ঢাকা, মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন
আফগান বিমান ঘাঁটি দখলের চেষ্টায় চিন, ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানকে ব্যবহার করাই উদ্দেশ্য, জানালেন নিকি হ্যালি
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

আফগান বিমান ঘাঁটি দখলের চেষ্টায় চিন, ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানকে ব্যবহার করাই উদ্দেশ্য, জানালেন নিকি হ্যালি

 আফগানিস্তানের বাগরাম বিমানঘাঁটি (Bagram air force) দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছে চিন। তারা সম্ভবত ভারতের বিরুদ্ধে হামলা চালানোর জন্য পাকিস্তানকে মদত দেবে। আফগানিস্তানে পট পরিবর্তনের পরে চিন ঠিক কী করতে চায়, তা জানার চেষ্টা করছে আমেরিকা। রাষ্ট্রপুঞ্জে প্রাক্তন মার্কিন দূত নিকি হ্যালি একথা জানিয়েছেন। তাঁর মতে, আফগানিস্তান থেকে তাড়াহুড়ো করে সেনা সরিয়ে আনার ফলে মিত্র দেশগুলির আস্থা হারিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এই মুহূর্তে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে আমেরিকা।

নিকি হ্যালির মতে, আমেরিকানরা যাতে নিরাপদে থাকেন, তার ব্যবস্থা করাই বাইডেনের কর্তব্য। বিশেষত সাইবার নিরাপত্তা সম্পর্কে মার্কিন প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে হবে। নিকি মনে করিয়ে দিয়েছেন, রাশিয়া এর আগে বেশ কয়েকবার আমেরিকার বিভিন্ন সাইট হ্যাক করেছে। কিন্তু আমেরিকা তার বিরুদ্ধে কিছুই করেনি।


তিনি বলেন, “আমাদের চিনের ওপরে নজর রাখা উচিত। তারা বাগরাম বিমান বন্দর দখলের চেষ্টা করছে। আমার ধারণা, ভারতের বিরুদ্ধে হামলা চালানোর জন্য তারা পাকিস্তানকে মদত দেবে।”


২০ বছর ধরে বাগরাম বিমানঘাঁটি থেকে আফগানিস্তানে অভিযান চালিয়েছে মার্কিন সেনা। একসময় সেখানে কয়েক হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল। গত জুলাই মাসে তারা ওই ঘাঁটি ছেড়ে যায়। নিকি বলেন, “বাইডেনের উচিত আমাদের মিত্রদের সাহায্য করা। আগামী দিনে সাইবার অপরাধ ও জঙ্গি হানার মোকাবিলা করতে হবে আমাদের। সেজন্য বাইডেনের প্রস্তুত থাকা উচিত।”

নিকির মতে, বাইডেনের উচিত ভারত, জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে অবিলম্বে বাইডেনের কথা বলা উচিত। ওই দেশগুলিকে আশ্বাস দিয়ে বলা উচিত, বিপদের সময় আমেরিকা তাদের পাশে দাঁড়াবে।

গত সোমবার মার্কিন সেনা আফগানিস্তান ছাড়ার পরে একটি বিবৃতি দেয় জঙ্গি সংগঠন আল কায়েদা আফগান যুদ্ধে জয়লাভের জন্য তালিবানকে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি বিবৃতিতে বলা হয়, এবার বিশ্ব জুড়ে জেহাদ ছড়িয়ে দিতে হবে। মুক্ত করতে হবে কাশ্মীরকেও।

সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, “আল কায়েদা যেভাবে বিশ্ব জুড়ে জেহাদ চালানোর আহ্বান জানিয়েছে, তা উদ্বেগের বিষয়। তাদের বিবৃতিতে কাশ্মীরের কথা আছে। তালিবান আগে কখনও কাশ্মীর নিয়ে মাথা ঘামায়নি। আল কায়েদার ওই বিবৃতির পিছনে আছে আইএসআই।” সরকারের মতে, ওই বিবৃতিতে লস্কর ই তৈবা এবং জয়েশ ই মহম্মদের মতো পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি উৎসাহিত হবে।খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *