ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন
কেউ কেউ পুলিশকে ব্যঙ্গ করছেন, শুভ বুদ্ধির উদয় হোক, ধনকড়-শুভেন্দুকে খোঁচা মমতার  
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

কেউ কেউ পুলিশকে ব্যঙ্গ করছেন, শুভ বুদ্ধির উদয় হোক, ধনকড়-শুভেন্দুকে খোঁচা মমতার  

 বুধবার বিশ্ব পুলিশ দিবসের (Police Day) সকালে মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (suvendu Adhikari) এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankar) টুইট করেছিলেন। মমতার টুইট আর শুভেন্দু-ধনকড়ের টুইটের বাক্য-বাঁধুনি ছিল ভিন্ন মেরুর। দুপুরে পানাগড়ের কর্মসূচি থেকে তা নিয়েই রাজ্যপাল ও বিরোধী দলনেতাকে নাম না করে খোঁচা দিলেন মমতা।

এদিন মমতা বলেন, “কেউ কেউ টুইট করে ব্যঙ্গোক্তি করেছেন। তাঁরা শুধরে নেবেন। ভাল কাজ করতে গিয়ে কিছু কিছু ভুল হয়। তা বলে এটা নিয়ে গোটা বাহিনীকে হতাশ করার কিছু নেই। যাঁরা এ সব করছেন তাঁদের শুভবুদ্ধির উদয় হবে এটা আশা করি।’’ তিনি আরও বলেন, “গোটা দেশ এবং সারা পৃথিবীর পুলিশকে অভিনন্দন। সাংবাদিক, পুলিশ, চিকিৎসক এবং রাজনীতিকদের ছুটি নেই। রাত কি ভোর ডাক পড়লেই যেতে হয়।’’

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুলিশ দিবস উপলক্ষ্যে টুইট করে লিখেছিলেন, “পুলিশ ফোর্সের সঙ্গে যুক্ত সকলকে স্যালুট জানাই। কঠিন সময়েও যেভাবে পুলিশরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যান, নিজেদের কর্তব্যে যেভাবে তাঁরা অবিচল থাকেন, তাকে আমি কুর্নিশ জানাচ্ছি। বাংলার মানুষের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ যে ভাবে কাজ করছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়।”

শুভেন্দুর টুইটে লেখা হয়েছিল, “ভারতের সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে একজন পুলিশ অফিসার শপথ গ্রহণ করেন। কড়া ভাবে আইনের অনুশাসন স্থাপন তার লক্ষ্য। এতে কোনও ভয় বা কোথাও থেকে সুবিধা নেওয়ার ব্যাপার থাকে না। আমি কলকাতা পুলিশ এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশকে পুলিশ দিবসে অভিনন্দন জানাছি। সেই সঙ্গে তাঁদের এটাও বলতে চাই, তাঁরা সংবিধান রক্ষার যে শপথ নিয়েছেন তা যেন ভুলে না যান।”

ধনকড় লেখেন,  “পুলিশ দিবসে আমি চাই পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশ এখন থেকে মানবাধিকার যোদ্ধা হিসেবে কাজ করুক। আইন এবং নীতির শাসন বজায় থাকুক। রাজনৈতিক শক্তি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত পুলিশ গণতন্ত্রের পক্ষে বিপজ্জনক।  পুলিশকে সবসময় নিরপেক্ষ থাকতে হবে।”

এমনিতে বাংলার পুলিশ প্রশাসন নিয়তে বিরোধীদের অভিযোগ কম নেই। রাজ্যপালও বারবার পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করেছেন। শুভেন্দু ও ধনকড়ের টুইটে সেই সুরই শোনা গিয়েছে বলে মত অনেকের। তাঁদের বক্তব্য, সে কারণেই মুখ্যমন্ত্রী পানাগড়ে এই মন্তব্য করেছেন।

মমতার ওই বক্তব্যের পর ফের একবার আক্রমণ শানিয়েছেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। বিজেপির সাংব্দাইক সম্মেলনে শুভেন্দু বলেন, “পুলিশকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী ভাবে ব্যবহার করেন তা সবাই জানে। নিজের বাড়ির কাজ থেকে ভাইপোর হয়ে টাকা তোলা পর্যন্ত, সব করান। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে যাঁরা সুষ্ঠু ভোটের জন্য দায়িত্ব পালন করেন সেই অফিসারদের শপথ নিয়েই কম্পালসারি ওয়েটিং-এ পাঠিয়েছেন। খবর  দ্য ওয়ালের/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *