ঢাকা, সোমবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন
ধূপগুড়ির হাসপাতালে বিদ্যুৎ নেই! মোবাইলের টর্চ জ্বেলেই চলল থুতনি সেলাই
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

ধূপগুড়ির হাসপাতালে বিদ্যুৎ নেই! মোবাইলের টর্চ জ্বেলেই চলল থুতনি সেলাই

 পথ দুর্ঘটনায় আহত যুবকরা চিকিৎসাধীন ছিলেন ধূপগুড়ি (Dhupguri) গ্রামীণ হাসপাতালে। কাটাছেঁড়াতে চলছিল সেলাই। কিন্তু হঠাৎই বাধ সাধে বিদ্যুৎ। লোডশেডিং হয়ে পড়ে হাসপাতালে। গ্রামের হাসপাতাল, হঠাৎ কারেন্ট চলে গেলে বিকল্প ব্যবস্থা করা যায়নি। আর তাই উপায় না দেখে মোবাইলের আলোতেই চিকিৎসা চালিয়ে যান ডাক্তারবাবুরা।


ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বিকেলে। এদিন পথ দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য এসেছিলেন দুই যুবক। তাঁদের মধ্যে একজনের থুতনি ফেটে গিয়েছিল। তাই সেলাই করা হচ্ছিল। কিন্তু হঠাৎ বিদ্যুৎ বিভ্রাট হয়। অন্ধকারে ছেয়ে যায় হাসপাতাল চত্বর। অভিযোগ, সেই মুহূর্তে আলো জ্বালানোর অন্য কোনও বিকল্প ব্যবস্থা ছিল না হাসপাতালে। তাই অগত্যা মাঠে নামেন যুবকদের সঙ্গে থাকা বাকিরা। তাঁরাই জ্বেলে ধরেন নিজের নিজের মোবাইলের টর্চ। তাতে যা আলো হয়েছিল, তাতেই চলে থুতনি সেলাইয়ের কাজ।


তবে মোবাইলের আলো যে হাসপাতালে বিদ্যুতের বিকল্প হতে পারে না তা বলাই বাহুল্য। সেকথা মেনেও নিচ্ছেন আহত যুবকদের সঙ্গীরা। তাঁদের কথায় এতে আরও বড় বিপদ ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। তাছাড়া আরও জটিল কোনও অস্ত্রোপচারের সময় যদি এই বিভ্রাট ঘটত, তখন সমস্যা আরও বাড়ত বলেও জানিয়েছেন তাঁরা।

যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে হাসপাতালে জেনারেটরের ব্যবস্থা রয়েছে। তা চালু করতে খানিক দেরি হয়েছিল। সেই সময়ের মধ্যেই মোবাইলের আলো জ্বেলে সেলাইয়ের কাজ চলেছে। খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: