অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করবেন।

Facebook lite অ্যাপের Active status বন্ধ করবেন যেভাবে

ফেসবুক অফিশিয়াল অ্যাপ এর মতই Facebook lite অ্যাপটিতে অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করার প্রক্রিয়াটি সহজ। যারা ফেসবুক অফিশিয়াল অ্যাপ ব্যবহার করেনা, তারা অনেক ক্ষেত্রে ফেসবুক লাইট অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে মেসেজ থাকে এবং এখানেই তারা মেসেঞ্জার এর মত প্রায় সকল সুবিধা পায়। তবে আপনি যদি ফেসবুক লাইট অ্যাপ ব্যবহার করে মেসেঞ্জিং করে থাকেন এবং আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস যদি চালু করা থাকে, তবে আপনার মোবাইলের ডাটা কানেকশন চালু থাকলে অন্যান্য বন্ধুদের কাছে আপনাকে ফেসবুকে অ্যাক্টিভ দেখাবে। আর এজন্য আপনি যদি Facebook lite অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন, তবে নিচে দেখানো পদ্ধতিতে Facebook lite অ্যাপ থেকেও আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করতে পারবেন।

১. এজন্য প্রথমে আপনাকে চলে যেতে হবে Facebook lite অ্যাপটিতে। তারপর অ্যাপের উপর থেকে মেসেজ আইকনটিতে ক্লিক করতে হবে; যেমনটি আপনি নিচের প্রথম চিত্রে দেখতে পাচ্ছেন। এর পরবর্তীতে নিচের দ্বিতীয় চিত্রের মত সেটিং আইকনটিতে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর এখানে আপনি দেখতে পাবেন “Active status” নামের একটি অপশন; যেখানে এটি চালু করে দেওয়া রয়েছে। ‌এবার আপনি এটি বন্ধ করার জন্য এখানে ক্লিক করবেন। এর পরবর্তীতে নিচের দিকে চিত্রের মত দেখতে পাবেন এবং এখানে আপনি “Show active stutas” লেখাতে ক্লিক করে বন্ধ করে দিবেন।

৩. এর পরবর্তীতে Trun off লেখার উপর ক্লিক করে আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে। এবার এখন থেকে আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

আপনি এখান থেকে Active status বন্ধ করার পরেও অন্যান্য বন্ধুদের কে অ্যাক্টিভ হিসেবে দেখতে পারবেন। ‌এক্ষেত্রে বর্তমানে যেসব বন্ধুরা ফেসবুকে অ্যাক্টিভ রয়েছে বা তাদের মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন চালু রয়েছে আপনি তাদেরকে এখানে দেখতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার বন্ধুরা তাদের ফেসবুক মেসেঞ্জারে এরকম ভাবে দেখতে পারবেনা, যদি আপনি আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করে রাখেন। এক্ষেত্রে আপনার যখন কোন বন্ধুর সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন পড়বে তখন Facebook lite অ্যাপটিতে এসে আপনি সেসময়ের অ্যাক্টিভ বন্ধুদেরকে দেখতে পারেন এবং তাদেরকে প্রয়োজন অনুযায়ী মেসেজ করতে পারেন। কিন্তু এক্ষেত্রে তারা সেখান থেকে আপনাকে ইন্যাক্টিভ হিসেবেই দেখবে।

মেসেঞ্জার অ্যাপ থেকে Active status বন্ধ করবেন যেভাবে

ফেসবুকে কোন একজন বন্ধুর সঙ্গে প্রাইভেট ভাবে কথা বলার জন্য আমরা ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহার করে থাকি। আমরা যখন ফেসবুক মেসেঞ্জারে প্রবেশ করি, তখন সে সময়ের অ্যাক্টিভ বন্ধুদেরকে আমরা হোমপেজে দেখতে পারি। ঠিক একইভাবে আমাদের অন্যান্য বন্ধুরা ও আমাদেরকে তাদের মেসেঞ্জার অ্যাপ এ অ্যাক্টিভ হিসেবে দেখে। কিন্তু মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন চালু থাকলে এক্ষেত্রে মেসেঞ্জারে অ্যাক্টিভ দেখাতে পারে। এজন্য আমাদের দরকার মেসেঞ্জার থেকেও আমাদের অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করে রাখা।

১. এজন্য আপনাকে প্রথমে চলে যেতে হবে আপনার মোবাইলের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার অ্যাপটিতে। মেসেঞ্জার অ্যাপ্লিকেশন টিতে উপরের প্রোফাইল আইকনটিতে ক্লিক করতে হবে। এর পরবর্তীতে আপনি দেখতে পাবেন Active status নামের একটি সেটিং; যেমনভাবে আপনি নিচের দ্বিতীয় চিত্রে দেখতে পাচ্ছেন। তো, এবার আপনি এখানে ক্লিক করবেন।

২. এর পরবর্তীতে আপনি এখানে দেখতে পাবেন Active status চালু করে দেওয়া রয়েছে। তো, আপনি এটি বন্ধ করার জন্য নিচে দেখানো প্রথম চিত্রের মত এখানটাতে ক্লিক করবেন এবং পরবর্তীতে Turn off লেখাতে ক্লিক করে বন্ধ করে দিবেন।

এবার থেকে ফেসবুক মেসেঞ্জার অ্যাপে আপনি কোন অ্যাক্টিভ বন্ধুদেরকে দেখতে পারবেন না এবং আপনার বন্ধুরাও আপনাকে অ্যাক্টিভ হিসেবে দেখতে পারবেনা। তবে এক্ষেত্রে আপনি তাদের সঙ্গে স্বাভাবিকভাবে মতোই চ্যাটিং চালিয়ে যেতে পারবেন এবং তাদের সঙ্গে মেসেঞ্জার থেকে কল করতেও পারবেন। এখানে শুধুমাত্র আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস বন্ধ করার মাধ্যমে আপনার ইন্টারনেট ব্যবহার করার ক্ষেত্রে একটি গোপনীয়তা হয়েছে মাত্র। এখন থেকে আপনার মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন চালু থাকলেও আপনার নিকট আত্মীয় অথবা বন্ধু-বান্ধবেরা আর বুঝতে পারবে না যে, আপনি বর্তমানে ইন্টারনেটে রয়েছেন কিনা। ফেসবুক মেসেঞ্জার থেকে কিংবা ফেসবুক থেকে আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস চালু করে থাকলে যে কেউ আপনাকে এমনিতেই কোনো প্রয়োজন ছাড়া হয়তোবা মেসেজ করতো।

তবে আপনি Active status বন্ধ করার পর থেকে আপনাকে আর বেশি বেশি মেসেজের সম্মুখীনও হতে হবে না। এছাড়া আমাদের আত্মীয় স্বজন কিংবা বন্ধু-বান্ধবের জন্য আমরা ইন্টারনেট কানেকশন চালু করতেই যে ভয় করতাম, সেটিও এখন থেকে আর হবেনা। কেননা বর্তমানে তারা আর আপনার অ্যাক্টিভ স্ট্যাটাস দেখতে পারবেনা এবং আপনিও নিশ্চিন্তে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

বন্ধুরা, আশা করছি ফেসবুকের এই সেটিং টি আপনাদের অনেক কাজে লাগবে। যে সেটিং টি চালু করার মাধ্যমে আপনি সকলের থেকে এড়িয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন এবং এতে করে আপনার বন্ধু-বান্ধবেরা বুঝতে পারবে না যে, আপনি বর্তমানে ইন্টারনেট অ্যাক্টিভ রয়েছেন। এক্ষেত্রে যদি তাদের আপনার সঙ্গে যোগাযোগের প্রয়োজন পড়ে, তবে কোন এক সময় আপনাকে মেসেজ দিয়ে রাখবে এবং আপনিও তাদের সাথে পরবর্তীতে সময় করে রিপ্লে দিতে পারবেন। আসসালামু আলাইকুম।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *