ঢাকা, সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫০ অপরাহ্ন
সিদ্ধার্থ শুক্লার আকস্মিক মৃত্যু: জেনে নিন হার্ট অ্যাটাকের ৯টি লক্ষণ
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

সিদ্ধার্থ শুক্লার আকস্মিক মৃত্যু: জেনে নিন হার্ট অ্যাটাকের ৯টি লক্ষণ

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন জনপ্রিয় টেলিভিশন তারকা এবং বিগ বস সিজন ১৩-র বিজয়ী সিদ্ধার্থ শুক্লা। বয়স হয়েছিল মাত্র ৪০ বছর। মুম্বইয়ের কুপার হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি৷ সিদ্ধার্থের আকস্মিক মৃত্যুতে বিনোদন জগতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সিদ্ধার্থ তাঁর দুর্দান্ত অভিনয় এবং ফিটনেসের জন্য বেশ পরিচিত ছিলেন। তাঁর জীবনযাত্রাও বেশ স্বাস্থ্যকর ছিল। কিন্তু তারপরেও মাত্র ৪০-এই হার্ট অ্যাটাকের শিকার হলেন তিনি! আগে কেবলমাত্র বয়স্কদেরই হার্ট অ্যাটাক বা হৃদরোগ হত, কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরে যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে এই ঘটনা দ্রুত বাড়ছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক হার্ট অ্যাটাকের বেশ কিছু সাধারণ লক্ষণ সম্পর্কে, যা কখনই অবহেলা করা উচিত নয়।


সিদ্ধার্থ শুক্লার আকস্মিক মৃত্যু: জেনে নিন হার্ট অ্যাটাকের ৯টি লক্ষণ

দাঁত ব্যথা বা মাথা ব্যথা 

হার্ট অ্যাটাকের আগে অনেকেরই চোয়াল, গলা, দাঁত, মাথা ব্যথা করতে থাকে। আপনার যদি কখনও চোয়াল, দাঁত এবং মাথা ব্যথা হয়ে থাকে, তবে এটি একেবারেই উপেক্ষা করবেন না। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

হৃদস্পন্দন হার্ট অ্যাটাক 

হঠাৎ আসে ঠিকই, কিন্তু কয়েক দিন আগে থেকে শরীরে এমন কিছু পরিবর্তন দেখা যায়, যা সাধারণত আমরা উপেক্ষা করে থাকি। আজকালকার অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপনে, কোনও উপসর্গই উপেক্ষা করা উচিত নয়। অনেক সময় আমাদের হৃদস্পন্দন খুব কম বা বেশি হয়ে যায়। যদি কয়েক সেকেন্ডের বেশি হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক না থাকে, তাহলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

অম্বল বা বুক জ্বালা 

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, হার্ট অ্যাটাকের আগে বেশিরভাগেরই বদহজমের সমস্যা এবং গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও, অম্বল বা বুক জ্বালা, যা সাধারণত আমরা স্বাভাবিক বদহজমের সমস্যা ভেবে অবহেলা করি, তাও কিন্তু হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের ইঙ্গিত। বুকে ব্যথা, অস্বস্তিকর অনুভূতি, বুকে একটু চাপ বা ভারি ভারি অনুভব হলেও কখনও উপেক্ষা করবেন না।

নাক ডাকা 

ঘুমানোর সময় অনেকেরই নাক ডাকার সমস্যা থাকে, এটা খুবই সাধারণ। কিন্তু খুব জোরে নাক ডাকার সঙ্গে শ্বাসরোধ হওয়াও হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। এই লক্ষণকে বলা হয় স্লিপ অ্যাপনিয়া। অনেক সময় রাতে ঘুমানোর সময় নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে যায়, যা হার্টের উপর প্রভাব ফেলে।

ঘাম 

অতিরিক্ত ঘাম হওয়া হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে। ঠান্ডা-গরমে সর্বদা ঘাম হওয়া মারাত্মক হতে পারে। হার্ট ব্লক হলে রক্ত সঞ্চালনে হৃদপিণ্ডের অনেক বেশি কাজ করতে হয়। আর, এই অতিরিক্ত পরিশ্রমের ফলে ঘামের সৃষ্টি হয়। সাধারণত এই ঘাম অনেক ঠাণ্ডা হয়ে থাকে। তাই এই উপসর্গ একেবারেই উপেক্ষা করবেন না।

শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া শ্বাস নিতে অসুবিধা হওয়া 

হার্ট অ্যাটাকের একটি সাধারণ লক্ষণ। যদি আপনার কখনও শ্বাস নিতে সমস্যা হয়, তবে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। শ্বাসকষ্ট ছাড়াও, অনেকে আবার নার্ভাসনেস বোধ করে। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, হার্ট অ্যাটাক হওয়ার প্রায় এক মাস আগে থেকেই শারীরিক দুর্বলতা এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা শুরু হয়ে যায়। তাই এই রকম সমস্যা হলে এড়িয়ে যাবেন না, এটা হার্টের সমস্যার কারণে হতে পারে।

কাঁধে ও বাম বাহুতে ব্যথা 

হার্ট অ্যাটাকের আগে অনেকেরই বাম বাহুতে, পিঠ, কাঁধ বা কোমরে ব্যথার সমস্যা দেখা যায়। যদি আপনার মধ্যে এই লক্ষণগুলি দেখা যায়, তাহলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডাক্তারের কাছে যান।

বমি হওয়া বা বমি বমি ভাব 

বমি এবং পেটে ব্যথাও হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। বার বার বমি হওয়া, বমি বমি ভাব, মাথা ঘোরানো, পেটে ব্যথা হলে কখনোই উপেক্ষা করবেন না, বরং ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

হাত বা গোড়ালি ফুলে যাওয়া 

যখন হার্ট সঠিকভাবে রক্ত​​পাম্প করতে অক্ষম হয়, তখন হাত-পায়ে ফোলাভাব দেখা দেয়। তাই, হাত-পা ফুলে যাওয়ার সমস্যাটিকে হালকাভাবে নেওয়া উচিত নয়। যদি ফোলা বাড়তে থাকে তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *