ঢাকা, শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন
‘লজ্জা’, ‘লজ্জা!’ বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানদের দেওয়া উপহারসামগ্রী বেচে দিয়েছেন ইমরান?
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

‘লজ্জা’, ‘লজ্জা!’ বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানদের দেওয়া উপহারসামগ্রী বেচে দিয়েছেন ইমরান?

 ইমরান খানের (imran khan) বিরুদ্ধে অন্য নানা দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের (head of states) থেকে পাওয়া  উপহারসামগ্রী (gifts) বেচে দেওয়ার (sell off) অভিযোগ উঠল। বিরোধী দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ) ভাইস প্রেসিডেন্ট মরিয়ম নওয়াজ ট্যুইট করেছেন, হজরত ওমর (পয়গম্বর মহম্মদের সঙ্গী) তাঁর পরিধেয় বস্ত্রের দায় নিয়েছিলেন, আর আপনি (ইমরান খান) তোষাখানা থেকে বিদেশি উপহারসামগ্রী লুঠ করেছেন, তারপর আবার মদিনা তৈরির কথা বলছেন! কী করে একটা লোক এতটা সংবেদনহীন, বোবা, কালা, অন্ধ হয়?

পাকিস্তানের গিফট ডিপোজিটরি নিয়মানুসারে, প্রকাশ্যে নিলাম (open auction) না হলে প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রীদের পাওয়া যাবতীয় উপহার সরকারি সম্পদ বলে ধরা হয়। দি এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলেছে, ১০ হাজার টাকার কম দামী উপহারসামগ্রী অবশ্য কেউ নিজের কাছে রাখতে পারেন। সেজন্য কোনও মূল্য দিতে হয় না।

অভিযোগ, ইমরানের বেচে দেওয়া সামগ্রীর মধ্যে একটি দামী ঘড়ি (watch) আছে। সেটি তাঁকে গিফট করেছিলেন কোনও একটি উপসাগরীয় দেশের যুবরাজ। পাকিস্তানের বিরোধী নেতা মৌলানা ফজলুর রহমানের দাবি, ইমরানের পাওয়া ঘড়িটার দাম ১০ লাখ মার্কিন ডলার। তাঁর এক ঘনিষ্ঠ  সহযোগী সেটি দুবাইয়ে ওই দামেই বিক্রি করেছেন। ইমরান ১০ লাখ মার্কিন ডলার পেয়ে গিয়েছেন। এটা ওই যুবরাজও জানতে পেরেছেন। ব্যাপারটা সত্যিই খুব লজ্জার। এতে পাকিস্তানের মুখ পুড়েছে বলে অভিযোগ করছেন বিরোধীরা।


যদিও ইমরানের বিশেষ রাজনৈতিক উপদেষ্টা ডঃ শাহবাজ গিলের অভিমত, সাধারণতঃ প্রধানমন্ত্রী যত উপহার পান, সব তোষাখানাতেই জমা হয়। তবে চাইলে যে কোনও উপহার তার উপযুক্ত  দাম চুকিয়ে নিজের কাছে রাখতেই পারেন তিনি।গত মাসে পাকিস্তান সরকার ইমরানের বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানদের থেকে পাওয়া উপহারসামগ্রীর বিস্তারিত তালিকা প্রকাশের দাবি খারিজ করে দেয়, বলে, এতে জাতীয় স্বার্থ ও অন্য রাষ্ট্রের সঙ্গে দেশের সম্পর্ক নষ্ট হবে। খবর দ্য ওয়ালের /২০২১/এনবিএস/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *