ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১৪ অপরাহ্ন
অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড পেলেন ইকবাল বিন আনোয়ার
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড পেলেন ইকবাল বিন আনোয়ার

‘অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’- পেলেন এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। তিনি দেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিকস ও অটোমোবাইলস পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী পরিচালক (গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। মিরর ম্যাগাজিনের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ পুরস্কারে তিনি ভূষিত হন। 
১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর একটি হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে মিরর এই পুরস্কার প্রদান করে। ৪ ক্যাটাগরিতে দেশের গণ্যমাণ্য ৫৬জন ব্যক্তিবর্গকে রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করা হয়। ইকবাল বিন আনোয়ার ‘ফ্রন্টলাইন হিরোস’ এই ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হন। 

সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী শ্রী বীরেন শিকদার (এমপি) ইকবাল বিন আনোয়ারের হাতে ফ্রন্টলাইন হিরোস অ্যাওয়ার্ডটি তুলে দেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. হাসান মুরাদ। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, মিরর ম্যাগাজিনের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং অনুষ্ঠানের আয়োজক মালা খন্দকার, বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল সালাম মুর্শেদী (এমপি) ছাড়াও বিনোদন জগতের নামিদামি তারকারা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, ক্রিকেট থেকে কাবাডি- দেশের এহেন কোনো স্পোর্টস ইভেন্ট নেই যেখানে পা পড়েনি ওয়ালটনের। মিরর ম্যাগাজিন ‘ফ্রন্টলাইন হিরোস’ অ্যাওয়ার্ডে এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডনকে বেছে নেয়ার পেছনের মূল কারণও এটি। দেশের জনপ্রিয় ক্রীড়া ইভেন্ট ক্রিকেটে স্পন্সরের কোনো অভাব নেই। ফুটবল, হকিতেও অনেকে আগ্রহ নিয়ে স্পন্সরশিপের জন্য এগিয়ে আসে। তবে দেশের বাকি স্পোর্টস ইভেন্টগুলোতে সেভাবে কাউকে চোখে পড়ে না। বহু বছর ধরেই ক্রীড়াঙ্গনে এ দৃশ্য অনেকটা নিপাতনে সিদ্ধের মতো। কিন্তু এ অচলায়নকে ভেঙে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে নতুন দিগান্ত উন্মোচন করেছে ওয়ালটন। তৃণমূল থেকে অবহেলিত ফেডারেশন; এমনকি নন অ্যাফিলিয়েটেড অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে আয়োজিত স্পোর্টস ইভেন্টগুলোতেও বছরের পর বছর স্পন্সর করে যাচ্ছে ওয়ালটন। আর সেখানে অগ্রণী ভূমিকা রাখছেন ইকবাল বিন আনোয়ার ডন। জনপ্রিয় ফ্যাশন ম্যাগাজিন মিররের ভাইস প্রেসিডেন্ট মালা খন্দকার আর তার প্যানেল পুরস্কারের জন্য ইকবাল বিন আনোয়ারকে বেছে নিয়েছেন এ কারণেই। 

এ বিষয়ে মালা খন্দকার বলেন, আমি মিরর ম্যাগাজিনের ভাইস প্রেসিডেন্ট। আমি একজন ইভেন্ট অর্গানাইজার। আমি জানি একটা ইভেন্ট আয়োজন করতে কতটা শ্রম দিতে হয়; কষ্ট করতে হয়। সেখানে ডন ভাই তো পুরো ক্রীড়াঙ্গনকে চালিয়ে নিচ্ছেন। বিশেষ করে দেশের অবহেলিত ফেডারেশনগুলোতে তার অবদান চিরস্মরণীয়। আমাদের জাতীয় খেলা কাবাডি। অথচ এই খেলাতে সেভাবে কোনো স্পন্সর এগিয়ে আসে না। ব্যতিক্রম ওয়ালটন এবং এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন। ফ্রন্টলাইন হিরোস অ্যাওয়ার্ডে আমরা ডন ভাইকে পুরস্কৃত করে পেরে নিজেদের ধন্য মনে করছি। একজন যোগ্য, দক্ষ সংগঠক হিসেবেই ডন ভাই এই পুরস্কারটি পেয়েছেন। 

তিনি আরো বলেন, এবারই প্রথম পুরস্কারটি চালু হয়েছে। প্রথমবারই বিভিন্ন মহল থেকে আমরা ব্যাপক উৎসাহ, সহযোগিতা পেয়েছি। এখন থেকে এটি প্রতি বছরই আয়োজনের ইচ্ছা আমাদের রয়েছে। 

মিরর ম্যাগাজিন থেকে ফ্রন্টলাইন হিরোস অ্যাওয়ার্ডটি পেয়ে গর্বিত ওয়ালটনের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী পরিচালক ইকবাল বিন আনোয়ার ডন। অনুভূতি জানিয়ে তিনি বলেন, আমি মনে করি যে কোনো পুরস্কার হলো কাজের স্বীকৃতি। মিরর ম্যাগাজিন আমাকে যে পুরস্কারের ভূষিত করেছে এটি পেয়ে সত্যিই আমি ভীষণ আনন্দিত, গর্বিত। ওয়ালটনের জন্যই মূলত পুরস্কারটি অর্জন করা আমার পক্ষে সম্ভব হয়েছে। এই গর্বের ভাগিদার শুধু আমি একা নই; এ সম্মান আমাদের পুরো ওয়ালটন পরিবারের। আমি মনে করি আমরা ওয়ালটন পরিবার পৃষ্ঠপোষক না; ইনভেস্টর। আর এই ইনভেস্টের ফল তখনই আমরা হাতে পাব; যখন দেশের কোনো ক্রীড়াবিদ বিশ্ব দরবার কে বাংলাদেশের জন্য সাফল্য-সম্মান বয়ে আনবে। পুরস্কার কাজের গতি-পরিধিকে আরো বাড়িয়ে দেয়। অনলাইন রিয়েল হিরোস পুরস্কারটি আমার কাজের গতিকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। মিরর ম্যাগাজিনের সম্মানিত ভাইস প্রেসিডেন্ট মালা খন্দকারকে আমি বিশেষ ধন্যবাদ জানাতে চাই এমন একটি বিরল সম্মানে আমি ভূষিত করেছেন বলে।
 

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *