ঢাকা, শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৩৮ অপরাহ্ন
ভাষণে লখিমপুর নেই, কিছু লোক মানবাধিকার নিয়ে ‘বাছাবাছি করে, এটা ক্ষতিকর’, বললেন মোদী
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


ভাষণে লখিমপুর নেই, কিছু লোক মানবাধিকার নিয়ে ‘বাছাবাছি করে, এটা ক্ষতিকর’, বললেন মোদী

 মানবাধিকারের (human rights) ইস্যুতে ‘বাছাবাছি  করা’র (selective approach) মানসিকতায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয় বলে অভিমত জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (narendra modi)। ‘কিছু লোক’ ‘রাজনৈতিক লাভ, ক্ষতির দৃষ্টিকোণ থেকে’ (political gain or loss) মানবাধিকারের প্রশ্নকে বিচার করে দেশেরই ক্ষতি করছে বলে মঙ্গলবার দেশের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ২৮তম প্রতিষ্ঠা দিবসে  সরব হলেন প্রধানমন্ত্রী।


মোদী যখন একথা বলছেন, তখন দেশ আলোড়িত উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরির (lakhimpur kheri violence) ঘটনায়। সেখানে বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্র কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভরত কৃষকদের গাড়ি চাপা দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন। কৃষক হত্যার পাল্টা হিংসায় বিজেপি কর্মী সহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টে গোটা ঘটনায় তিরস্কৃত হয়েছে উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ সরকার। পুরো পর্বে প্রধানমন্ত্রী মোদীর নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। কিন্তু আজকের বক্তব্যে লখিমপুর কাণ্ডে তাঁর অবস্থানের কিছুটা আভাস মিলল হয়তো।

মোদী বলেন, কিছু মানুষ বিশেষ কিছু ঘটনায় মানবাধিকার লঙ্ঘন হতে দেখেন, কিন্তু একই ধরনের অন্য ঘটনার সময় নয়। রাজনীতির চোখ দিয়ে দেখলে মানবাধিকারই লঙ্ঘিত হয়। বাছাবাছি করার  স্বভাব গণতন্ত্রের পক্ষে ক্ষতিকর। মানধিকারের নামে কিছু লোক দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করে। এ ব্যাপারে আমাদের সতর্ক থাকা দরকার। রাজনৈতিক লাভ, লোকসানের দৃষ্টিতে মানবাধিকারের বিচার করলে এইসব অধিকার, গণতন্ত্রেরও ক্ষতি হয়।


ভারতের স্বাধীনতার লড়াই এবং আমাদের ইতিহাস মানবাধিকারের বিরাট উত্স বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

গত শনিবার অনেক টালবাহানার পর পুলিশের কাছে জেরার জন্য হাজিরা দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলে। তাঁর নামে হত্যার মামলায় এফআইআর দায়ের করে জেরার জন্য হাজিরা দিতে নোটিস পাঠিয়েছিল পুলিশ। দুবারের নোটিসে আসেন তিনি। বিরোধী রাজনৈতিক মহল, নাগরিক সংগঠনগুলি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলে বলে আশিসকে  আড়াল করার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ তুলেছিল। সুপ্রিম কোর্টও তাঁকে গ্রেফতার না করায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশকে তিরস্কার করে প্রশ্ন করে, একইরকম অন্য অভিযুক্তদের কী এমন ছাড় দেওয়া হয়।  খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *