ঢাকা, মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:১৪ অপরাহ্ন
তালিবানের সমর্থনে পোস্ট, ‘পর্যাপ্ত প্রমাণ নেই’, অসমে গ্রেফতার ১৬ জনের প্রায় সবার জামিন
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


তালিবানের সমর্থনে পোস্ট, ‘পর্যাপ্ত প্রমাণ নেই’, অসমে গ্রেফতার ১৬ জনের প্রায় সবার জামিন

 জেলে আটকে রাখার মতো পর্যাপ্ত প্রমাণ, ভিত্তি নেই বলে জানিয়ে অসম পুলিশের (assam police) হাতে আফগানিস্তানে সাম্প্রতিক তালিবানের (taliban) ক্ষমতা দখলের সমর্থনে সোস্যাল মিডিয়ায় পোস্টের (social media post) অভিযোগে গ্রেফতার ১৬ জনের অন্ততঃ ১৪ জনকে জামিন (bail) দিল স্থানীয় আদালত। একজন বাদে বাকি সবার বিরুদ্ধে কঠোর ইউএপিএ (uapa) ধারা প্রয়োগ করা হয়েছিল বলে জামিন পাওয়া বেশ কঠিন ছিল।
গত ২১ আগস্ট ১৪ জনের গ্রেফতারির কথা ঘোষণা করেছিলেন অসমের স্পেশাল ডিজিপি (আইনশৃঙ্খলা) জি পি সিং। বাকি দুজন ধরা পড়েন পরদিন। কোনও ভয়ভীতি, পক্ষপাতিত্ব ছাড়া ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে তখন নির্দেশ দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা।
আজ অভিযুক্তদের জামিন প্রাপ্তির ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া চাওয়া হলে পুলিশকর্তাটি মন্তব্য করেন, জামিন মঞ্জুর করা বিচার বিভাগের বিশেষ অধিকারের ব্যাপার।
জামিনপ্রাপ্তদের অন্যতম মৌলানা ফজলুল করিম কাসিমি। তিনি এআইইউডিএফের সাধারণ সম্পাদক ও জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক। দরংয়ের সিপাইঝড়ের এই নেতাকে জামিন দিয়ে গুয়াহাটি হাইকোর্ট বলেছে, ফেসবুক পোস্টটি তাঁর ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো হয়েছে, এটুকু বাদ দিলে তাঁর বিরুদ্ধে আপত্তি করার মতো আর কিছুই নেই। যদি এটা মেনেও নেওয়া হয় যে, আবেদনকারী ফেসবুক পোস্টটির লেখক, অন্য আপত্তিকর তথ্যপ্রমাণের অভাবে শুধুমাত্র ওই কনটেন্টই ধর্তব্যযোগ্য অপরাধ হতে পারে কিনা, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তাই আবেদনকারীকে এই মামলায় আর হেপাজতে আটক রাখার প্রয়োজন নেই, বলেন বিচারপতি সুমন শ্যাম।
এই মামলার ব্যাপারে ওয়াকিবহাল গুয়াহাটি হাইকোর্টের এক আইনজীবী বলেন, অধিকাংশ পোস্টই উদ্দেশ্যহীন বলে মনে হয়েছে। ইউএপিএর মতো কঠোর আইন প্রয়োগের প্রয়োজন ছিল বলে মনে হয় না। আদালত এটা বুঝতে পেরেছে বলেই এতজন জামিন পেলেন।
একমাত্র যাঁকে ইউএপিএ-তে জড়ানো হয়নি, ইয়াসিন খান নামে সেই মৌলানাও জামিনে ছাড়া পেয়েছেন। খবর দ্য ওয়ালের  /এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *