ঢাকা, রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন
ইউটিউব চ্যানেলের নতুন নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে ৫টি সিক্রেট কৌশল | Techtunes
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :


আসসালামু আলাইকুম। বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই? আশা করছি আপনারা সকলেই আল্লাহর রহমতে অনেক বেশি ভালো আছেন। বর্তমানে প্রায় সকলেই ইউটিউবে বিভিন্ন ভিডিও দেখে থাকি। কিন্তু ইউটিউবে ভিডিও দেখার পাশাপাশি আমরা চাই যে, আমাদের নিজস্ব একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকুক।

তবে ইউটিউব এ চ্যানেল তৈরি করার ক্ষেত্রে আমাদের কিছু ভুল আমাদের কিছু ভুল থেকে থাকে। আর এই ভুলটি হয় ইউটিউবে চ্যানেল তৈরি করার সময় চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে। আমরা ইউটিউবে চ্যানেল তৈরি করার সময় এমনিতেই এক নাম দিয়ে থাকি। আর এতে করে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায় না এবং ইউটিউবে আমরাও সফল হতে পারি না। তবে ইউটিউবে সফল হবার জন্য অবশ্যই একটি চ্যানেলের নাম অনেক বড় বেশি ভূমিকা পালন করে।

তাই আজকের এই টিউনে আলোচনা করব একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করা নিয়ে। আশা করছি এই টিউনটির মাধ্যমে আপনি কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম সঠিকভাবে নির্ধারণ করতে পারবেন। আপনি যদি ভবিষ্যতে একজন ইউটিউবার হতে চান, তবে আজকের এই টিউনটি আপনার কাছে অনেক গুরত্বপূর্ণ হতে চলেছে। এই টিউনের প্রত্যেকটি কথা আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ‌ তাই অবশ্যই টিউনটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়বেন।

ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ নিয়ে কিছু কথা

কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম কিন্তু অনেক বেশি গুরুত্ব বহন করে। আর এজন্য অবশ্যই কোন একটি চ্যানেলের নাম সঠিকভাবে বাছাই করা জরুরি। ‌কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় আপনাকে মাথায় রাখতে হবে। আর তাহলেই আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য একটি সুন্দর নাম নির্বাচন করতে পারবেন। এবার চলুন ধারাবাহিকভাবে ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করা নিয়ে আলোচনা করা যাক।

১. প্রথমেই সুন্দর একটি নাম নির্ধারণ করা

দেখুন, একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম কিন্তু অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আপনি যদি কোনো একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে সেটির নাম বারবার পরিবর্তন করতে থাকেন, তবে এতে করে আপনার অডিয়েন্স বিরক্তবোধ করবে। এছাড়া দেখা যাবে পরবর্তীতে অনেকেই আপনার সেই নামটি লিখে অনুসন্ধান করছে; কিন্তু পরবর্তীতে আপনার সেই চ্যানেল খুঁজে না পাবার কারণে আর আপনার ভিডিওগুলো দেখতে পারছে না। তাই এজন্য আপনাকে অবশ্যই প্রথমেই সুন্দর একটি নাম নির্ধারণ করতে হবে। কোন একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলার সময় মাথায় যে নামটি চলে আসলো, সেই নাম দিয়েই ইউটিউব চ্যানেল খুললে চলবে না।

বরং, ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমেই ভেবেচিন্তে নাম নির্ধারণ করতে হবে। এক্ষেত্রে সে সময় অবশ্যই আপনার মাথায় রাখা উচিত যে, আপনি বর্তমানে যে নামটি নির্ধারণ করছেন এটি আজীবনের জন্য আপনার ইউটিউব চ্যানেলের থাকবে। আপনি সেই সময় ভেবেচিন্তে এমন একটি নাম নির্ধারণ করবেন, যা ভবিষ্যতে সারা জীবন থাকবে। আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল খোলার সময় কোন একটি নাম দিয়ে দেন এবং কিছুদিন পর সে নামটি পরিবর্তন করেন, তবে এতে করে আপনি পূর্বের সেই ভিজিটর গুলোকে হারাতে পারেন। কেননা তারা এতে করে পরবর্তীতে আপনাকে অনুসন্ধান করেও আর খুঁজে পাবেনা।

তাই অবশ্যই আপনার কনটেন্ট এর ওপর ভিত্তি করে প্রথমেই আজীবনের জন্য একটি নাম নির্ধারণ করে নিতে হবে; যেই নাম টি আপনি আর কোনদিনও পরিবর্তন করবেন না। আর এতে করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিজিটর কম হলেও তারা সবসময় আপনার সঙ্গেই থাকবে এবং এতে করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিজিটর হারানোর কোন ভয় থাকবে না। এছাড়া কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম বারবার পরিবর্তন করলে সেটি কেমন দেখায়। এতে করে আপনি যে আপনার চ্যানেলের নাম নির্ধারণ নিয়ে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারছেন না, এটিই তার একটি নমুনা। আর এতে করে আপনার ভিজিটর আপনার সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করতে পারে।

ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে আপনাকে আরও কিছু বিষয়ের উপর নজর দিতে হবে। যেসব বিষয় গুলো আপনি মাথায় রাখলে, আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য একটি গ্রহণযোগ্য এবং সঠিক নাম বাছাই করতে পারবেন। চলুন তবে অন্য সব বিষয়গুলো দেখে নেয়া যাক। টিউনটি সম্পূর্ণ শুরু করার আগে আপনাকে বলে নিচ্ছি, আপনি যদি এ পর্যন্ত আমাকে ফলো না করে থাকেন, তবে অবশ্যই আমাকে ফলো করে রাখবেন।

২. ইউটিউব চ্যানেলের নাম ছোট করবেন

কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে প্রথমেই যে জিনিসটা মাথায় রাখতে হবে তা হচ্ছে, চ্যানেলের নামটি অবশ্যই ছোট করতে হবে। ‌ আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম এজন্যই ছোট করবেন যে, এতে করে আপনার দর্শক গুলো আপনার চ্যানেলের নাম মনে রাখতে পারবে। এমন অনেক দর্শক রয়েছে যারা ইউটিউব চ্যানেলের বড় কোন নাম মনে রাখতে পারবে না। আর এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেল যদি যথেষ্ট জনপ্রিয় না হয়, তবে এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলের নামের কথা তাদের ভুলে যাওয়াই স্বাভাবিক। এতে করে দেখা যাবে ভবিষ্যতে সেই ব্যক্তি যদি আপনার চ্যানেলের নাম লিখে সার্চ করতে চায়, তবে সে সঠিক ভাবে আপনার চ্যানেলের নাম লিখে সার্চ করতে পারবে না।

বড় কোন ইউটিউব চ্যানেলের নাম সঠিকভাবে বা সঠিক বানান লিখে সার্চ না করার কারণে আপনার চ্যানেল টি সার্চ রেজাল্টে নাও আসতে পারে। তাই অবশ্যই আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম টি ছোট করবেন। তবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম ছোট করলেও সেটিকে অবশ্যই তথ্য বহুল করবেন। এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলের নাম যদি সত্যিই অনেক বড় করতে হয়, তবে এক্ষেত্রে সেই নামগুলোর প্রথম অক্ষর লিখে একটি সংক্ষিপ্ত রূপ দাঁড় করাবেন। আর এতে করে ভবিষ্যতে আপনি সেই সংক্ষিপ্ত শব্দগুলোর বর্ণনা আপনার দর্শকদের বলতে পারেন।

আপনি যদি কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম ছোট করেন, তবে এ ক্ষেত্রে আপনার চ্যানেল কম জনপ্রিয় হলেও আপনার কোন দর্শক সেটির নাম মনে রাখতে পারবে। সেইসঙ্গে সেই দর্শক যদি ভবিষ্যতে আপনার ভিডিও প্রয়োজনীয় মনে করে, তবে সে অনুসন্ধান করে আপনার চ্যানেলকে খুব সহজে খুঁজে নিতে পারবে। এক্ষেত্রে আপনি যদি অনেক বড় নাম দিয়ে রাখতেন, তবে হয়তোবা সেই ব্যক্তি সেই নামটি সঠিকভাবে মনে না রাখার কারণে আপনার চ্যানেল টি আর খুঁজেই পাবে না। যার ফলে আপনি হয়তোবা অনেক কাছের দর্শক হারাতে থাকবেন। তাই কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই সেই নামটি কে যথেষ্ট ছোট করে আনতে হবে।

৩. আপনার চ্যানেলের নাম সহজ হতে হবে

দেখুন, আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য এমন একটি নাম দিলেন, যে নামটি উচ্চারণ করতে অনেক কঠিন হচ্ছে। এছাড়া দেখা গেলো আপনি আপনার চ্যানেলের জন্য যে নামটি দিয়েছেন, সেটি উচ্চারণে কঠিন হওয়ার পাশাপাশি সেটির অর্থ ও কঠিন। ‌ দেখা গেলো আপনি এমন একটি নাম নির্ধারণ করেছেন, যে নামটি কেউ সঠিকভাবে মনে রাখতে পারে না। আর এতে করে তারা যখন ভবিষ্যতে সেই নামটি লিখে ইউটিউবে সার্চ করবে, তখন তারা সেখানে একটি ভুল করে ফেলছে। কিন্তু আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম এমন হওয়া যাবে না।

এক্ষেত্রে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম হতে হবে সহজ সাবলীল ভাষায় এবং ছোট শব্দের। আর এতে করে কোন একজন ভিজিটর খুব সহজেই আপনার নামটি মনে রাখতে পারবে এবং সে নামটি লিখে পরবর্তীতে ইউটিউবে সঠিকভাবেই অনুসন্ধান করতে পারবে। যেখানে নাম লিখে ভুল করার সম্ভাবনা নেই। আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেলের নাম অনেক কঠিন করে রাখেন, তবে দেখা যাবে সেই দর্শক অনেকগুলো চ্যানেলের নাম মনে রাখার কারণে আপনার চ্যানেলের নাম আর মনে রাখতে পারছে না। এছাড়া আপনার চ্যানেলের নাম কোন এক সময় মুখস্থ রাখলেও অনেকদিন পর আপনার চ্যানেলের সেই কঠিন নামটি লিখে আর অনুসন্ধান করতে পারছে না।

আর এতে করে দেখা যাবে যে, কোন একজন ব্যক্তি অনেকদিন পর আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও দেখতে এলে সেগুলো আর খুঁজে পাবেনা। এতে করে মাঝখান থেকে আপনি আপনার দর্শক গুলো হারাবেন। তাই কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই সেই নামটি সহজ সাবলীল ভাষায় হতে হবে এবং সেটি হতে হবে ছোট শব্দে। আর তাহলেই অনেক দিন পরেও কোন দর্শক আপনার চ্যানেলের নাম মনে রাখতে পারবে এবং সঠিকভাবেই সে আবার আপনার চ্যানেলে অনুসন্ধান করার মাধ্যমে ফিরে আসতে পারবে। তাই আপনি অবশ্যই আপনার চ্যানেলের নামটিকে ছোট এবং সহজ ভাষায় করবেন।

৪. ইউটিউব চ্যানেলের জন্য ইউনিক নাম নির্ধারণ করবেন

এরপরে আমি আপনাকে যে বিষয়টি বলব তাহলো, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য অবশ্যই আপনি একটি ইউনিক নাম নির্ধারণ করবেন। ‌আপনারা এমন অনেকেই রয়েছেন যে, যারা ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে অনেক বড় বড় ইউটিউবার এর নাম দিয়ে থাকেন। ইউটিউবে যাদের অনেক বড় বড় চ্যানেল রয়েছে, আপনারা তাদের নাম গুলোকে কপি করে নিজের চ্যানেলে দেবার চেষ্টা করেন। আর এখানেই কিন্তু আপনারা বড় একটি ভুল করে থাকেন। এক্ষেত্রে পরবর্তীতে দেখা যায় যে, আপনি সেই চ্যানেলের নাম লিখে সার্চ করার পর, ইউটিউবের সার্চ রেজাল্টে আপনার চ্যানেল টি আর আসে না; বরং সেই বড় বড় ইউটিউবারদের চ্যানেল চলে আসে।

আর এক্ষেত্রে এমনই হওয়ার কথা। ‌কেননা আপনি যখন সেই বড় ইউটিউবার এর ইউটিউব চ্যানেলের নাম আপনার চ্যানেলের ক্ষেত্রে দিবেন, তখন সেই নামটি লিখে অন্য কেউ সার্চ করলে অবশ্যই তার চ্যানেলকে ইউটিউব সার্চ রেজাল্টে এনে দেবে। আর এভাবে করে দেখা যায় যে, আপনার চ্যানেলটির নাম লিখে সার্চ করলে আপনি আপনার চ্যানেল টি খুঁজে পাচ্ছে না। এজন্য আপনাকে অবশ্যই আপনাকে এমন একটি নাম সিলেক্ট করতে হবে যে নামটি ইউটিউবে নেই অথবা সেই নামের সাথে সম্পর্কযুক্ত কোন জনপ্রিয় চ্যানেল নেই। এতে করে কিছুদিনের মধ্যেই আপনার চ্যানেল টি সার্চ রেংকিং এ চলে আসবে।

আপনি যতই ইউনিক নাম সিলেক্ট করুন না কেন, প্রথম দিকে আপনার চ্যানেল সার্চ করার মাধ্যমে ইউটিউবে প্রথম দিকে চলে নাও আসতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি কিছুদিন আপনার চ্যানেলের ভিডিও আপলোড করে সেই ভিডিও ট্যাগ এবং টাইটেলে আপনার চ্যানেলের নাম দিয়ে দিলে, কিছুদিনের মধ্যে আপনার চ্যানেল টি সার্চ রেজাল্টের প্রথম চলে আসবে। এক্ষেত্রে পরবর্তীতে সেই চ্যানেলের নাম দেখে কেউ যদি ইউটিউবে সার্চ করে, তবে আপনার চ্যানেল এবং আপনার ভিডিওগুলো আসতে থাকবে। তবে এর জন্য অবশ্যই কিছুদিন সময় লাগবে।

তবে আপনি ইউটিউবে আপনার চ্যানেলের প্রথমবার নাম দেবার ক্ষেত্রে, সেই নামটি লিখে ইউটিউব এ সার্চ করবেন। এক্ষেত্রে সেই নামের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে যদি কোন চ্যানেলে চলে আসে, তবে সেই নামটি আপনি অবশ্যই এড়িয়ে চলবেন। তবে এখানে যদি এমন কোন চ্যানেল চলে আসে, যেগুলো অতটা জনপ্রিয় নয় বা যেগুলোর সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা কয়েকজন মাত্র; তবে এক্ষেত্রে আপনি এসব চ্যানেল গুলোর নামের সঙ্গে মিল রেখে চ্যানেল তৈরি করতে পারেন। তবে এর জন্য অবশ্যই আপনার এরকম মনোবল থাকতে হবে যে, কিছুদিনের মধ্যেই আপনি সেই চ্যানেলটি কে অতিক্রম করে যেতে পারবেন। আর তাহলেই কেবল আপনি সেসব ছোট চ্যানেলের নামের সঙ্গে মিল রেখে আপনার চ্যানেলের নাম রাখতে পারেন।

এছাড়া আপনি যখন কোন একটি নাম নির্ধারণ করে সেটি লিখে ইউটিউব এ সার্চ করবেন, তখন ইউটিউব এর সার্চ রেজাল্টে সেই নামের সঙ্গে মিল রেখে চ্যানেলগুলো নাও আসতে পারে। এক্ষেত্রে দেখা যাবে যে, অনেক সময় চ্যানেলের পরিবর্তে শুধুমাত্র ভিডিও আসতে পারে এবং তার মাঝে দু একটি চ্যানেল আসতে পারে। আপনার সার্চ করা কিওয়ার্ড এর সঙ্গে মিল রেখে শুধুমাত্র চ্যানেল দেখার জন্য ইউটিউব এর সার্চ বার থেকে উপরের Filter অপশনে গিয়ে শুধুমাত্র Channel অপশন সিলেক্ট করতে পারেন। এতে করে পরবর্তীতে আপনাকে শুধুমাত্র চ্যানেলের তালিকা গুলো দেখাবে। আর তখন যদি আপনার সার্চ করা কিওয়ার্ড এর সঙ্গে মিল রেখে কোন জনপ্রিয় চ্যানেল চলে আসে, তবে আপনি সেই চ্যানেলের নাম টি আপনার চ্যানেলে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।

আপনাকে অবশ্যই এটি মাথায় রাখা জরুরি যে, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম যেন অবশ্যই ইউনিক হয়। এছাড়া কোন জনপ্রিয় চ্যানেলের সঙ্গে মিল রেখে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে যাবেন না। আপনার চ্যানেল হবে আপনার কনটেন্ট অনুযায়ী এবং সম্পূর্ণ ইউনিক। আর তাহলেই আপনার চ্যানেল টি আস্তে আস্তে জনপ্রিয়তার দিকে চলে যাবে ইনশাআল্লাহ।

৫. আপনার চ্যানেলের নামে কাস্টম ইউআরএল (Custom URL) রয়েছে কিনা

আপনার চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার পর আপনার যে জিনিসটি সবচাইতে মাথা রাখা জরুরি তা হচ্ছে, আপনার চ্যানেলের এর নামে Custom URL রয়েছে কিনা। আমরা যখন সাধারণভাবে কোনো একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলি, তখন ডিফল্ট ভাবে সেই চ্যানেলের URL অনেক বেশি দীর্ঘ থাকে। এবার আপনি যদি এই URL টি কোন একজন ব্যক্তির কাছে শেয়ার করেন, তবে সেই ব্যক্তি কিন্তু কোনভাবেই এই URL মুখস্ত রাখতে পারবে না বা মনে রাখতে পারবে না। এক্ষেত্রে আপনার সেই চ্যানেলটি পরবর্তীতে ব্রাউজ করার জন্য অবশ্যই থাকে সেটি কোন জায়গায় সংরক্ষণ করে রাখতে হবে। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলের যদি একটি Custom URL থাকতো, তবে খুব সহজেই কোন ব্যক্তি পরবর্তীতে সেই URL টি মনে রাখতে পারত।

আপনার ইউটিউব চ্যানেলের যদি একটি Custom URL থাকে, তবে কোন ব্যক্তি সেই ইউ আর এল টি খুব সহজে মনে রাখতে পারে। এবার আপনি হয়তোবা মনে করতে পারেন যে, কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ১০০ জন হবার পরেই শুধুমাত্র Custom URL সেট করার অপশন চলে আসে। তবে আমি কিভাবে আগে থেকে Custom URL নির্ধারণ করার বিষয়টি জানবো। তবে এক্ষেত্রে আমি আপনাকে একটি ট্রিকস বলে দিচ্ছি। আর এতে করে আপনি আগে থেকেই ইতি জানতে পারবেন যে, আপনার চ্যানেলের জন্য Custom URL পরবর্তীতে সেট করতে পারবেন কিনা।

আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য Custom URL রয়েছে কিনা, এটি আগে থেকে জানার কৌশল

এজন্য আপনি আপনার চ্যানেল টি লিখে অনুসন্ধান করতে পারেন। এবার মনে করুন আপনার কোন ইউটিউব চ্যানেলের নাম Techtunes হবে। এবার আপনি ইউটিউবে গিয়ে অথবা গুগল এ গিয়ে youtube.com/techtunes এভাবে লিখে সার্চ করলেন। এবার এই URL যদি আপনাকে কোন একটি চ্যানেলে নিয়ে যায়, তবে আপনি বুঝতে পারবেন যে এই নামে ইতিমধ্যেই কেউ Custom URL বানিয়ে নিয়েছে। এক্ষেত্রে পরবর্তীতে আপনি আর আপনার চ্যানেলের জন্য youtube.com/techtunes নামে Custom URL করতে পারবেন না।

এছাড়া আপনার দ্বিতীয় কোনো যদি চ্যানেল থাকে এবং সেখানে যদি ১০০+ সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা থাকে, তবে আপনি সেই চ্যানেলের সেটিং থেকে আপনার নতুন চ্যানেলের জন্য Custom URL খুঁজে দেখতে পারেন। এতে করে তখন যদি সেখানে Custom URL পেয়ে যান, তবে আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য সেই নামটি নির্ধারণ করতে পারেন। এতে করে ভবিষ্যতে আপনাকে আর Custom URL নিয়ে কোন ধরনের চিন্তা করতে হবে না। Custom URL কোন একটি ইউটিউব চ্যানেলের গ্রহণযোগ্যতা ও অনেক বাড়িয়ে তোলে। আপনার চ্যানেলের URL দেখে এটি সম্পর্কে অনেক ধারণাই নিতে পারে।

আপনার চ্যানেল টি কোন ধরনের এটি আপনার চ্যানেলের ইউআরএল দেখেই অনেকটা বোঝা যায়। আর এজন্য অবশ্যই আগে থেকেই Custom URL অনুসন্ধান করা জরুরি। আশা করছি আপনি উপরের কৌশলটি কাজে লাগিয়ে আপনার চ্যানেলের জন্য আগে থেকেই Custom URL অনুসন্ধান করতে পারবেন। আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য এত সব নাম নির্ধারণ করার সময় অবশ্যই একটি অর্থবোধক নাম নির্ধারণ করবেন। যাতে করে আপনার চ্যানেলের নামটি দেখে অনেকজন ব্যক্তি এটি নির্ধারণ করতে পারে যে, আপনার চ্যানেল টি কোন ধরনের বা আপনি আপনার চ্যানেলে কোন ধরনের ভিডিও আপলোড করে।

যেমন আপনি যদি কোন একটি চ্যানেলে টিউটোরিয়াল অথবা প্রযুক্তি ব্যাখ্যা হিসেবে ভিডিও আপলোড করে থাকেন, তবে আপনার চ্যানেলের নামের কথার মধ্যেই সে অর্থটি ফুটিয়ে তুলবেন। এতে করে আপনার চ্যানেলের নাম আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

শেষ কথা

একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকে অনেকের স্বপ্ন। আর সেই স্বপ্নটিকে বাস্তবে পরিণত করার জন্য চলে নানা প্রচেষ্টা। সেই প্রচেষ্টা থেকেই প্রথমে কোন একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা দরকার এবং সেই চ্যানেলটির জন্য একটি সুন্দর নাম নির্বাচন করার দরকার। একটি ইউটিউব চ্যানেলের সুন্দর নাম এবং মানুষের গ্রহণযোগ্য নাম মানুষের কাছে সেই ইউটিউব চ্যানেল টিকে আরও বেশি আকর্ষিত করে। তাই আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই উপরের বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন।

আশা করছি আজকের টিউন এর মাধ্যমে আপনি ভবিষ্যতে ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে আর কোন দ্বিধা দ্বন্দ্ব পড়বেন না। যদি টিউনটির মাঝে আপনার কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয়ে থাকে, এটি অবশ্যই নিচে টিউনমেন্ট করে আমাকে জানাবেন। আমি চেষ্টা করব আপনাকে সঠিক উত্তর দেবার জন্য। আশা করছি আজকের টিউন টি আপনার কাছে অনেক ভালো লেগেছে। ‌ আর ইউটিউব সম্পর্কিত আজকের এই টিউন টি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে, তবে টিউনটিতে একটু জোসস করতে ভুলে যাবেন না এবং সেইসঙ্গে আপনার বন্ধুদেরকে জানানোর জন্য যে কোন মাধ্যমে শেয়ার করতে পারেন। আসসালামু আলাইকুম।

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: