ঢাকা, বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন
নির্দিষ্ট সময়ের একদিন আগেই আফগানিস্তান ছাড়ল আমেরিকার বাহিনী, কাবুলে ‘স্বাধীনতা’র উল্লাস
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

নির্দিষ্ট সময়ের একদিন আগেই আফগানিস্তান ছাড়ল আমেরিকার বাহিনী, কাবুলে 'স্বাধীনতা'র উল্লাস

 নির্দিষ্ট সময়ের একদিন আগেই আমেরিকার (usa) বাহিনী আফগানিস্তান (afghanistan) ছাড়ল। তালিবানদের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী ৩১ অগাস্ট সেনা সরানোর শেষ দিন ছিল। কিন্তু সোমবার রাতে সি-১৭ বিমানে কাবুল ছাড়ে আমেরিকার বাহিনী। তবে বিভিন্ন সংবাদ সূত্রে খবর আফগানিস্তানে এখনও প্রায় ৩০০ জন মার্কিনী রয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০ বছর আফগানিস্তানে কাটাল মার্কিন সেনা।

 আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের সঙ্গে সঙ্গে আমেরিকাও তাদের দীর্ঘ সময়ের যুদ্ধ শেষ করল ৩০ অগাস্ট। সময়সীমা মানতে চাপ ছিল তালিবানদের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আমেরিকা তথা ন্যাটো বাহিনীর আফগানিস্তান ছাড়ার কথা ছিল ৩১ অগাস্ট। কিন্তু বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের সরানো নিয়ে সেখানে অস্থির পরিস্থিতি তৈরি হয়। সেই সময় অবশ্য তালিবানদের তরফে বারবার সময়সীমা মানার কথা স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছিল আমেরিকাকে। 

তবে আমেরিকার আফগানিস্তান ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তারা ছেড়ে গেল হাজারো আফগানকে যাঁরা গত ২০ বছর ধরে আমেরিকাকে বিভিন্নভাবে সাহায্য করেছে। বিগ বস ওটিটিতে ওয়াইল্ড কার্ড হিসাবে প্রবেশ করছেন টেলিভিশন জগতের এই ‘‌সুপার হট’‌ অভিনেত্রী কাবুল-সহ বিভিন্ন জায়গায় উৎসব এদিকে আমেরিকার C-17 বিমান কাবুল বিমানবন্দর ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আফগানিস্তান জুড়ে উৎসব শুরু হয়ে যায়। উৎসব পালন করে তালিবানরা। 

কোথাও বাজি পুড়িয়ে আবার কোথাও শূন্যে গুলি চালিয়ে তালিবানরা উৎসব পালন করে। তালিবানদের মুখপাত্র কারি ইউসুফ বলেছেন, আমেরিকার শেষ সেনা কাবুল বিমানবন্দর ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের দেশ পুরোপুরি স্বাধীনতা পেল। আমেরিকান এক ট্রান্সলেটারকে কপ্টারে বেঁধে ওড়ালো তালিবানরা! ভিডিও ফাঁস হতেই শিউরে উঠছে বিশ্বের মানুষ সেনাকে ধন্যবাদ বাইডেনের এদিকে সেনা প্রত্যাহার সম্পূর্ণ হওয়ার পরে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট তাদের দেশের সেনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আফগানিস্তানে তাদের সেনার ২০ বছরের উপস্থিতি শেষ হয়েছে। পাশাপাশি যে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে উদ্ধার কাজ চালিয়েছে সেনা, তার জন্যও তিনি দেশের সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ দিয়েছেন।

তিনি বলছেন, এবার যাঁরা আফগানিস্তান ছাড়তে চান, তাদের জন্য ব্যবস্থা করার দায়িত্ব তালিবানদের। তবে যেভাবে আফগান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছেন, বাইডেন, তার সমালোচনা করেছেন ডেমোক্র্যাট এবং রিপাবলিকান, সবাই। বিশেষ করে তালিবানদের কাবুল দখল করার পর থেকে। আমেরিকার সেন্ট্রাল কমান্ডের কমান্ডার জেনারেল ফ্র্যাঙ্ক ম্যাকেঞ্জি সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, C-17 বিমানে শেষ আফগানিস্তান ছেড়েছেন, আফগানিস্তানে আমেরিকার প্রধান রাষ্ট্রদূত।

 একইসঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, আফগানিস্তানে আর কোনও সেনা নেই। UNSC ভারতের প্রস্তাব আফগানিস্তানকে অন্যদেশে সন্ত্রাসী হামলার মঞ্চ করা যাবে না, সহমত নয় রাশিয়া-চিন আফগানিস্তানে এখনও ২৫০-র ওপরে আমেরিকান তবে আমেরিকার আধিকারিকরা জানিয়েছেন, আমেরিকা থেকে প্রায় ছয় হাজার দেশের নাগরিককে সরানোর কথা ছিল। তবে আফগানিস্তানে এখনও প্রায় ২৫০ জনের বেশি তাদের দেশের নাগরিক রয়ে গিয়েছেন। তাঁরা আফগানিস্তান ছাড়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করলেও, এয়ারপোর্ট পর্যন্ত আসতে পারেননি। চেষ্টা করা হলেও তাঁদের বের করে আনা যায়নি বলে জানিয়েছে আমেরিকার সেনা। 

তালিবানরা ১৫ অগাস্ট কাবুল দখল করে। তবে তার আগের দিন অর্থাৎ ১৪ অগাস্ট থেকেই বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের আফগানিস্তান থেকে সরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়। প্রায় ১,২২,০০০ মানুষকে সেদেশ থেকে সরানো হয়েছে। ২০ টি দেশের নাগরিকদের বিমানে করে সরানোর প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে গত শুক্রবার। তবে মার্কিন সেনা যে ৩১ অগাস্ট আফগানিস্তান ছাড়বে, তা ঠিক করে গিয়েছিলেন আমেরিকার পূর্বতন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। গত দু সপ্তাহ ধরে কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমিয়েছেন, সেদেশ থেকে পালিয়ে যেতে। 

এর মধ্যে বহু আফগান নাগরিকও ছিলেন। তবে উদ্ধার কাজ কঠিন হয়ে দাঁড়ায় যখন গত বৃহস্পতিবার আইএস-এর আত্মঘাতী বাহিনীর হামলায় আমেরিকার ১৩ সেনার প্রাণ যায়। সঙ্গে সঙ্গে প্রেসিডেন্ট বাইডেন অবশ্য বলেছিলেন, হামলায় যারা দায়ী, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এরপর আমেরিকার তরফে ড্রোন হামলা চালানো হয়েছিল। সোমবার আমেরিকার বাহিনী কাবুল ছাড়ার আগে অবশ্য সেখানে অন্তত পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়। যদিও আমেরিকার এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম তা আটকে দেয়। বর্তমান পরিস্থিতি প্রায় পুরো আফগানিস্তানের নিয়েছে তালিবানরা। 

তাদের তরফে বারবার দাবি করা হয়েছে গত শতাব্দীর শেষ দশকের তালিবানদের সঙ্গে তাদের মেলানো ভুল হবে। ইতিমধ্যেই তারা ভারতের সঙ্গে বানিজ্য-সহ বিভিন্ন বিষয়ে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার আহ্বানও জানিয়ে রেখেছে। তবে রাষ্ট্রসংঘের তরফে বলা হয়েছে এবছর শেষের আগেই আফগানিস্তান থেকে পালাতে পারেন সেদেশের প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ ।ওয়ান ইন্ডিয়ার/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *