ঢাকা, শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন
মাথায় বন্দুকের বাঁট দিয়ে মার, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র তেঘরিয়া
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মাথায় বন্দুকের বাঁট দিয়ে মার, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র তেঘরিয়া

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত উত্তর ২৪ পরগনা।


পুরনো বিবাদকে কেন্দ্র করে অশান্তি ছড়াল কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন পশ্চিম তেঘরিয়া এলাকায়। তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর ঝামেলায় আহত এক। রাস্তায় ফেলে মাথায় বন্দুকের বাঁট দিয়ে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

গতকাল রাত থেকেই উত্তেজনা এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, রাত দশটা নাগাদ ঝামেলা বেঁধে যায় তৃণমূলের দুই দলের মধ্যে। বিটু সিং নামে এক তৃণমূল কর্মী কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ের ধারে চায়ের দোকানে বসে গল্প করছিলেন। সঙ্গে তাঁর বেশ কয়েকজন বন্ধুও ছিলেন।

অভিযোগ, সেই সময় বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া নেতা সুদীপ দাস ওরফে ঘন্টু ১৪-১৫ জনকে নিয়ে সেখানে চড়াও হয়। বিটু ও তার সঙ্গীদের সঙ্গে বচসা শুরু হয় সুদীপের দলবলের। বচসা ক্রমে হাতাহাতিতে গড়ায়। অভিযোগ, ঝামেলা চলার সময় সুদীপের দলের এক দুষ্কৃতী রিভলভার বের করে তার বাঁট দিয়ে বিটুর মাথায় আঘাত করে। তারপর রাস্তায় ফেলে তাঁকে মারধর করা হয়। তাঁর জখম গুরুতর বলে জানা গেছে।


খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় ঘোলা থানার পুলিশ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিটু সিংকে উদ্ধার করে কামারহাটির সাগরদত্ত স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এখন সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে। ঘটনার তদন্ত করছে ঘোলা থানার পুলিশ।

ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী বান্টি করের কথায়, “এলাকায় দাদাগিরি চলছে। বিটু সিং কোনও পার্টি করে না, খেটে খাওয়া ছেলে। ঘন্টুর দলের ১০ থেকে ১৫ জন মিলে বিটুকে বীভৎস মেরেছে। মাথা ফেটে গেছিল, চোখে দেখতে পাচ্ছিল না কিছু।”

আক্রান্ত বিটু সিংয়ের বোন বলেছেন, “আমার ভাই কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ের ধারে গাড়ি পার্ক করতে গিয়েছিল। ওখানেই হামলা হয় তাঁর ওপর। মারধর করা হয়েছে। খবর দ্য ওয়ালের/২০২১/এনবিএস/একে 

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: