ঢাকা, শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন
‘গান্ধীর নীতিতে ভিক্ষাই আসে, স্বাধীনতা নয়’, ফের বিস্ফোরক কঙ্গনা
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

‘গান্ধীর নীতিতে ভিক্ষাই আসে, স্বাধীনতা নয়’, ফের বিস্ফোরক কঙ্গনা

 ১৯৪৭ সালের ১৫ অগস্ট ভারত স্বাধীন হয়নি, স্বাধীনতা এসেছে ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদীর জমানায়, এমনটাই দাবি করেছেন বলিউডের বিতর্কিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। তাঁর এই মন্তব্যের পরেই বিতর্কের ঝড় উঠেছে। কঙ্গনা এও দাবি করেছেন, ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে আসলে ভিক্ষা পেয়েছিল ভারতবাসী। সেটা স্বাধীনতা নয়। এবার সেই বিতর্ককেই আরও খানিক বাড়িয়ে দিলেন অভিনেত্রী নিজেই। টেনে আনলেন মহাত্মা গান্ধীকেও (Mahatma Gandhi)।


কঙ্গনা রানাউত এদিন জানিয়েছেন, মহাত্মা গান্ধী যে আদর্শের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন করতে চেয়েছিলেন, তাতে আদৌ স্বাধীনতা আসে না। অহিংসার নীতিতে পাওয়া যায় কেবল ভিক্ষাই। ইনস্টাগ্রামে তিনি আরও বলেছেন, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু কিংবা ভগৎ সিংয়ের মতো দেশপ্রেমীরা তাঁদের যোগ্য সম্মান এদেশে পাননি।


এদিন নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে তিনি একটি পুরনো খবর শেয়ার করেছেন যেখানে লেখা আছে নেতাজিকে ব্রিটিশদের হাতে তুলে দিতে মহাত্মা গান্ধী, জওহরলাল নেহেরু এবং মহম্মদ আলি জিন্নারা রাজী হয়ে গেছেন। এই রিপোর্ট শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, আপনি হয় গান্ধীকে সমর্থন করবেন, না হয় নেতাজিকে। দুজন একসঙ্গে আপনার সমর্থন পেতে পারেন না। নিজেরাই ভেবে দেখুন, সিদ্ধান্ত নিন।

এর আগে কঙ্গনা এও দাবি করেছিলেন, দেশকে স্বাধীন করার জন্য যাঁরাই চেষ্টা করেছেন, তাঁদেরকেই ব্রিটিশদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। যাঁরা কেবল ক্ষমতার লোভে অন্ধ হয়েছিলেন, যাঁদের লড়াইয়ের ময়দানে রক্ত ঝরানোর ক্ষমতা ছিল না, তাঁরাই এমনটা করেছিলেন।

কঙ্গনা রানাউতের ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম বিষয়ক এই সমস্ত মন্তব্য নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই বিতর্ক জারি রয়েছে। তাঁর পদ্মশ্রী ফিরিয়ে নেওয়ার দাবিও করেছেন অনেকে। এমনকি কঙ্গনা রানাউত যে বিজেপি ঘনিষ্ঠ, সেই দলের নেতারাও তাঁর থেকে দূরত্ব তৈরির চেষ্টায় আছেন।খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *