ঢাকা, বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
শরীয়তপুরে শাপলা বিক্রি করে সংসার চালায় প্রায় ৬শ কৃষক
মোঃ আবুল হোসেন সরদার

শরীয়তপুরে শাপলা বিক্রি করে সংসার চালায় প্রায় ৬শ কৃষক

শরীয়তপুরে বর্ষায় পানিতে ডুবে যাওয়া জমি থেকে নৌকায় করে শাপলা তুলে এনে বাজারে বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছে  কৃষক ও দিনমজুররা। এ শাপলা বিক্রি করে চলে ৪ উপজেলার প্রায় আট শতাধিক পরিবার। শাপলা বিক্রিতে কোনও পুঁজি দরকার হয় না । বর্ষা মৌসুমে জেলার বিভিন্ন উপজেলার কৃষক ও দিনমজুররা শাপলা বিক্রি করে সংসারের খরচ চালান। শাপলা বিক্রি করে দৈনিক ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় হয় তাদের। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বলছে পাঁচ থেকে ছয়শ’ কৃষক সরাসরি শাপলা বেচা-কেনার সঙ্গে জড়িত।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় জেলার শরীয়তপুর সদর জাজিরা,নড়িয়া, ভেদরগঞ্জ, ডামুড্যা ও গোসাইরহাট উপজেলার নিচু এলাকার বিলে ফসলী জমিতে বা পুকুরে খালে বর্ষা মৌসুমে অনেক শাপলা ফুটে। আষাঢ় থেকে শুরু করে ভাদ/আশ্বিন মাস পর্যন্ত পাওয়া যায় শাপলা। শাপলা সংগ্রহকারীরা কাক ডাকা ভোরে নৌকা নিয়ে ডুবে যাওয়া জমিতে ও বিলের মধ্যে ঘুরে ঘুরে শাপলা সংগ্রহ করে থাকে। তাদের সঙ্গে কথা বলে জানাযায়, বর্ষা মৌসুমে প্রত্যেকে প্রতিদিন কমপক্ষে ৪০ থেকে ৭০ মুঠো (৭০-৮০ পিসে হয় এক মুঠো) শাপলা সংগ্রহ করতে পারে। পাইকাররা এসব শাপলা সংগ্রহকারীদের থেকে কিনে নেয়। দিন শেষে ৪০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা আয় করতে পারে শাপলা সংগ্রহকারীরা। বছরের প্রায় তিন মাস এ কাজ করে তারা জীবিকা নির্বাহ করে থাকে।

নড়িয়া উপজেলার নশাসন ইউনিয়নের পারাগাঁও বিল থেকে শাপলা সংগ্রহকারী মোঃ রবিউল বলেন, পানির সময় একেক জন কমপক্ষে ৪০ থেকে ৫০ মুঠো শাপলা সংগ্রহ করতে পারি। কেউ স্থানীয় বাজারে আবার কেউ এলাকায় ঘুরে-ঘুরে শাপলা বিক্রি করে। অনেকে পাইকারদের কাছে বিক্রি করে। পাইকাররা একত্রে করে শাপলা ঢাকার যাত্রাবাড়ীসহ বিভিন্ন পাইকারি বাজারে বিক্রি করে থাকেন।

শাপলা বিক্রেতা মুনসুর আলি হাওলাদার বলেন, শুকনা সিজনে জমিতে বদলা-কামলা দিয়ে সংসার চালাই। আর বর্ষাকালে বাড়ির চারপাশে থাকে পানি। এ সময় কোথাও কোনও কাজ থাকে না। বেকার বসে থাকতে হয়। তাই এ সময় বিল থেকে শাপলা তুলে বাজারে বিক্রি করে সংসার চালাই।

নড়িয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রোকনজ্জুমান বলেন, নড়িয়ার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে প্রায় সাতটি ইউনিয়নে প্রাকৃতিকভাবে ১০০ টনের মতো শাপলা উৎপাদন হয়। পাঁচ থেকে ছয়শ’ কৃষক সরাসরি শাপলা বেচা-কেনার সঙ্গে জড়িত। শাপলা অত্যন্ত পুষ্টিকর সবজি। এতে প্রচুর পরিমাণে খনিজ পদার্থ আছে। এছাড়া শর্করা, ক্যালসিয়াম, আমিষ পাওয়া যায়। তাই শাপলা দিন দিন জনপ্রিয় সবজি হয়ে উঠছে।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *