ঢাকা, বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন
অসমে পরীক্ষার হলে ছোট পোশাক! তরুণীকে পর্দায় মুড়ে দিলেন শিক্ষক
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

অসমে পরীক্ষার হলে ছোট পোশাক! তরুণীকে পর্দায় মুড়ে দিলেন শিক্ষক

 পরীক্ষা হলে (Examination hall) ছোট পোশাক পরে গিয়েছিল তরুণী (Teenager)। পোশাকের ঝুল হাঁটুর উপরে, পায়ের অনেকটা অংশই উন্মুক্ত ছিল। আর তাই অভিনব পন্থায় তাঁকে পরীক্ষায় বসালেন কর্তৃপক্ষ। তাঁর পা ঢেকে দিলেন পর্দায়।

ঘটনাটি ঘটেছে অসমের তেজপুরে (Assam)। অসম এগ্রিকালচার ইউনিভার্সিটিতে প্রবেশিকা পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। বাবার সঙ্গে ৭০ কিলোমিটার দূর থেকে সকাল সকালই হাজির হয়েছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকতে কেউ তাঁকে বাধা দেননি, ঝামেলা শুরু হয় হলের ভিতর। তিনি জানিয়েছেন, “সিকিউরিটি গার্ড আমাকে ঢুকতে দিয়েছেন। কিন্তু পরীক্ষক বাধা দেন। বলেন, ছোট জামা পরে আমি ঢুকতে পারব না।


এই পরীক্ষা দিতে গেলে যে নির্দিষ্ট পোশাক বিধি মানতে হবে তেমন কথাও অ্যাডমিট কার্ডে আগে থেকে লেখা ছিল না বলে জানিয়েছেন বছর উনিশের ওই তরুণী। তাঁর আরও বক্তব্য, মাত্র কিছুদিন আগেই ঠিক ওই জায়গাতে ওই একই পোশাক পরে তিনি নিট পরীক্ষায় বসেছিলেন। তখন কিছুই হয়নি।

তরুণীর যাবতীয় প্রতিবাদ ব্যর্থ হয়। তাঁকে পরীক্ষা দিতে দেওয়া হয় ঠিকই, তবে আলাদা ব্যবস্থা করে। তাঁকে বলা হয় বড় প্যান্ট জোগাড় করে আনতে। কথামত তাঁর বাবা আট কিলোমিটার দূরের দোকানে ছোটেন বড় প্যান্ট কিনে আনতে। ইতিমধ্যে পরীক্ষার মূল্যবান সময় নষ্ট হলে শেষমেশ পর্দায় পা ঢেকে তরুণীকে পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হয়।

এখানেই শেষ নয়, তরুণীকে জ্ঞানও দেন ওই পরীক্ষক। বলেন, কেমন পোশাক পরে পরীক্ষা দিতে আসতে হয়, সে সম্বন্ধে সাধারণ জ্ঞানটুকু যদি না থাকে তবে জীবনে সে সাফল্য আশা করতে পারে না। গোটা ঘটনায় চূড়ান্ত অপমানিত বোধ করেছেন অসমের ওই তরুণী। সংবাদমাধ্যমের সামনে উগরে দিয়েছেন ক্ষোভ।খবর দ্য ওয়ালের/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *