ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:১৭ অপরাহ্ন
ইরান সম্পর্কে যে নতুন দাবি করলেন আমেরিকার বিশেষ প্রতিনিধি
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

ইরান সম্পর্কে যে নতুন দাবি করলেন আমেরিকার বিশেষ প্রতিনিধি


আমেরিকার ইরান বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি রবার্ট ম্যালি ইরানের সঙ্গে পাশ্চাত্যের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা সম্পর্কে নয়া দাবি উত্থাপন করেছেন। তিনি এই সমঝোতা থেকে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে আমেরিকার বের হয়ে যাওয়ার বিষয়টি চেপে গিয়ে দাবি করেছেন, ওই সমঝোতা ছিল ইরানের সঙ্গে আমেরিকার ব্যাপকভিত্তিক কূটনৈতিক সংলাপের সূচনা।

ইরান ২০১৫ সালে তার বেসামরিক পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আমেরিকাসহ জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানির সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করে। ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতায় স্বাক্ষরকারী দেশগুলোকে সে সময় ৫+১ গ্রুপ বলে অভিহিত করা হতো।

কিন্তু ইরান ওই সমঝোতায় নিজের দেয়া সব প্রতিশ্রুতি পূরণ করে যাওয়া সত্ত্বেও আমেরিকা ২০১৮ সালে একতরফাভাবে এটি থেকে বেরিয়ে যায়।এরপর ইরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধ শুরু করে ওয়াশিংটন এবং নানা অজুহাতে একের পর এক তেহরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে থাকে।

চলতি বছরের গোড়ার দিকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আমেরিকার দায়িত্ব গ্রহণ করার পর তার আগের সরকারের ইরান বিরোধী সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতির ব্যর্থতা স্বীকার করেন এবং পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসার আগ্রহ প্রকাশ করেন। কিন্তু এ পর্যন্ত তিনি সাবেক ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের ইরান বিরোধী ‘সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের’ নীতিই বহাল রেখেছেন। বাইডেন ও তার উপদেষ্টারা পরমাণু সমঝোতায় প্রত্যাবর্তনের নামে ইরানের ওপর আমেরিকার আরো কিছু অবৈধ দাবি-দাওয়া চাপিয়ে দিতে চান।

কিন্তু ইরান আমেরিকাকে সে সুযোগ দিতে চাচ্ছে না। তেহরান বলছে, আমেরিকা অবৈধভাবে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে বলে তাকে আগে বিনা বাক্যব্যয়ে এতে ফিরে এসে ইরানের ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে হবে এবং বিষয়টির কার্যকারিতা ইরানের কাছে প্রমাণিত হতে হবে।

তেহরান একথাও বলেছে, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ইরানি জাতির ঘোর শত্রু; কাজেই আমেরিকার সঙ্গে ইরানের কোনো দ্বিপক্ষীয় সংলাপ হবে না। কিন্তু রবার্ট ম্যালি দাবি করছেন, আমেরিকার উদ্দেশ্য ছিল পরমাণু সমঝোতার মাধ্যমে ইরানের সঙ্গে তার দেশের ব্যাপকভিত্তিক সংলাপের সূচনা করা। ইরানি কর্মকর্তারা গত ৪০ বছর ধরে বলে এসেছেন, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ও দেশটির আগ্রাসী সরকারকে ইরানি জনগণ ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে এবং তারা আর কখনও এদেশের জনগণের মনে স্থান করে নিতে পারবে না। খবর পার্সটুডে/২০২১/এনবিএস/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: