ঢাকা, বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন
বাম আমলে হয়নি, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকাকে পেনসন নিয়ে আশ্বাস অভিষেকের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

বাম আমলে হয়নি, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকাকে পেনসন নিয়ে আশ্বাস অভিষেকের

অবসর গ্রহনের এক দশক পরেও মেটেনি সমস্যা। পেনসট আটকে রয়েছে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকার। বাম জমানার জট কাটিয়ে পেনসন দেওয়ার আশ্বাস তৃণমূল সরকারের। খোদ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শ্যালিকাকে পেনসন জট কাটানোর প্রতিশ্রুতি দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অর্থাভাবে ডানলবে বাসস্ট্যান্ডে ভবঘুরের মত দিন যাপন করছিলেন তিনি। সরকারের উদ্যোগেই চিকিৎসার পর খড়দহের বাড়িতে ফিরেছেন ইরাদেবী।

শিক্ষক দিবসের পরের দিন থেকে গোটা শহরে তোলপাড় করে ফিলেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকা ইরা দেবী। ডানলপের বাসস্ট্যান্ডে শিক্ষক দিবসের দিন ভবঘুরে ইরাদেবীকে সংবর্ধনা জানিয়ে গিয়েছিল একটি স্বেচ্ছাসেবী দল। তখনই প্রকাশ্যে আসে তাঁর আসল পরিচয়। নিজেই জানিয়েছিলেন নিজের পরিচয়। জানা যায় রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকা তিনি। খড়দহের প্রিয়নাথ স্কুলে শিক্ষকতা করতেন। সেখান থেকেই অবসর নেন। তবে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর নিকটআত্মীয় বলে কখনও কোনও সুযোগ-সুবিধা নেননি তিনি।

প্রিয়নাথ স্কুলের প্রধান শিক্ষিকাই জানিয়েছিলেন অবসর নেওয়ার পর ইরাদেবীর পেনসনে কিছু জটিলতা তৈরি হয়েছিল। সেটা আর হাতে পাননি তিনি। পিএফের টাকা হাতে পেলেও পেনসনের টাকা পাননি তিনি। তারপরেই পুরসভার পক্ষ থেকে ইরাদেবীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। এখন তিনি ফিরে গিয়েছেন তাঁর খড়দহের বাড়িতে। সেখানেই রয়েছেন ইরাদেবী। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের স্ত্রী জানিয়েছেন, ইরাদেবী স্বেচ্ছায় এই জীবন বেছে নিয়েছেন।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ইরাদেবীর পেনসন জট কাটানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে কিছুটা হলেও আস্বস্ত হয়েছেন তিনি। ইরাদেবী খড়দহের বাড়িতে ফিরে তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের প্রশংসা করেছেন তিনি। আশা প্রকাশ করেছেন হয়তো শীঘ্রই পেনসন পাবেন তিনি। ইরাদেবী বলেছেন,' অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের লোকেরা আমার কাছে এসে জানিয়েছেন দ্রুত পেনশনের ব্যবস্থা করা হবে। উনি বলেছেন যখন নিশ্চয়ই পাব।'

ইরাদেবী অভিযোগ করেছেন সল্টলেকের বাড়িতে থাকলে তাঁকে খুনের হুমকি দেওয়া হত। েসকারণেই তিনি বাড়িতে থাকতেন না। তবে রাস্তায় নেমে আসার পরেও কেউ তাঁকে সাহায্য করেননি বলে অভিযোগ করেছেন বৃদ্ধি। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আত্মিয় হলেও তাঁদের প্রতি তাঁর কোনও অনুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ইরাদেবী। বুদ্ধবাবুর আমলেও কেন তিনি পেনসন পেলেন না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যদিও এই নিয়ে কিছু বলতে রাজি হননি ইরাদেবী।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *