ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০২ অপরাহ্ন
কাবুলে পাকিস্তানের তৎপরতা ভারতের পক্ষে ভাল নয়, মন্তব্য মার্কিন সেনেটরের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

কাবুলে পাকিস্তানের তৎপরতা ভারতের পক্ষে ভাল নয়, মন্তব্য মার্কিন সেনেটরের

আফগানিস্তানে তালিবানের (Taliban) জয়ে বড় ভূমিকা আছে পাকিস্তানের। মার্কিন কংগ্রেসে এমনই মন্তব্য করলেন রিপাবলিকান সেনেটর মার্কো রুডিও। তাঁর মতে, তালিবান কাবুল দখল করার পরে পাকিস্তানের প্রশাসনে কট্টরপন্থীদের গুরুত্ব বেড়েছে। পাকিস্তান এখন কাবুলে যেভাবে তৎপর হয়ে উঠেছে, তাতে ভারতের কাছে মোটেই ভাল বার্তা পৌঁছচ্ছে না। মার্কিন সেনেটরদের একাংশকে দোষ দিয়ে মার্কো বলেন, পাকিস্তান যে তালিবানের শক্তিবৃদ্ধিতে সাহায্য করছে, সেকথা তারা মানতে চাননি।

মার্কোর কথায়, “সম্প্রতি জানা গিয়েছে, শীঘ্রই কোয়াড গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির বৈঠক হবে। সেখানে ভারত বলতে পারে, আফগানিস্তান নিয়ে পাকিস্তানকে তার অবস্থান জানাতে বাধ্য করুক আমেরিকা।” মার্কিন বিদেশ সচিব অ্যান্টনি ব্লিনকেনের উদ্দেশে মার্কো বলেন, “আমরা একাধিকবার পাকিস্তানের ভূমিকাকে ছোট করে দেখেছি। তালিবানের জয়ের পিছনে পাকিস্তানের অবদান আছে। এর ফলে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে তালিবানের সমর্থক কট্টরপন্থীদের ক্ষমতা বেড়েছে।”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আহ্বানে আগামী সোমবার বৈঠকে বসছে কোয়াড গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলি। ওই গোষ্ঠীতে আছে ভারত, আমেরিকা, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কোয়াড গোষ্ঠীর অন্যান্য রাষ্ট্রপ্রধান হোয়াইট হাউসে বৈঠকে বসবেন। হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব জেন সাকি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, ২৪ সেপ্টেম্বর হোয়াইট হাউসে চার রাষ্ট্রপ্রধানের শীর্ষ সম্মেলন হবে।

আগামী সপ্তাহেই নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভার অধিবেশন বসতে চলেছে। মোদী সেখানেও যোগ দেবেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইওশিহিদে সুগাও অধিবেশনে উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। এর আগে মার্চে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন কোয়াড গোষ্ঠীর চার রাষ্ট্রপ্রধান। চিনের আগ্রাসী মনোভাবের মোকাবিলা কীভাবে করা যায়, তা নিয়ে তাঁরা আলোচনা করেন। একইসঙ্গে স্থির হয়, কোভিড ভ্যাকসিন তৈরি এবং পরিবেশ দূষণ রোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবে কোয়াড। সেই সঙ্গে ভারতীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে যাতে চিনের শক্তিবৃদ্ধি না ঘটে সেদিকেও নজর রাখা হবে।

আগামী সোমবার কোয়াড বৈঠকেও ভারতীয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল নিয়ে কথা হবে। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জানিয়েছেন, বাইডেন-হ্যারিস প্রশাসন ওই অঞ্চলকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়। ভারতীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল নিয়ে বাইডেনের উপদেষ্টা কুর্ট ক্যাম্পবেল গত জুলাই মাসে বলেছিলেন, ভ্যাকসিন কূটনীতি ও পরিকাঠামো নির্মাণ নিয়ে দীর্ঘমেয়াদী পদক্ষেপ নিতে হবে।

আমেরিকার অভ্যন্তরে পরিকাঠামো গড়ে তোলার ওপরে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন বাইডেন। গত মার্চে তিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে বলেছিলেন, চিন যেভাবে পূর্ব এশিয়া ও ইউরোপে পরিকাঠামো নির্মাণে জোর দিয়েছে, তার পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়া উচিত গণতান্ত্রিক দেশগুলিরও। তাদেরও উচিত পরিকাঠামো নির্মাণে গুরুত্ব দেওয়া।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *