ঢাকা, সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩৬ অপরাহ্ন
ব্যাটারি রিকশা-ভ্যান ও ইজিবাইকের লাইসেন্স দেওয়ার দাবি
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

ব্যাটারি রিকশা-ভ্যান ও ইজিবাইকের লাইসেন্স দেওয়ার দাবি

রিকশা, ব্যাটারি রিকশা-ভ্যান ও ইজিবাইক চালক সংগ্রাম পরিষদ কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের উদ্যোগে আজ ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ সকাল ১১টায় ৮/৪-এ সেগুনবাগিচাস্থ স্বাধীনতা হলে (৩য় তলা) “ব্যাটারি চালিত যানবাহন উচ্ছেদ নয় সাধারণ যাত্রী ও শ্রমিকদের স্বার্থে আধুনিকায়ন চাই শীর্ষক” গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। গোল টেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংগ্রাম পরিষদ এর আহ্বায়ক খালেকুজ্জামান লিপন ও সঞ্চালনা করেন সদস্য সচিব প্রকৌশলী ইমরান হাবিব রুমন। 

গোল টেবিল বৈঠকে আলোচনা করেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, বাম গণতান্ত্রিক জোট এর সমন্বয়ক, বাসদ নেতা কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট সভাপতি, স্কপ ও বাসদ নেতা কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন, স্কপের যুগ্ম সমন্বয়ক ও জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামরুল আহসান, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, এ্যাক্সিডেন্টাল রিসার্স ইনষ্টিটিউট বুয়েট এর সহকারি অধ্যাপক কাজী মোঃ সাইফুন নেওয়াজ, ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক সেলিনা আজিজ, রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা নাদিম, ক্ষুদ্র রিকশা পার্টস ব্যবসায়ি ও মেকানিক মোঃ ইকবাল, ক্ষুদ্র গ্যারেজ মালিক মোঃ সুমন, ব্যাটারি রিকশা মেকানিক মোঃ হাশেম, আলমগীর হোসেন, ব্যাটারি রিকশা চালক শওকত হোসেন, মোঃ রহমতউল্লাহ, জালাল হোসেন।

গোল টেবিলে বৈঠকগণ বলেন, সারাদেশে প্রায় ৫০ লাখ শ্রমিক ব্যাটারিচালিত রিকশা, ইজিবাইক, রিকশা ও ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে এবং এটা সাধারণ মানুষের একমাত্র বাহন। এই সব রিকশা, ভ্যান ও ইজিবাইক যাত্রী পরিবহন, পণ্য পরিবহন এমনকি রোগী পরিবহনের ক্ষেত্রে দেশের সর্বত্র ব্যবহৃত হয়। বিদ্যুৎচালিত বলে এই সব বাহন শব্দ দূষণ কিংবা পরিবেশ দূষণ করে না। ছোট ছোট গলিপথে চলাচল করতে পারে এবং ভাড়া কম বলে এই সব বাহন দ্রুত সারা দেশে প্রয়োজনীয় ও জনপ্রিয় বাহনে পরিণত হয়েছে। কোন বিবেচনা বা বিকল্প ব্যবস্থা না করে রিকশা বন্ধ করে দিলে ৫০ লাখ রিকশা, ব্যাটারি রিকশা ও ভ্যান, ইজিবাইক চালক বেকার ও কর্মহীন হয়ে পড়বে ও তাদের উপর নির্ভরশীল প্রায় আড়াই কোটি মানুষ বা তাদের পরিবার পরিজন জীবন- জীবিকা হুমকির মধ্যে পড়বে। সরকার প্রধান বলছেন, নিজেরা কাজ খুঁজে নেন। কিন্তু সরকারের কাছ থেকে না নিয়ে নিজেরা কর্মসংস্থান এর ব্যবস্থা করে সরকারকে বছরে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার ভ্যাট দিচ্ছেন, সেই রিকশা শ্রমিকদের উচ্ছেদ করার ঘোষণা দিয়ে বাস্তবে সরকার তাদের মাথায় বাড়ি দিচ্ছেন।

গোল টেবিলে বক্তাগণ ৩৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ ও বছরে ১ লাখ ৩৭ হাজার কোটি আয়ের জাতীয় অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ এই সেক্টরের উপরের নির্ভরশীল আড়াই কোটি মানুষের জীবন জীবিকার স্বার্থে ব্যাটারিচালিত যানবাহনের চলাচলের সরকারি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার এবং ব্যাটারি রিকশা, ইজিবাইকসহ ব্যাটারিচালিত যানবাহনের কাঠামোগত দুর্বলতা নিরসনে ব্রেক পদ্ধতির আধুনিকায়ন, দুই পাশে ইন্ডিকেটর লাগানো, ব্যাক গিয়ার লাগানো, সিট আরামদায়ক, ওয়াইপার লাগানোসহ নানা পরিবর্তন করে এই যানবাহনকে নিরাপদ করে লাইসেন্স প্রদানসহ ৪ দফা দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *